প্রচ্ছদ / Tag Archives: আহকামে কুরবানী (page 5)

Tag Archives: আহকামে কুরবানী

কুরবানীর নিয়তে পশু ক্রয় করার পর তা কুরবানী না দিয়ে অন্য পশু দিতে পারবে কি?

প্রশ্ন যদি কোন ব্যক্তি কুরবানীর উদ্দেশ্যে কেনা পশুটা রেখে নিজের জন্য পালতে চায়,# অথবা আগামী বছর এটাকে কুরবানী করবে এই নিয়ত করে, এবং নতুন একটা পশু কিনে কুরবানী দিতে চায়, তাহলে তার হুকুম কি?? # ক্রয় কৃত যেই পশুটা পালনের জন্য অথবা আগামী বছর কুরবানীর জন্য রেখে দিতে চাইছে, তার …

আরও পড়ুন

পালিত পশুতে কুরবানীর নিয়ত করার পর সেই নিয়ত বাতিল করা যাবে কি?

প্রশ্ন আমার উপর কুরবানী ওয়াজিব নয়। আমি গত বছর একটি পশু পালন করার জন্য ক্রয় করি। তারপর সেটিকে কুরবানী করার নিয়ত করি। এখন এটি কুরবানী করতে চাচ্ছি না। প্রশ্ন হল, আমি কি এটা করতে পারবো? উত্তর بسم الله الرحمن الرحيم হ্যাঁ। পারবেন। কোন সমস্যা নেই। ولو كان فى ملك انسان …

আরও পড়ুন

স্ত্রীর অনাদায়কৃত মোহরানা কি কুরবানী ওয়াজিব হতে প্রতিবন্ধক হবে?

প্রশ্ন মোহরানার টাকা স্ত্রী পাবে স্বামীর কাছে,আর তা আদায় করার পর স্বামীর কাছে নেসাব পরিমাণ টাকা থাকবে না, এখন স্বামীর উপর কোরবানি ওয়াজিব কিনা? এখন জানালে খুব উপকৃত হব, আল্লাহ আপনাকে দ্বিনি কাজে সহযোগিতা করার তাওফীক দান করেন, আমীন উত্তর بسم الله الرحمن الرحيم যদি মোহর এখনি আদায় করে দেয়,বা …

আরও পড়ুন

শিং ভাঙ্গা পশু কি কুরবানী করা যাবে?

প্রশ্ন আসসালামু আলাইকুম কেমন আছেন? আমার একটা প্রশ্ন হলো, এক গরীবের একটা গরু ছিলো, সে মানত করলো, আমার অমুক কাজটি পূর্ণ হলে আমি এই গরুর একটা অংশ কুরবান করবো। বাকি ৬ অংশ অন্যদেরকে বিক্রি করে দেবো। পরে কাজটি পূর্ণ হয়। পরবর্তিতে হঠাৎ করে ঐ গরুর একটা শিং সম্পূর্ণ সমূলে উপড়ে …

আরও পড়ুন

এক গরুতে দুইজনে মিলে ছয় ভাগ রেখে এক ভাগ মৃতের নামে দেয়া জায়েজ ফাতওয়াটি কি দারুল উলুম দেওবন্দের ফাতওয়ার বিপরীত?

প্রশ্ন একটি মাসআলায় এখতেলাফ পেয়ে তার সমাধানের জন্য এই প্রশ্ন। নিচে দারুল উলুম দেওবন্দের ফতাওয়া দিয়ে দেওয়া হলো ৷ তা’লীমুল ইসলাম ইনস্টিটিউটের ফাতাওয়া এক গরুতে ছয় ভাগ দুইজন মিলে দিয়ে এক ভাগ মৃত মায়ের নামে কুরবানী দেয়ার হুকুম কী? প্রশ্ন From: এনামুল হক কিশোরগন্জ বিষয়ঃ কুরবানি প্রশ্নঃ মাননীয় মুফতি সাহেব, …

আরও পড়ুন

যৌথ পরিবারে এবং পতিত জমির উপর ও কত সম্পদে কুরবানী আবশ্যক? কুরবানীর গোশত কি বিনিময় হিসেবে দেয়া যাবে?

প্রশ্ন আসসালামু আলাইকুম। মুহতারাম আশাকরি আল্লাহর অশেষ মেহেরবানিতে ভালই আছেন। নিম্নোক্ত প্রশ্নগুলোর উত্তর জালালে খুব উপকৃত হতাম। ১ বর্তমানে কত হাজার টাকা বা সম্পদ থাকলে কুরবানী ওয়াজিব হবে? ২ যৌথ পরিবারের কয়েকজনের কাছে পর্যাপ্ত টাকা বা সম্পদ থাকলে সকলের উপর ভিন্ন ভিন্ন কুরবানি ওয়াজিব হবে? না পরিবারের কর্তা আদায় করলেই …

আরও পড়ুন

কুরবানীর পশু জবাই করার পূর্বে চামড়া বিক্রি করা যাবে?

প্রশ্ন কুরবানীর পশু জবাই করার পূর্বে চামড়া বিক্রি করা জায়েজ? উত্তর بسم الله الرحمن الرحيم না। জায়েজ হবে না। কারণ, যে বস্তু এখনো হস্তগত হয়নি, সে বস্তু বিক্রি করা জায়েজ নেই। যেহেতু চামড়া যতক্ষণ পশুর শরীর থেকে আলাদা করা না হয়, ততক্ষণ তা হস্তগত হয়েছে বলে ধরা হয় না। তাই, …

আরও পড়ুন

যে পশুর জন্মগতভাবেই অণ্ডকোষ নেই এমন পশু কুরবানী দেয়া যাবে কি?

প্রশ্ন যে পশুর জন্মগতভাবেই অণ্ডকোষ নেই। এমন পশু কুরবানী দেয়া যাবে কি? উত্তর بسم الله الرحمن الرحيم অণ্ডকোষ জন্মগতভাবে না থাকুক বা পরবর্তীতে কেটে ফেলা হোক। সর্বাবস্থায়ই উক্ত পশু দিয়ে কুরবানী করা জায়েজ। ويضحى بالجماء والخصى، (رد المحتار، كتاب الأضحية-9\467، البحر الرائق-8\323، تاتارخانية-17\426، رقم-2771) والخصى أفضل من الفحل لأنه أطيب …

আরও পড়ুন

আড়াই ভ‌রি স্বর্ণ ও দুই হাজার টাকার মা‌লি‌কের উপর কুরবানী ওয়া‌জিব?

প্রশ্ন আসসালামু আলাইকুম। মুহতারাম নিম্নোক্ত অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে আমার আম্মার উপর কুরবানি ওয়াজিব হয় কিনা তা জানালে উপকৃত হতাম। আমার আম্মার ২.৫ ভরি স্বর্ণালঙ্কার আছে। এছাড়া উনার নামে ৭.৫ শতাংশ জমি আছে। এ জমিতে ধান চাষ করা হয় এবং উৎপাদিত ধান চাল করে নিজেরা খাওয়া হয়। এই জমির বর্তমান মূল্য আনুমানিক …

আরও পড়ুন

কুরবানীর ফযীলত ও মাসায়েল

মাওলানা মুহাম্মদ ইয়াহইয়া কুরবানীর গুরুত্ব ও ফযীলত কুরবানী একটি গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত। সামর্থ্যবান নর-নারীর উপর কুরবানী ওয়াজিব। এটি মৌলিক ইবাদতের অন্তর্ভুক্ত। আদম আ. থেকে সকল যুগে কুরবানী ছিল। তবে তা আদায়ের পন্থা এক ছিল না। শরীআতে মুহাম্মাদীর কুরবানী মিল্লাতে ইবরাহীমীর সুন্নত। সেখান থেকেই এসেছে এই কুরবানী। এটি শাআইরে ইসলাম তথা ইসলামের প্রতীকি বিধানাবলির অন্তর্ভুক্ত। সুতরাং এর মাধ্যমে শাআইরে ইসলামের বহিঃপ্রকাশ ঘটে। এছাড়া গরীব-দুঃখী ও পাড়া-প্রতিবেশীর আপ্যায়নের ব্যবস্থা হয়। আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের শর্তহীন আনুগত্যের শিক্ষা রয়েছে কুরবানীতে। পাশাপাশি আল্লাহ তাআলার জন্য ত্যাগ ও বিসর্জনের ছবকও আছে এতে। আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেছেন- فصل لربك وانحر  (তরজমা) অতএব আপনি আপনার রবের উদ্দেশ্যে নামায পড়ুন এবং কুরবানী আদায় করুন। অন্য আয়াতে এসেছে- قل ان صلاتى ونسكى ومحياى ومماتى لله رب العالمين.  (তরজমা) (হে রাসূল!) আপনি বলুন, আমার নামায, আমার কুরবানী, আমার জীবন, আমার মরণ …

আরও পড়ুন
আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস