প্রচ্ছদ / আকিদা-বিশ্বাস / একজন ছেলে জান্নাতে অন্য একজন ছেলেকে মেয়ে হিসেবে চায়, আল্লাহ কি তার আশা পূরা করবে?

একজন ছেলে জান্নাতে অন্য একজন ছেলেকে মেয়ে হিসেবে চায়, আল্লাহ কি তার আশা পূরা করবে?

প্রশ্ন

একজন ছেলে জান্নাতে অন্য একজন ছেলেকে মেয়ে হিসেবে চায়, আল্লাহ কি তার আশা পূরা করবে?

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

আমি কিছু পাল্টা প্রশ্ন করি আপনাকে:

একজন মানুষ জান্নাতে গিয়ে মলমূত্র খেতে চায়, তাহলে কি আল্লাহ তাআলা তাকে তা খেতে দিবেন?

একজন মানুষ জান্নাতে গিয়ে গরু ছাগলকে বিয়ে করতে চায়, তাহলে আল্লাহ তাআলা কি তাকে সেই বিয়ের অনুমতি দিবেন?

এবং আপনার প্রশ্ন যে, কোন পুরুষকে নারী হিসেবে চাইলে তার আশা পূর্ণ হবে কি না?

এসব কিছুর উত্তর আশা করি একই হবে।

এক নাম্বার বিষয়তো হলো, জান্নাত দুনিয়ার মত নয়। জান্নাতের হাকীকত আমাদের কল্পনা করাও সম্ভব নয়।

عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُ، قَالَ: قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ: قَالَ اللَّهُ «أَعْدَدْتُ لِعِبَادِي الصَّالِحِينَ مَا لاَ عَيْنٌ رَأَتْ، وَلاَ أُذُنٌ سَمِعَتْ، وَلاَ خَطَرَ عَلَى قَلْبِ بَشَرٍ،

আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ আল্লাহ ঘোষণা করলেন, আমি আমার নেককার বান্দাদের জন্য এমন বস্তু প্রস্তুত করে রেখেছি, যা কোন চোখ কখনো দেখেনি, কোন কান কখনো শোনেনি, এমনকি কোন মানুষের অন্তরে কল্পনায়ও আসেনি। [সহীহ বুখারী, হাদীস নং-৩২৪৪, ইফাবা-৬৯৮৯]

তাই সেখানে যাবার পর আমাদের দুনিয়াবী নোংরা মন মানসিকতা বাকি থাকার কথা নয়। পবিত্র স্থানে পবিত্র মনোবৃত্তিই কাজ করবে। এটাই স্বাভাবিক।

দুনিয়াবী নোংরা ইচ্ছে ও আকাঙ্খাও সেখানে বাকি থাকার কথা নয়।

তবে একথা ঠিক যে, জান্নাতীরা যা ইচ্ছে করবে, তা’ই সে তার ইচ্ছানুপাতে পাবে।

وَلَكُمْ فِيهَا مَا تَشْتَهِي أَنفُسُكُمْ وَلَكُمْ فِيهَا مَا تَدَّعُونَ [٤١:٣١]

সেখানে তোমাদের জন্য আছে যা তোমাদের মন চায় এবং সেখানে তোমাদের জন্যে আছে তোমরা দাবী কর। [সূরা ফুসসিলাত-৩১]

وَفِيهَا مَا تَشْتَهِيهِ الْأَنفُسُ وَتَلَذُّ الْأَعْيُنُ ۖ وَأَنتُمْ فِيهَا خَالِدُونَ [٤٣:٧١]

এবং তথায় রয়েছে মনে যা চায় এবং নয়ন যাতে তৃপ্ত হয়। তোমরা তথায় চিরকাল অবস্থান করবে। [সূরা যুখরুফ-৭১]

সুতরাং সেখানে কী চাইলে পাওয়া যাবে? আর কী পাওয়া যাবে না? এসব চিন্তা না করে আমাদের উচিত জান্নাতে যাবার সামান প্রস্তুত করা। জান্নাতে যাবার মত আমল করা। জান্নাতে রব্বে কারীম তার শান অনুপাতেই বান্দাকে এর বদলা দিবেন ইনশাআল্লাহ।

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

পরিচালক: শুকুন্দী ঝালখালী তা’লীমুস সুন্নাহ দারুল উলুম মাদরাসা, মনোহরদী, নরসিংদী।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

হজ্জ কখন ফরজ হয়? হজ্জের মাসে নাকি হজ্জ নিবন্ধনের সময়?

প্রশ্ন االسابع الوقت اي وجود القدرة فيه وهي اشهر الحج او هو وقت خروج اهل …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস