প্রচ্ছদ / তালাক/ডিভোর্স/হুরমত / এক তালাক দেবার পর ‘তোর চৌদ্দগুষ্টিকে এক তালাক’ বললে কয় তালাক পতিত হবে?

এক তালাক দেবার পর ‘তোর চৌদ্দগুষ্টিকে এক তালাক’ বললে কয় তালাক পতিত হবে?

প্রশ্ন

আসসালামুয়ালাইকুম

মুহতারাম, আশা করি ভাল আছেন?

আমি একটা মাসআলা জানার জন্য আপনাকে নক করেছি, যদি সুযোগ হয় একটু উত্তর দিলে খুশি হব।

মাসআলা হল, এক স্বামী রাগান্বিত অবস্থায় তার স্ত্রীকে বলেছে, তোকে এক তালাক, তোর চৌদ্দগুষ্টিকে এক তালাক। এমতাবস্থায় ওই স্ত্রীর উপর কত তালাক পতিত হবে এবং কি তালাক (রজঈ, বায়েন) পতিত হবে, দয়া করে জানালে খুবই খুশি হব। বিষয়টা নিয়ে আমি খুবই কনফিউশনে আছি, জাযাকাল্লাহ।

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

দুই তালাকে রজয়ী পতিত হবে।

তবে যদি চৌদ্দিগুষ্ঠিকে তালাক বলার দ্বারা স্বতন্ত্র তালাক নয়, বরং প্রথম তালাকের সংবাদ উদ্দেশ্য হয়, বা তাকীদ উদ্দেশ্য করে বলে, তাহলে এক তালাকে রজয়ী হবে।

অন্যথায় স্বাভাবিকভাবে দুই তালাকে রজয়ী ধরা হবে।


وَفِي نِسَاءِ أَهْلِ السِّكَّةِ أَوْ الدَّارِ وَهُوَ مِنْ أَهْلِهَا وَنِسَاءِ هَذَا الْبَيْتِ وَهِيَ فِيهِ تَطْلُقُ كَذَا فِي فَتْحِ الْقَدِيرِ.

وَلَوْ قَالَ نِسَاءُ هَذِهِ الْبَلْدَةِ أَوْ هَذِهِ الْقَرْيَةِ طَوَالِقُ وَفِيهَا امْرَأَتُهُ طَلُقَتْ كَذَا فِي فَتَاوَى قَاضِي خَانْ (الفتاوى الهندية، كتاب الطلاق، مطلب لو قال نساء اهل الدنيا او البلدة طوالق وفيه امراة-1/357)

أن بعض الواعاظ طلب من الحاضرين شيئا فلم يعطوه، فقال مضجرا منهم طلقتكم ثلاثة وكانت زوجته فيهم أن الواعظ إن كان في دار طلقت (الأشباه والنظائر-85-86)

وجز بالوقوع فى البزازية فى نساء المحلة والدار والبيت (البحر الرائق، كويته-3/253)

كَرَّرَ لَفْظَ الطَّلَاقِ) بِأَنْ قَالَ لِلْمَدْخُولَةِ: أَنْتِ طَالِقٌ أَنْتِ طَالِقٌ أَوْ قَدْ طَلَّقْتُكِ قَدْ طَلَّقْتُكِ أَوْ أَنْتِ طَالِقٌ قَدْ طَلَّقْتُك أَوْ أَنْتِ طَالِقٌ وَأَنْتِ طَالِقٌ، ……. (قَوْلُهُ وَإِنْ نَوَى التَّأْكِيدَ دِينَ) أَيْ وَوَقَعَ الْكُلُّ قَضَاءً، وَكَذَا إذَا طَلَّقَ أَشْبَاهَ: أَيْ ‌بِأَنْ ‌لَمْ ‌يَنْوِ ‌اسْتِئْنَافًا وَلَا تَأْكِيدًا لِأَنَّ الْأَصْلَ عَدَمُ التَّأْكِيدِ (رد المحتار، كتاب الطلاق، باب طلاق غير المدخول بها، زكريا-4/521، كرتاشى-3/293)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

পরিচালক: শুকুন্দী ঝালখালী তা’লীমুস সুন্নাহ দারুল উলুম মাদরাসা, মনোহরদী নরসিংদী।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

‘শরীকানা কুরবানীতে একজনের কুরবানী না হলে বাকিদের কুরবানী হবে না’ কথাটি সঠিক নয়?

প্রশ্ন একজন মাওলানা সাহেব বলেছেন, “শরীক কুরবানীর ক্ষেত্রে একজনের কুরবানী না হলে বাকি শরীকদের কুরবানী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস