প্রচ্ছদ / প্রশ্নোত্তর / যাকাত সৌর বৎসর হিসেবে? নাকি চন্দ্র বৎসর হিসেবে আদায় করবে?

যাকাত সৌর বৎসর হিসেবে? নাকি চন্দ্র বৎসর হিসেবে আদায় করবে?

প্রশ্ন:

মুহতারাম, আমি প্রত্যেক বৎসর যাকাত আদায় করি Luner year তথা চন্দ্র বৎসর হিসেবে। তবে এই বৎসর SoLor year তথা সৌরবৎসর হিসেবে “যাকাত দিতে চাইলে তা কিভাবে হিসাব করবো ? জানালে উপকৃত হব।

নিবেদক
মীর হুসাইন
মতিঝিল ঢাকা,

بسم الله الرحمن الرحيم
حامدا ومصليا ومسلما
উত্তর:
যাকাত আদায়ের শরঈ নিয়ম হলো, চন্দ্র বৎসর হিসেবে যাকাত বর্ষ গণনা করা।
সৌর বৎসর যেহেতু চন্দ্র বৎসর থেকে ১১ দিন বেশি। তাই একান্ত কেউ সৌর বৎসর হিসেবে যাকাত দিতে চাইলে স্বাভাবিকের চেয়ে একটু বাড়িয়ে যাকাত দিবে, তথা ১০০ ভাগের ২.৬০ ভাগ পার্সেন্টিস হিসেবে যাকাত দিবে, যেন চন্দ্র বৎসরের অতিরিক্ত দিনগুলোরও যাকাত আদায় হয়ে যায়। তবে চন্দ্র বৎসর হিসেবেই থাকাত আদায় করা উচিত।
المستندات الشرعية.
جاء في “التاتار خانيه ” ۳ : ۱۳۴ كتاب الزكاة (ط. ذكر يا ديوبند) : قال: سئل الحسن بن علي رض عن الحول في الزكاة أقمري أم شمسي فقال قمري . انتهىوفي” الهندية” : ١٧٥/١  باب جولان الحول على المال(ط. ذكر يا ديوبند) . قال : العبرة في الزكاة للحول القمري .انتهى

وفي “الدر المختار” مع” رد المحتار ” ٣ / ٢٦٦ كتاب الزكاة (ط. الأزهر ) : قال : وحولها أي الزكاة قمري
لا شمسي
قال ابن عابدين وأجل سنة قمرية بالأهلة على المذهب وهي ثلاث مأة وأربع وخمسون وبعض يوم، وقيل شمسية بالأيام وهي أزيد بأحد عشر يوما ثم إن هذا إنما يظهر إذا كان الملك في ابتداء الأهلة، فلو ملكه في أثناء الشهر، قيل يعتبر بالأيام ، وقيل يكمل الأول من الأخير ويعتبر ما بينهما بالأهلة. انتهى

و في “المعايير الشرعية” ٨٨٤/٢ كتاب الزكاة، البند ٣/٢/٣ / الحول، الحول للموجودات النقدية والتجارية والأنعام سنة قمرية ٣٥٤ يوما، وفي الحال مراعاة السنة الشمسية في الموجودات النقدية والتجارية تكون نسبة الزكاة ٢٠٥٧٧٪ ،

وفي” فقه مقالات” ۳ : ١٤٩ زکوۃ کے جدید مسائل (ط. تھانویة ) : آئیندہ کیلئے تو آپ کسی قمری تاریخ کا تعین کر لیں اور اب تک آپ جو شمسی تاریخ کے حساب سے زکوۃ ادا کرتے چلے آتے۔ تو اس میں ہر سال جو تقریبا چند دنوں کا فرق چلا گیا ہے اسکی تلافی کیلئے آپ شمسی سال کیلئے 2.60 کا حساب کرے اور جو فرق نکلتا ہے اسکی مزید زکوۃ ادا کریں ، . انتهى ،

والله أعلم بالصواب

উত্তর লিখনে

মুহা. শাহাদাত হুসাইন

সাবেক শিক্ষার্থী: ইফতা বিভাগ

তা’লীমুল ইসলাম ইনস্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

সত্যায়নে

মুফতী লুৎফুর রহমান ফরায়েজী।

পরিচালক  – তা’লীমুল ইসলাম ইনস্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম আমীনবাজার ঢাকা।

আরও জানুন

বেতন বৈধ হবার জন্য ক্লাস না থাকলেও কি কলেজ শিক্ষকদের প্রতিষ্ঠানে প্রতিদিন আসতে হবে?

প্রশ্ন আমি বিসিএস পরীক্ষার মাধ্যমে সরকারি কলেজের ইংরেজি প্রভাষক হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত। আমি অন্যান্য বিসিএস ক্যাডারে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস