প্রচ্ছদ / Tag Archives: বিয়ে শাদীর বিধান

Tag Archives: বিয়ে শাদীর বিধান

মুখে কিছু না বলে বর কনে কাবিননামার রেজিষ্টারে সাইন করলেই কি বিয়ে হয়ে যায়?

প্রশ্ন From: Md. Ahsan Ullah বিষয়ঃ What are the condition to legalize a Muslim Marriage? প্রশ্নঃ I attended a wedding ceremony a few years ago. The marriage did not take place in a traditional way. The bride and groom only put their signature on the register provided by Kazi. They …

আরও পড়ুন

সৎ বোনের মেয়ে তথা সৎ ভাগ্নিকে বিয়ে করা যাবে কি?

প্রশ্ন সৎ মায়ের মেয়ের ঘরের মেয়েকে বিয়ে করা যাবে কি? অর্থাৎ বাবার দ্বিতীয় স্ত্রীর মেয়ের মেয়ে। অর্থাৎ সৎ ভাগ্নিকে, মানে সৎ বোনের মেয়েকে বিয়ে করা যাবে কি না? দয়া করে জানাবেন। উত্তর بسم الله الرحمن الرحيم না, যাবে না। এটা হারাম। বাবার আরেক স্ত্রীর সন্তানরা আপন ভাই বোনের মতই। সুতরাং …

আরও পড়ুন

তালাক ও ইদ্দত পালন ছাড়া আরেকজনের বিবিকে বিয়ে করার হুকুম কী?

প্রশ্ন.  আমার স্ত্রী তার আগের স্বামীর সংসার ছেড়ে চলে আসে, কোন তালাক/ডিভোর্স ছাড়াই,। আমরা প্রথমে কোর্ট থেকে একটি ডিভোর্স লেটার পাঠাই এবং কোর্টম্যারিজ করি, তারপর দিন কাজী দিয়ে বিয়ে সম্পুর্ন করি। তার আগের স্বামীও কয়েক মাস পর ডিভোর্স লেটার পাঠিয়ে নতুন বিয়ে করে। সে চলে আসার কিছু কারণ আছে,। তাকে …

আরও পড়ুন

মা ও এক খালা এবং খালার সামনে নাবালেগ মেয়ে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে বিয়ে করলে তা শুদ্ধ হবে কি?

প্রশ্ন আমি ইকবাল চট্টগ্রাম,,, জৈনক মহিলা তার নাবালেগ মেয়েকে পরিবারকে না জানিয়ে একটি ছেলের সাথে বিবাহ দিতে চান, বিবাহ দেয়ার নিয়ম_মেয়ের মা, খালা, খালু, উপস্থিত থাকবে সাক্ষী হিসেবে আর ছেলে সরাসরি নাবালেগ মেয়েকে (বয়স ১১ বছর) ইজাব করবে আর মেয়ে কবূল করবে। উক্ত সুরতে বিবাহ সহিহ হবে কিনা? উত্তর بسم …

আরও পড়ুন

সহবাস ছাড়া তালাক দেয়া স্ত্রীর মেয়েকে বিয়ে করা যাবে কি?

প্রশ্ন মুফতী সাহেব। আমি প্রবাসে থাকি। ফোনের মাধ্যমে একটি মহিলার সাথে আমার পরিচয় ও সম্পর্ক হয়। ইমু ও হোয়াটসএ্যাপে কথা হয়। অবশেষে আমি তাকে বিয়ে করি। একজন মুফতী সাহেবের কাছ থেকে মাসআলা জেনে নেই। সেই হিসেবে বাংলাদেশে একজনকে বিয়ের জন্য ওকীল নিযুক্ত করি। সে আমার উকীল হিসেবে উক্ত মহিলার সাথে …

আরও পড়ুন

দ্বিতীয় স্ত্রীর মেয়ের সাথে প্রথম স্ত্রীর ছেলেকে বিবাহ দেয়া যাবে?

প্রশ্ন মুফতী সাহেবের কাছে আমার প্রশ্ন হল, সিদ্দীক সাহেব প্রথমে একটি বিয়ে করেন। তার একটি ছেলে হয়। তারপর উক্ত স্ত্রী মারা যান। তারপর তিনি এক বিধবা মহিলাকে বিয়ে করেন। যার সাথে আগের স্বামীর পক্ষ থেকে একটি মেয়ে আছে। সিদ্দীক সাহেব তার এ দ্বিতীয় স্ত্রীর আগের ঘরের উক্ত মেয়ের সাথে নিজের …

আরও পড়ুন

মায়ের আপন মামাতো বোনকে বিয়ে করা কি জায়েজ আছে?

প্রশ্ন From: মো রাশেদ বিষয়ঃ বিয়ে সম্পর্কিত প্রশ্নঃ আস্সালামু আলাইকুম।জনাব আশা করি ভাল আছেন।আমার একটি প্রশ্ন হচ্ছে যে, “মায়ের আপন মামাতো বোন কে বিয়ে করা কি যায়েজ আছে? এই সম্পর্কে ইসলামে সুস্পষ্ট কোনো নির্দেশনা আছে কিনা? ধন্যবাদ। উত্তর وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته بسم الله الرحمن الرحيم হ্যাঁ, জায়েজ আছে।যেখানে …

আরও পড়ুন

চাচির সৎবোনকে বিবাহ করা কি নাজায়েজ?

প্রশ্ন Jonab, Assalamualaikum..! Ami apnar nikot ekti somossar somadhan chaisi. Amr boyos 27.. M.Sc in Chemistry . Ami somproti ekti meyeke bibaho koresi… Se amar apon cachar salika. Amar cachir apon sotobon. Biar agei janiye silam barite. But eta somaj er voi a keu mante chaise na. Emn ki amar …

আরও পড়ুন

শিয়া ছেলের সাথে সুন্নী মতাদর্শী মেয়ের বিবাহের হুকুম কী?

প্রশ্ন 1) আমার বড় ভাইয়ের ছোট মেয়ে শিয়া আকিদার একটা ছেলের সাথে প্রেম করে কয়েক বছর যাবত এখন তারা পারিবারিকভাবে বিবাহের ব্যবস্থা করতেছে । আমি ছোট ভাই হিসাবে বাধা দেয়ার চেষ্টা করেছি কিন্তু তারা তাদের সিন্ধান্তে অটল । আগামী মাসে বিবাহের দিন ধার্য করা হয়েছে । ছেলেটি সুন্নি মুসলিম হতে …

আরও পড়ুন

আন্তঃধর্মীয় বিবাহ আইনঃ কী বলে ইসলাম?

মাওলানা মুহাম্মদ আনসারুল্লাহ হাসান মানব রচিত আইন ও বিধানে পরিবর্তন তথা পরিবর্ধন-পরিমার্জন ও সংস্কার সাধন হতে পারে এবং হয়েও আসছে। কারণ সীমাবদ্ধ জ্ঞানের অধিকারী মানুষের স্বাভাবিকভাবেই ভুল হয়। তারা বিভিন্ন চিন্তা-চেতনা ও মন-মানসিকতায় আক্রান্ত হয়। নানা পথ ও মতের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। স্বার্থ ও আবেগের কারণে বিভ্রান্ত হয়। পক্ষান্তরে আল্লাহ রাববুল আলামীন সকল মাখলুকের স্রষ্টা ও বিশ্বজগতের পালনকর্তা। তাঁকে কখনো ভুল-ভ্রান্তি স্পর্শ করে না। তাঁর কোনো ভুলভ্রান্তি ও ত্রুটি-বিচ্যুতি হতে পারে না। তিনি সকল দোষ ও দুর্বলতা এবং সকল সীমা ও সীমাবদ্ধতার উর্ধ্বে মহান পূত-পবিত্র সত্ত্বা। সুতরাং তার নাযিলকৃত আইন ও বিধানে কোনো ধরনের পরিবর্তন ও সংস্কার হতে পারে না। আল্লাহর বিধানে কোনো ধরনের পরিবর্তন সাধন বা কোনো ধরনের বিরুদ্ধাচরণ চরম অন্যায় ও জঘন্যতম অপরাধ। যারা আল্লাহর বিধানে হাত দেওয়ার দুঃসাহস করে, আল্লাহর আইনে পরিবর্তন ও সংস্কারের চিন্তা-ভাবনা করে তারা চরম দুষ্কৃতিকারী, বড় জালিম এবং আল্লাহর জমিনে ফাসাদ সৃষ্টিকারী। তারা ইসলাম থেকে বহিষ্কৃত। আল্লাহ তাআলা কুরআন মজীদে বিবাহ ও তালাকের বিধান বর্ণনা করার পর ইরশাদ করেছেন- تِلْكَ حُدُودُ اللَّهِ فَلَا تَعْتَدُوهَا وَمَنْ يَتَعَدَّ حُدُودَ اللَّهِ فَأُولَئِكَ هُمُ الظَّالِمُونَ (তরজমা) এ সবই আল্লাহর নির্ধারিত সীমারেখা। সুতরাং তোমরা তা লঙ্ঘন করো না। যারা আল্লাহর সীমা লঙ্ঘন করে তারা বড়ই জালিম।-সূরা বাকারা (২) : ২২৯ অনুরূপভাবে উত্তরাধিকার সম্পত্তির বণ্টনে আল্লাহ তাআলা কুরআনে নির্ধারিত অংশগুলোকে ‘আল্লাহর পক্ষ থেকে নির্ধারিত হিস্যা’  আখ্যায়িত  করে ঘোষণা করেছেন- تِلْكَ حُدُودُ اللَّهِ وَمَنْ يُطِعِ اللَّهَ وَرَسُولَهُ يُدْخِلْهُ جَنَّاتٍ تَجْرِي مِنْ تَحْتِهَا الْأَنْهَارُ خَالِدِينَ فِيهَا وَذَلِكَ الْفَوْزُ الْعَظِيمُ * وَمَنْ يَعْصِ اللَّهَ وَرَسُولَهُ وَيَتَعَدَّ حُدُودَهُ يُدْخِلْهُ نَارًا …

আরও পড়ুন
আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস