প্রচ্ছদ / কাফন-দাফন-জানাযা / কবরে রাখার দুআ ও কবরস্ত করার পর দুআর প্রমাণ

কবরে রাখার দুআ ও কবরস্ত করার পর দুআর প্রমাণ

প্রশ্ন

আসসালামোয়ালাইকুম,

আমার প্রশ্নঃ

মাইয়াত কে কবরস্থ করার পর আমরা যে দুয়া করি তার কোনো দলিল আছে কিনা?

উত্তর শীঘ্রই পাবো ইনশাআল্লাহ।

প্রশ্নকর্তা- আশিক ইকবাল

 

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

 

عَنْ سَعِيدِ بْنِ الْمُسَيِّبِ، قَالَ: حَضَرْتُ ابْنَ عُمَرَ فِي جِنَازَةٍ، فَلَمَّا وَضَعَهَا فِي اللَّحْدِ، قَالَ: «بِسْمِ اللَّهِ، وَفِي سَبِيلِ اللَّهِ، وَعَلَى مِلَّةِ رَسُولِ اللَّهِ» فَلَمَّا أُخِذَ فِي تَسْوِيَةِ اللَّبِنِ عَلَى اللَّحْدِ قَالَ: «اللَّهُمَّ أَجِرْهَا مِنَ الشَّيْطَانِ، وَمِنْ عَذَابِ الْقَبْرِ، اللَّهُمَّ جَافِ الْأَرْضَ عَنْ جَنْبَيْهَا، وَصَعِّدْ رُوحَهَا، وَلَقِّهَا مِنْكَ رِضْوَانًا» قُلْتُ: يَا ابْنَ عُمَرَ أَشَيْءٌ سَمِعْتَهُ مِنْ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ، أَمْ قُلْتَهُ بِرَأْيِكَ؟ قَالَ: «إِنِّي إِذًا لَقَادِرٌ عَلَى الْقَوْلِ، بَلْ شَيْءٌ سَمِعْتُهُ مِنْ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ»

ইমাম সাঈদ বিন মুসায়্যিব থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি একদা হযরত আব্দুল্লাহ বিন ওমর রাঃ এর সাথে শরীক হলাম। যখন মাইয়্যেতকে কবরে রাখা হল, তখন তিনি [ইবনে ওমর রাঃ] বললেন, বিসমিল্লাহি ওয়া ফী সাবীলিল্লাহি ওয়া আলা মিল্লাতি রাসূলিল্লাহ

যখন দাফন শেষ হয়ে গেল, মাটি কবরের উপর বরাবর করে দেয়া হচ্ছিল। তখন তিনি এ দুআ পড়লেন-

اللَّهُمَّ أَجِرْهَا مِنَ الشَّيْطَانِ، وَمِنْ عَذَابِ الْقَبْرِ، اللَّهُمَّ جَافِ الْأَرْضَ عَنْ جَنْبَيْهَا، وَصَعِّدْ رُوحَهَا، وَلَقِّهَا مِنْكَ رِضْوَانًا

 

আমি বললাম, হে ইবনে ওমর! আপনি এ দুআ কি নিজের পক্ষ থেকে পড়েছেন না রাসূল সাঃ থেকে শুনেছেন? তিনি বললেন, আমি এটি রাসূল সাঃ থেকে শুনেছি।

সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-১৫৫৩,

শরহুস সুন্নাহ লিলবাগাবী, হাদীস নং-১৫১৪,

আলমুজামুল কাবীর লিততাবারী, হাদীস নং-১৩০৯৪,

সুনানে কুবরা লিলবায়হাকী, হাদীস নং-৭০৬১

আলমুসনাদুল জামে, হাদীস নং-৭৪৬১।

 

মূলত উক্ত হাদীসের উপর ভিত্তি করেই দাফনের পর দুআ করা হয়। দাফনের পর দুআ করাকে জরুরী মনে করা বিদআত। তবে যেহেতু এমন সময় সুওয়াল জওয়াব শুরু হয়, আর হযরত আব্দুল্লাহ বিন ওমর রাঃ থেকে হাদীসও রয়েছে দাফনের পর দুআ করার তাই এ সময়ে দুআ করাতে কোন সমস্যা নেই। কিন্তু জরুরী বা আবশ্যকীয় মনে করা যাবে না।

والله اعلم بالصواب

উত্তর লিখনে

লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালকতালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

ইমেইল- ahlehaqmedia2014@gmail.com

lutforfarazi@yahoo.com

আরও জানুন

মুসলমানের জন্য কাফেরের সাথে বিবাহ করার হুকুম কী?

প্রশ্ন From: সারওয়ার বিষয়ঃ অমুসলিম বা কাফের এর সাথে সম্পর্ক করা যাবে কি না?? প্রশ্নঃ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস