হোম / আকিদা-বিশ্বাস / আল্লাহ তাআলাকে খোদা বা বিষ্ণু ও ব্রহ্মা বলে ডাকা যাবে?
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন


বিজ্ঞাপন বিভাগ : 02971547074038  01922319514
Hafiz Khasru  Din Islam বিস্তারিত»


বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

আল্লাহ তাআলাকে খোদা বা বিষ্ণু ও ব্রহ্মা বলে ডাকা যাবে?

প্রশ্ন

From: আবু আইয়ুব আনছারী, কাশীনগর,১৪ গ্রাম, কুমিল্লা
বিষয়ঃ আল্লাহকে খোদা বা বিষ্ণু ব্রহ্মা ডাকা যাবে কি?

আল্লাহকে খোদা বা বিষ্ণু ব্রহ্মা ডাকা যাবে কি?

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

আল্লাহকে আল্লাহ বলে ডাকাই সবচে’ উত্তম ও শ্রেয়।

তবে অন্য ভাষায় আল্লাহ তাআলাকে আর কী নামে ডাকা যাবে? এ বিষয়ে একটি মূলনীতি মনে রাখতে হবে। সেটি হলঃ

আল্লাহ তাআলাকে অন্য ভাষায় এমন শব্দে ডাকা জায়েজ, যে শব্দে আর কাউকে ডাকা হয় না। সেই সাথে এটা অন্য কোন ধর্মের ধর্মীয় কোন নাম নয়। (আল ইয়াওয়াক্বীত ওয়াল জাওয়াহীর-৭৮, ফাতওয়া আলমগীরী-৬/৪৪৬}

এ মূলনীতির আলোকে খোদা শব্দটি আল্লাহ তাআলার নাম হিসেবে বাংলা, ফার্সী, উর্দু, হিন্দিতে অনুবাদ হিসেবে বলাতে কোন সমস্যা নেই।

কারণ খোদা শব্দটি ইসলাম ধর্ম ছাড়া অন্য কোন ধর্মের কোন ধর্মীয় শব্দ নয়। সেই সাথে এর দ্বারা আমরা কেবল আল্লাহকেই বুঝে থাকি। অন্য কোন সত্বাকে বুঝি না।

পক্ষান্তরে বিষ্ণু অর্থ রব,এবং ব্রহ্মা অর্থ সৃষ্টিকর্তা হলেও এটা ইসলামি কোন শব্দ নয়। সেই সাথে এ শব্দ দু’টি হিন্দুদের ধর্মীয় প্রতীক।

তাছাড়া হিন্দুদের ধর্মীয় গ্রন্থ অনুপাতে বিষ্ণু এবং ব্রহ্মা এমন দেবতা যারা অনেকের মধ্যে অবতার হিসেবে নাজিল হয়েছে। যেমন রামায়ণের নায়ক রাম হল বিষ্ণুর অবতার। আর ব্রহ্মার অবতার হল কৃষ্ণ।

এরা পরস্পর ঝগড়া করতো। মারামারি করতো। এমন সব আজগুবি বিশ্বাসের প্রতীক হল বিষ্ণু ও ব্রহ্মা।

তাই এ শব্দে আল্লাহকে ডাকা জায়েজ নয়। পক্ষান্তরে খোদা শব্দটি। এটা নিরেট ইসলামি শব্দ। এর দ্বারা অন্য কোন ধর্মকে বুঝায় না। বুঝায় না আল্লাহ ছাড়া অন্য কোন সত্বাকেও। তাই আল্লাহ তাআলাকে “খোদা” বলে ডাকা জায়েজ আছে।

যদিও আল্লাহ বলে ডাকাই উত্তম ও শ্রেয়।

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা-জামিয়া ফারুকিয়া দক্ষিণ বনশ্রী ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

একজন সাক্ষীর উপস্থিতিতে বিয়ের আকদ সম্পাদনকারী কাজীকে দ্বিতীয় সাক্ষী ধরলে বিয়ে হবে কি?

প্রশ্ন একজন সাক্ষীর উপস্থিতিতে কাজী যদি বিবাহ পড়ায়। তাহলে কাজীকে একজন সাক্ষী হিসেব করে দুইজন …