প্রচ্ছদ / অপরাধ ও গোনাহ / যৌথ পরিবারে পর্দা করা সম্ভব না হলে করণীয় কী?

যৌথ পরিবারে পর্দা করা সম্ভব না হলে করণীয় কী?

প্রশ্ন

যৌথ পরিবারে বউ হয়ে আসা একজন নারী পর্দার হুকুম কিভাবে মেনে চলবেন?
যেখানে একটি নির্দিষ্ট পরিসরে বসবাসের কারনে দেবর-ভাসুরের সাথে দেখা হয়েই যায়।

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

পর্দা করা এটা কোন সাধারণ বিষয় নয় যে, এটাকে এরকম উজর থাকায় তা লঙ্ঘণ করার সুযোগ রয়েছে। এটা কুরআন ও হাদীসের অকাট্য একটি বিধান।

তাই তা পালনে যথার্থ ব্যবস্থা করতে হবে।

প্রয়োজন দেবর ভাসুরের সাথে সাক্ষাৎ যেন না হয়, এজন্য দেয়াল/বেড়া ইত্যাদির মাধ্যমে পর্দার বিধান নিশ্চিত করতে হবে।

যদি সম্ভব না হয়, তাহলে পর্দার সাথে আলাদা থাকার ব্যবস্থা করতে হবে। তবু পর্দার বিধান লঙ্ঘণ করা যাবে না।

قُل لِّلْمُؤْمِنِينَ يَغُضُّوا مِنْ أَبْصَارِهِمْ وَيَحْفَظُوا فُرُوجَهُمْ ۚ ذَٰلِكَ أَزْكَىٰ لَهُمْ ۗ إِنَّ اللَّهَ خَبِيرٌ بِمَا يَصْنَعُونَ [٢٤:٣٠]

মুমিনদেরকে বলুন, তারা যেন তাদের দৃষ্টি নত রাখে এবং তাদের যৌনাঙ্গর হেফাযত করে। এতে তাদের জন্য খুব পবিত্রতা আছে। নিশ্চয় তারা যা করে আল্লাহ তা অবহিত আছেন। [সূরা নূর-৩০]

وَلَا يُبْدِينَ زِينَتَهُنَّ إِلَّا لِبُعُولَتِهِنَّ أَوْ آبَائِهِنَّ أَوْ آبَاءِ بُعُولَتِهِنَّ أَوْ أَبْنَائِهِنَّ أَوْ أَبْنَاءِ بُعُولَتِهِنَّ أَوْ إِخْوَانِهِنَّ أَوْ بَنِي إِخْوَانِهِنَّ أَوْ بَنِي أَخَوَاتِهِنَّ أَوْ نِسَائِهِنَّ أَوْ مَا مَلَكَتْ أَيْمَانُهُنَّ أَوِ التَّابِعِينَ غَيْرِ أُولِي الْإِرْبَةِ مِنَ الرِّجَالِ أَوِ الطِّفْلِ الَّذِينَ لَمْ يَظْهَرُوا عَلَىٰ عَوْرَاتِ النِّسَاءِ ۖ [٢٤:٣١]

এবং তারা যেন তাদের স্বামী, পিতা, শ্বশুর, পুত্র, স্বামীর পুত্র, ভ্রাতা, ভ্রাতুস্পুত্র, ভগ্নিপুত্র, স্ত্রীলোক অধিকারভুক্ত বাঁদী, যৌনকামনামুক্ত পুরুষ, ও বালক, যারা নারীদের গোপন অঙ্গ সম্পর্কে অজ্ঞ, তাদের ব্যতীত কারো আছে তাদের সৌন্দর্য প্রকাশ না করে [সূরা নূর-৩১]

أن رسول الله صلى الله عليه وسلم: إياكم والدخول على النساء، فقال رجل من الأنصار: يا رسول الله! افرأيت الحمو؟ قال: الحمو الموت، (صحيح البخارى، النسخة الهندية-2/787، رقم-5232، صحيح مسلم، النسخة الهندية2/216، رقم-2172)

“الحمو الموت” فمعناه أن الخوف منه أكثر من غيره، والشر يتوقع منه، والفتنة أكثر لتمكنه من الصول إلى المرأة، والخلوة من غير أن ينكر عليه بخلاف الأجنبى (حاشية مسلم للنووى-2/216)

والمراد بالحمو هنا أقارب الزوج غير أبائه، لأن الخوف من الأقارب أكثر والفتنة منهم أوقع، لتمكنهم من الوصول إليها والخلوة بها من غير نكير (مرقاة المفاتيح، كتاب النكاح، باب النظر إلى المخطوبة وبيان العورات، الفصل الأول-6\278، رقم-3102)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তা’লীমুল ইসলাম ইনস্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

প্রধান মুফতী: জামিয়াতুস সুন্নাহ লালবাগ, ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া ইসলামিয়া দারুল হক লালবাগ ঢাকা।

পরিচালক: শুকুন্দী ঝালখালী তা’লীমুস সুন্নাহ দারুল উলুম মাদরাসা, মনোহরদী নরসিংদী।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com 

আরও জানুন

‘শরীকানা কুরবানীতে একজনের কুরবানী না হলে বাকিদের কুরবানী হবে না’ কথাটি সঠিক নয়?

প্রশ্ন একজন মাওলানা সাহেব বলেছেন, “শরীক কুরবানীর ক্ষেত্রে একজনের কুরবানী না হলে বাকি শরীকদের কুরবানী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস