প্রচ্ছদ / নির্বাচিত / মাহে রমজানে আপনাদের প্রিয় প্রতিষ্ঠান তা’লীমুল ইসলাম ইনস্টিটিউটে সহযোগিতার হাত প্রসারিত করুন!

মাহে রমজানে আপনাদের প্রিয় প্রতিষ্ঠান তা’লীমুল ইসলাম ইনস্টিটিউটে সহযোগিতার হাত প্রসারিত করুন!

السلام عليكم ورحمة الله وبركاته

আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহ!

সম্মানিত মুসলিম ভাই ও বোনেরা!

আপনাদের দুআর বরকতে আল্লাহ তাআলার অপার কৃপায় “তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ও আহলে হক মিডিয়া ষষ্ঠ বর্ষে উন্নীত হতে চলেছে।

ছাত্র সংখ্যা ও বিভাগ বৃদ্ধি পাওয়ায় পুরানো ঠিকানা রামপুরা ওয়াপদা রোড ছেড়ে উত্তরবাড্ডা সাতারকুল উত্তরপাড়ায় নতুন বাসা ভাড়া নেয়া হয়েছে।

অনলাইন খিদমাত

বিগত ৫ বছরে www.ahlehaqmedia.com নামক আমাদের অফিসিয়াল ওয়েব সাইটে বিভিন্ন বিষয়ের উপর আড়াই হাজারের কাছাকাছি প্রশ্নোত্তর ও ৩৬৯ টি প্রবন্ধ নিবন্ধ এবং আমাদের ইউটিউব চ্যানেল www.youtube.com/ahlehaqmediabd তে প্রায় ৪০০ টি ভিডিও আপলোড করা হয়েছে।

তাছাড়া সাইটের প্রশ্নোত্তর বিভাগে পারিবারিক মাসায়েল থেকে নিয়ে রাষ্ট্রীয়, সামাজিক, ইতিহাস, হাদীসের তাহকীক, দাওয়াত ও তাবলীগ, তাসাওউফ, জারাহ তাদীল ও বিভিন্ন ভ্রান্ত ফিরকার মতবাদসহ দৈনন্দিন  জীবনের প্রায় সব দিকের মাসায়েল বিষয়ে কিছু লেখা এসেছে।

ইফতা বিভাগ

আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের অশেষ রহমাতে ২০১৯/২০২০ ঈসাব্দ শিক্ষাবর্ষ থেকে তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টারে ১ বৎসর মেয়াদী ইফতা তথা ফাতওয়া বিভাগ জামাত খোলা হয়েছে।

নৈশ মাদরাসা

এছাড়া আমাদের “তালীমুল ইসলাম নৈশ মাদরাসা’ বিভাগ এবার মেশকাত জামাতে উন্নীত হয়েছে। আলহামদুলিল্লাহ।

মাদানী নেসাব

২০২০/২১ ঈসাব্দ শিক্ষাবর্ষে মাদানী নেসাব জামাত খোলা হচ্ছে ইনশাআল্লাহ।

মহান আল্লাহর অপার করুনা এবং শুভাকাঙ্ক্ষীদের নেক দুআ ও সহযোগিতা আমাদের চলার পথকে আরো মসৃণ করবে বলেই রব্বে কাবার কাছে আর্জি।

বার্ষিক খরচ

বাসা ভাড়া– ৩০,০০০ × ১২ = ৩,৬০,০০০/= [প্রতি মাসে ত্রিশ হাজার টাকা হিসেবে আগামী বছরের জন্য প্রয়োজন তিন লাখ ষাট হাজার টাকা]

স্টাফ বেতন– ৬৩,০০০ × ১২ = ৭,৫৬,০০০/= [প্রতি মাসে তিষট্টি হাজার টাকা হিসেবে বছরে ৭ লাখ ছাপ্পান্ন হাজার টাকা।

বোর্ডিং বাবত– ৩০,০০০ ×১২ = ৩,৬০,০০০/= [প্রতি মাসে ত্রিশ হাজার টাকা হিসেবে আগামী বছরের জন্য প্রয়োজন তিন লাখ ষাট হাজার টাকা]

নেট বিল আপ্যায়ন ও বিবিধ– ৫,০০০× ১২ =৬০,০০০/= [প্রতি মাসে পাঁচ হাজার টাকা হিসেবে বছরে ষাট হাজার টাকা।

সর্বমোট– ১৫,৩৬,০০০/= [পনের লাখ ছত্রিশ হাজার টাকা]

যেসব খাতে অনুদান নেয়া হবে

১ বাসা ভাড়া, বিদ্যুৎ বিল খাত।

২ ষ্টাফ বেতন খাত।

৩- কুতুবখানা বাবত।

৪- লিল্লাহ বোর্ডিং খাত।

৫-আহলে হক মিডিয়ার সরঞ্জামাদী ক্রয়।

৬- ১২জন বিশেষ দাতা তথা বাৎসরিক ২৫ হাজার টাকা অনুদান দিয়ে বিশেষ দাতা হওয়া।

শুধুমাত্র গরীব ছাত্রদের জন্য বরাদ্দ খাতে যাকাতের টাকা প্রদান করা যাবে। বাকি খাতে কেবল সাধারণ অনুদান প্রদান করতে হবে।

আমরা জানি আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের খাজানায় কোন কমতি নেই। নেই তার দয়ারও কোন ঘাটতি। তিনি অসীম দয়ালু। তার কাছে এক টাকা যেমন এক কোটিও তেমন। তাই আমরা আশাবাদি আল্লাহ রাব্বুল আলামীন এমন কিছু বান্দাকে তৈরী করে দিবেন যারা এ দ্বীনী খিদমাতে স্বতস্ফুর্তভাবে এখলাসের সাথে এগিয়ে আসবে ইনশাআল্লাহ।

আল্লাহ রাব্বুল আলামীন আমাদের তার প্রিয় হিসেবে কবুল করুন। সকল কাজে ইখলাস ও লিল্লাহিয়্যাত দান করুন। কবুল করুন আমাদের সকলের সকল দ্বীনী খিদমাতকে। আমীন। ছুম্মা আমীন।

যারা মাসিক অনুদানে শরীক হতে চান তাদের জন্য জ্ঞাতব্যঃ

নিম্নোক্ত তথ্য সম্বলিত মেইল করুন, বা মোবাইলে যোগাযোগ করুন-

দাতার নামঃ

পিতার নামঃ

স্থায়ী ঠিকানাঃ

বর্তমান ঠিকানাঃ

মেইল এড্রেসঃ

মোবাইল নাম্বারঃ

অনুদানের পরিমাণঃ

মাসের কখন অনুদানটি পাঠানো যাবেঃ

ইত্যাদি তথ্য সম্বলিত মেইল করুন বা মোবাইলে যোগাযোগ করুন।

বদরী কমিটির সদস্য আবেদন!

তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টারের যাবতীয় দ্বীনী কার্যক্রম সচল রাখার জন্য আহলে খায়েরদের পরামর্শক্রমে কয়েকটি ক্যাটাগরীর বদরী কমিটি করার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়েছে।

৩টি ক্যাটাগরি

তথা ১- বাৎসরিক দুই হাজার টাকা [২,০০০/=]।

২- বাৎসরিক পাঁচ হাজার টাকা [৫,০০০/=]।

৩- বাৎসরিক দশ হাজার টাকা [১০,০০০/=]

আগ্রহী ভাইদের নিম্নোক্ত তথ্যাবলীসহ দ্রুত আমাদের অফিসে যোগাযোগ করতে জানানো হচ্ছে-

নাম-

পিতার নাম-

অস্থায়ী ঠিকানা-

স্থায়ী ঠিকানা-

মেইল এড্রেস-

মোবাইল/ফোন-

বাৎসরিক চাঁদা পরিমাণ-

পরিশোধের সম্ভাব্য তারিখ-

বিঃদ্রঃ

# বছরের যে কোন সময় সদস্য হওয়া যাবে।

# বছরের যে কোন সময় বাৎসরিক চাঁদাটি পরিশোধ করা যাবে।

# একজন তিনটি ক্যাটাগরির যে কোন একটি বা একাধিক ক্যাটাগরির সদস্য হতে পারবেন।

# অল্প অল্প করেও জমা দেয়া যাবে।

নিজে সদস্য হয়ে অন্যদেরও সদস্য বানানোর জন্য ফিকির করে হক ও হক্কানিয়াতের মশাল উড্ডিন করার প্রত্যয় গ্রহণ করি। আল্লাহ রাব্বুল আলামীন আমাদের তার দ্বীনের জন্য কবুল করুন। আমীন।

কার্যক্রমকে সচল রাখতে এবং সুনিপুণভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করতে উপরোক্ত পদ্ধতি গ্রহণ সহযোগী হবে বলে আমাদের বিশ্বাস।

আল্লাহ তাআলা সকল কিছুর মালিক। তিনিই উত্তম দাতা এবং প্রতিদানের মালিক। আল্লাহ তাআলা আমাদের সবাইকে তার দ্বীনের জন্য কবুল করুন। সাইটে প্রকাশিত প্রতিটি লেখা প্রতিটি ভিডিও এর সদকায়ে জারিয়া আমাদের সবার জন্য কিয়ামত পর্যন্ত জারী রাখুন। আমীন।

আল্লাহ তাআলা আমাদের সকলকে তার দ্বীনের জন্য কবুল করুন। আমীন। 

সকলের জন্য দুনিয়া ও আখেরাতের কল্যাণ কামণা।

সার্বিক যোগাযোগ ও সহযোগিতা পাঠানোর ঠিকানা

মুফতী লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক ও প্রধান মুফতী

তা’লীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উত্তর বাড্ডা সাতারকুল উত্তরপাড়া জামে মসজিদ।

(উত্তর বাড্ডা বাস‌স্টেন্ড থে‌কে সাতারকুল ব্রিজ হ‌য়ে একটু সাম‌নে সাতারকুল উত্তরপাড়া জা‌মে মস‌জিদ সংলগ্ন।)

একাউন্ট এড্রেস

islami bank bangladesh limited 

Branch Rampura, Dhaka

Account Title– LUTFOR RAHMAN FARAZI AKRAM

Account No– 20502260202166316

সংক্ষেপে21663

Bkash– 01723785925।

মেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

মোবাইল-০১৭২৩৭৮৫৯২৫, ০১৯৬৬৬৩৮৩৫৬

আরও জানুন

আন্তঃধর্মীয় বিবাহ আইনঃ কী বলে ইসলাম?

মাওলানা মুহাম্মদ আনসারুল্লাহ হাসান মানব রচিত আইন ও বিধানে পরিবর্তন তথা পরিবর্ধন-পরিমার্জন ও সংস্কার সাধন হতে পারে এবং হয়েও আসছে। কারণ সীমাবদ্ধ জ্ঞানের অধিকারী মানুষের স্বাভাবিকভাবেই ভুল হয়। তারা বিভিন্ন চিন্তা-চেতনা ও মন-মানসিকতায় আক্রান্ত হয়। নানা পথ ও মতের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। স্বার্থ ও আবেগের কারণে বিভ্রান্ত হয়। পক্ষান্তরে আল্লাহ রাববুল আলামীন সকল মাখলুকের স্রষ্টা ও বিশ্বজগতের পালনকর্তা। তাঁকে কখনো ভুল-ভ্রান্তি স্পর্শ করে না। তাঁর কোনো ভুলভ্রান্তি ও ত্রুটি-বিচ্যুতি হতে পারে না। তিনি সকল দোষ ও দুর্বলতা এবং সকল সীমা ও সীমাবদ্ধতার উর্ধ্বে মহান পূত-পবিত্র সত্ত্বা। সুতরাং তার নাযিলকৃত আইন ও বিধানে কোনো ধরনের পরিবর্তন ও সংস্কার হতে পারে না। আল্লাহর বিধানে কোনো ধরনের পরিবর্তন সাধন বা কোনো ধরনের বিরুদ্ধাচরণ চরম অন্যায় ও জঘন্যতম অপরাধ। যারা আল্লাহর বিধানে হাত দেওয়ার দুঃসাহস করে, আল্লাহর আইনে পরিবর্তন ও সংস্কারের চিন্তা-ভাবনা করে তারা চরম দুষ্কৃতিকারী, বড় জালিম এবং আল্লাহর জমিনে ফাসাদ সৃষ্টিকারী। তারা ইসলাম থেকে বহিষ্কৃত। আল্লাহ তাআলা কুরআন মজীদে বিবাহ ও তালাকের বিধান বর্ণনা করার পর ইরশাদ করেছেন- تِلْكَ حُدُودُ اللَّهِ فَلَا تَعْتَدُوهَا وَمَنْ يَتَعَدَّ حُدُودَ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *