প্রচ্ছদ / কুরবানী/জবেহ/আকীকা / রাশিয়া প্রবাসী রাষ্ট্রীয় বিধিনিষেধের কারণে কুরবানী না দিতে পারলে কী করবে?

রাশিয়া প্রবাসী রাষ্ট্রীয় বিধিনিষেধের কারণে কুরবানী না দিতে পারলে কী করবে?

প্রশ্ন

আমি ৩ মাসের জন্য রাশিয়া আছি। এখানে কোরবানি দেয়া সম্ভব না সরকারিভাবে বিধিনিষেধ থাকার কারণে।

আবার বাংলাদেশ এ কোরবানির টাকা পাঠালে সেটা আমার পক্ষ থেকে কেউ করে দিবে এমন লোক নেই।

এখন আমি কি টাকাটা কোথায় সাদকা করে দিবো?  সাদকা করলে সেটা কি কোরবানির আগে দিবো নাকি দেশে এসে দিবো?

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

কুরবানীর দিনসমূহের মাঝে কুরবানী দিতে না পারলে, কুরবানীর দিনসমূহ চলে যাবার পর একটি মধ্যম ধরণের বকরী বা তার মূল্য সদকা করে দিতে হবে।

কুরবানীর দিন আসার আগে দেয়া যাবে না। কুরবানীর দিন সমূহ চলে যাবার পর সদকা করতে হবে। সদকা দেশেও করতে পারেন, বা আপনার অবস্থানস্থলেও করা যাবে।

কিংবা বিশ্বস্ত কাউকে টাকা দিয়ে যে দেশে কুরবানী করা যায় সেসব রাষ্ট্রেও কুরবানী করাতে পারেন ।

ولو تركت التضحية ومضت أيامها تصدق بها حية ناذر وفقير وبقيمتها غنى شراها لها (نتوير الأبصار مع الدر المختار، كتاب الأضحية-9\463)

ولو لم يضح حتى مضت أيام النحر وكان غنيا، وجب عليه ان يتصدق بالقيمة، سواء كان اشترى أو لم يشتر، لأنها واجبة فى ذمته فلا يخرج عن العهدة إلا بالأداء (تبيين الحقائق، كتاب الأضحية-6\478)

وفى الأضاحى للزعفرانى اشترى أضحية فأوجبها ثم باعها ولم يضح ببدلها حتى مضى أيام النحر تصدق بقيمة التى باع، فإن لم يبعها حتى مضت أيام النحر تصدق بها حية الخ (المحيط البرهانى-8\46، رقم-10812)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তা’লীমুল ইসলাম ইনস্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

পেশাবের দশ পনের মিনিট পর পেশাবের ফোটা আসার সন্দেহ হলে করণীয় কী?

প্রশ্ন From: আব্দুলাহ আনাস বিষয়ঃ পবিত্রতা প্রশ্নঃ আসসালামু আলাইকুম। কেমন আছেন হুজুর? এক ব্যক্তি বড় দীর্ঘ দিন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস