হোম / কুরবানী/জবেহ/আকীকা / সাহেবে নিসাব বলতে কী বুঝায়? স্ত্রীর কুরবানীর টাকা সংগ্রহ করা কার দায়িত্ব?
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

সাহেবে নিসাব বলতে কী বুঝায়? স্ত্রীর কুরবানীর টাকা সংগ্রহ করা কার দায়িত্ব?

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম

মোহতারাম মুফতি সাহেব

প্রশ্নঃ

ছহেব নেসাব কাকে বলে,

বিস্তারিত জানালে উপকৃত হতাম,

প্রশ্নঃ

স্ত্রী কোরবানীর টাকা দেয়ার যিম্মাদার কে?

(স্ত্রী নিকট ক্যাশ টাকা নাই,কিন্তু অলংকার আছে)

উত্তরের অপক্ষায় থাকলাম

আর্জেন্ট প্লীজ।

মু.কাওসার

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

কুরবানীর ক্ষেত্রে সাহেবে নিসাব ঐ ব্যক্তিকে বলা হয়, কুরবানীর দিনসমূহে আবশ্যকীয় প্রয়োজন অতিরিক্ত যার কাছে সাড়ে বায়ান্ন তোলা রূপা বা এর সমমূল্য পরিমাণ সম্পদ থাকে, তার উপর কুরবানী করা আবশ্যক। আর উক্ত ব্যক্তিকে কুরবানীর জন্য সাহেবে নিসাব বলবে।

যেমন এক ব্যক্তির কাছে কয়েক ভরি স্বর্ণ আছে, সেই সাথে কিছু টাকাও আছে, যার পুরোটার মূল্য সাড়ে বায়ান্ন তোলা রূপা সমপরিমাণ যা বর্তমান বাজারে প্রায় ৪০ হাজার টাকা। এ সম্পদ যদি প্রয়োজন অতিরিক্ত হয়, তাহলে সে সাহেবে নিসাব, তার উপর কুরবানী করা আবশ্যক।

(وَأَمَّا) (شَرَائِطُ الْوُجُوبِ) : مِنْهَا الْيَسَارُ وَهُوَ مَا يَتَعَلَّقُ بِهِ وُجُوبِ صَدَقَةِ الْفِطْرِ دُونَ مَا يَتَعَلَّقُ بِهِ وُجُوبُ الزَّكَاةِ،………. وَالْمُوسِرُ فِي ظَاهِرِ الرِّوَايَةِ مَنْ لَهُ مِائَتَا دِرْهَمٍ أَوْ عِشْرُونَ دِينَارًا أَوْ شَيْءٌ يَبْلُغُ ذَلِكَ سِوَى مَسْكَنِهِ وَمَتَاعِ مَسْكَنِهِ وَمَرْكُوبِهِ وَخَادِمِهِ فِي حَاجَتِهِ الَّتِي لَا يَسْتَغْنِي عَنْهَا، فَأَمَّا مَا عَدَا ذَلِكَ مِنْ سَائِمَةٍ أَوْ رَقِيقٍ أَوْ خَيْلٍ أَوْ مَتَاعٍ لِتِجَارَةِ أَوْ غَيْرِهَا فَإِنَّهُ يُعْتَدُّ بِهِ مِنْ يَسَارِهِ،(الفتاوى الهندية، كتاب الأضحية، فصل شرائط الوجوب-5/292، رد المحتار، كتاب الاضحية-9/452-453، مجمع الانهر-4/167

ইবাদত সম্পর্কিত বিষয়াদী প্রতিটি ব্যক্তির উপর আলাদাভাবে আবশ্যক হয়। একজনের দায়িত্ব অপরজনের উপর বর্তায় না। শুধুমাত্র নাবালেগ শিশু ব্যতীত। যেহেতু তাদের দায়িত্ব অভিভাবকদের হাতে। তাই তাদের সদকায়ে ফিতির অভিভাবকদের দিতে হয়। এছাড়া বাকি সকল আকেল বালেগ ব্যক্তিদের নিজস্ব ইবাদত নিজেরই আদায় করা আবশ্যক হয়।

সেই হিসেবে কোন মহিলার উপর যদি কুরবানী আবশ্যক হয়, তাহলে টাকা পয়সার ব্যবস্থা করা তারই দায়িত্ব। তবে এক্ষেত্রে স্বামী যেহেতু তার অভিভাবক তাই তার সহযোগিতা নিতে পারে। এবং স্বামী এ দায়িত্ব নেয়াটাও নৈতিক দায়িত্ব।

أَلَّا تَزِرُ وَازِرَةٌ وِزْرَ أُخْرَىٰ [٥٣:٣٨

কিতাবে এই আছে যে,কোন ব্যক্তি কারও বোঝা নিজে বহন করবে না। [সূরা নাজম-৩৮}

فتجب التضحية على حر مسلم مقيم موسر (تنوير الأبصار مع الدر-9/452-453

الأضحية واجبة على كل حر مسلم مقيم موسر فى يوم الأضحى عن نفسه (الهداية-4/443

ثم النفقة إنما تجب على قدر يسار الرجل وعسرته (خانية مع الهندية-1/426، الفتاوى التاتارخانية-5/399)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক ও প্রধান মুফতী – মা’হাদুত তালীম ওয়াল  বুহুসিল ইসলামী ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম আমীনবাজার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া ফারূকিয়া দক্ষিণ বনশ্রী ঢাকা।

Print Friendly, PDF & Email
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

অযু ছাড়া আজান দেবার হুকুম কী?

প্রশ্ন : মুহতারাম , আমাদের মুয়াজ্জিন সাহেব ফজরের সময় ভুলে ওজু ছাড়া আজান দিয়ে ফেলেছেন …