হোম / জুমআ ও ঈদের নামায / ঈদের নামাযে তাকবীর ভুল হলে সাহু সেজদা দেবার হুকুম কী?
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

ঈদের নামাযে তাকবীর ভুল হলে সাহু সেজদা দেবার হুকুম কী?

প্রশ্ন:

মুহতারাম, গত কুরবানির ঈদে আমি ঈদের নামাজ পড়ার জন্য ইদগাহে যাই , সেখানে ৮০০/৯০০ শত মানুষ এক সাথে নামাজ পড়ে , ঈদের নামাজ পড়ার সময় ১ম রাকাতে ইমাম সাহেব অতিরিক্ত ৩ তাকবীরের সাথে ভুলে আরেকটি তাকবীর দিয়ে দেন , এরপর শেষে সাহু সেজদা না দিয়েই নামাজ শেষ করেন , নামাজ শেষে একদল বলে নামাজ হয়নি , ইমাম সাহেবসহ আরেকদল বলে নামাজ হয়ে গেছে, জানার বিষয় হলো উক্ত নামাজের বিধান কি?

নিবেদক:
জাফরুল্লাহ জুনায়েদ
চৌমুহনী, নোয়াখালী

উত্তর:
بسم الله الرحمن الرحيم

প্রশ্নোক্ত কারনে সাহু সেজদা আবশ্যক হয়েছিল । তবে মুসল্লীর আধিক্য ও ফেৎনার আশঙ্কা থাকায় সাহু সেজদা না দেওয়ার সুযোগ ছিল বিধায় নামাজটি সহীহ হয়েছে ।

# وجوب سجدة السهو لزيادة التكبير في العيدين :

جاء في “مختصرالقدوري ” ص 103 ، سجود السهو واجب في الزيادة و النقصان بعد السلام يسجد سجدتين ثم يتشهد و يسلم ، و يلزمه سجود السهو إذا زاد في صلاته فعلا من جنسها ليس منها، انتهى

جاء في ” البحر الرائق ” 2/ 170 ، العاشر تكبيرات العيدين ، قال في البدائع : إذا تركها أو نقص منها أو زاد عليها أو أتى بها في غير موضعها فإنه يجب عليه السجود ، انتهى

و كذا في ” بدائع الصنائع” 1/ 406 ، و في “الفتاوى الهندية” 1/ 128 ، و في ” الفتاوى الخانية ” 1/ 121 ،

# رخصة ترك سجدة السهو في صلاة العيدين و الجمعة :

جاء في ” إمداد الفتاح ” ص 485 ، لا يأتي الإمام بسجود السهو في الجمعة و العيدين دفعا للفتنة بكثرة الجماعة و بطلان صلاة من يرى لزوم المتابعة و فساد صلاة بتركها و درء المفسدة على جلب المصلحة ، انتهى

و كذا في ” مراقي الفلاح مع حاشية الطحطاوي” ص465، و في الفتاوى الهندية 1/ 128

والله اعلم باصواب
উত্তর লিখনে
মুহা. ইসমাঈল
শিক্ষার্থী : ইফতা বিভাগ- মা’হাদুত তালীম ওয়াল বুহুসীল ইসলামিয়া ঢাকা ।

সত্যায়নে

লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক ও প্রধান মুফতী– মা’হাদুত তালীম ওয়ালবুহুসিল ইসলামিয়া ঢাকা।

মেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

একটি ছেলেকে বিয়ে করবে মর্মে কসম করে মেয়েটি কসম ভেঙ্গে ফেললে গোনাহগার হবে?

প্রশ্ন আমার প্রশ্ন টা হলো,আমাকে একটি মেয়ে,বিয়ে করার জন্য, সে আল্লাহর কসম করে বলেছে সে …