প্রচ্ছদ / আনন্দ/বিনোদন / টাকার বাজিতে ক্রিকেট ইত্যাদি টুর্নামেন্ট খেলার হুকুম কী?

টাকার বাজিতে ক্রিকেট ইত্যাদি টুর্নামেন্ট খেলার হুকুম কী?

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম।

আমি সেজান। ঢাকা থেকে বলছি।

আমি জানি আপনাদের অনেক প্রশ্ন জমা আছে। কিন্তু আমার এই প্রশ্নের উত্তরটি তাড়াতাড়ি দিলে খুবই উপকৃত হবো।

আমাদের এলাকায় বিভিন্ন খেলার টুর্নামেন্ট হয়। যেমন র‌্যাকেট, ক্রিকেট ইত্যাদি।

এইসব টুর্নামেন্টে সবই ১০০/২০০ করে টাকা জমা দেয়। আর বিজয়ী দল ১০০০/= আ আরো বেশি টাকার পুরস্কার পায়। এটা কি হারাম? এটা কি জুয়া?

জুয়া হওয়ার শর্তসমূহ কী কী?

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

প্রত্যেক ঐ মুআমালাকে জুয়া বলা হয়, যা লাভ ও লোকশানের মাঝে ঝুলন্ত ও সন্দেহযুক্ত থাকে।  [জাওয়াহিরুল ফিক্বহ-২/৩৩৬]

যেমনটি উপরে উল্লেখিত টুর্নামেন্টগুলোতে বিদ্যমান। টাকা দিচ্ছে সবাই সমান সমান। কে সব টাকা পাবে, আর কে পাবে না? তা নিশ্চিত নয়। একজন অতিরিক্ত টাকার মালিক হচ্ছে। আরেকজন তার মূলধনই হারিয়ে ফেলছে।

যা পরিস্কার জুয়ার অন্তর্ভূক্ত। তাই এভাবে টুর্নামেন্ট খেলা বৈধ হবে না।

তবে যদি আর কোন শরীয়ত বিরোধী কাজ না হয়, তাহলে বিজয়ীদের যদি তৃতীয় কোন পক্ষ পুরস্কার প্রদান করে, তাহলে তা বৈধ হবে। তখন আর সেটি জুয়ার অন্তর্ভূক্ত হবে না। বরং তা পুরস্কার বা হাদিয়া হিসেবে গণ্য হবে।

যেমন খেলল দুই দল। পুরস্কার দিল এলাকার কোন গণ্যমান্য ব্যক্তি। তাহলে আর এটি জুয়া থাকবে না।

يَسْأَلُونَكَ عَنِ الْخَمْرِ وَالْمَيْسِرِ ۖ قُلْ فِيهِمَا إِثْمٌ كَبِيرٌ وَمَنَافِعُ لِلنَّاسِ وَإِثْمُهُمَا أَكْبَرُ مِن نَّفْعِهِمَا  [٢:٢١٩]

তারা তোমাকে মদ ও জুয়া সম্পর্কে জিজ্ঞেস করে। বলে দাও, এতদুভয়ের মধ্যে রয়েছে মহাপাপ। আর মানুষের জন্যে উপকারিতাও রয়েছে,তবে এগুলোর পাপ উপকারিতা অপেক্ষা অনেক বড়। [সূরা বাকারা-২১৯]

يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا إِنَّمَا الْخَمْرُ وَالْمَيْسِرُ وَالْأَنصَابُ وَالْأَزْلَامُ رِجْسٌ مِّنْ عَمَلِ الشَّيْطَانِ فَاجْتَنِبُوهُ لَعَلَّكُمْ تُفْلِحُونَ [٥:٩٠]

إِنَّمَا يُرِيدُ الشَّيْطَانُ أَن يُوقِعَ بَيْنَكُمُ الْعَدَاوَةَ وَالْبَغْضَاءَ فِي الْخَمْرِ وَالْمَيْسِرِ وَيَصُدَّكُمْ عَن ذِكْرِ اللَّهِ وَعَنِ الصَّلَاةِ ۖ فَهَلْ أَنتُم مُّنتَهُونَ [٥:٩١]

হে মুমিনগণ,এই যে মদ, জুয়া, প্রতিমা এবং ভাগ্য-নির্ধারক শরসমূহ এসব শয়তানের অপবিত্র কার্য বৈ তো নয়। অতএব, এগুলো থেকে বেঁচে থাক-যাতে তোমরা কল্যাণপ্রাপ্ত হও।

শয়তান তো চায়, মদ ও জুয়ার মাধ্যমে তোমাদের পরস্পরের মাঝে শুত্রুতা ও বিদ্বেষ সঞ্চারিত করে দিতে এবং আল্লাহর স্মরণ ও নামায থেকে তোমাদেরকে বিরত রাখতে। অতএব, তোমরা এখন ও কি নিবৃত্ত হবে? [সূরা মায়িদা-৯০-৯১]

كُلُّ شَيْءٍ مِنَ الْقِمَارِ فَهُوَ مِنَ الْمَيْسِرِ حَتَّى لَعِبِ الصِّبْيَانِ بِالْجَوْزِ.

প্রত্যেক বাজি মাইছির তথা জুয়ার অন্তর্ভূক্ত এমনকি শিশুদের হারজিতের খেলাও জুয়ার অন্তর্ভূক্ত। [তাফসীরে ইবনে কাসীর-২/১১৬, সূরা মায়িদা, আয়াত নং-৯০-৯৩]

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com 

আরও জানুন

পেশাবের দশ পনের মিনিট পর পেশাবের ফোটা আসার সন্দেহ হলে করণীয় কী?

প্রশ্ন From: আব্দুলাহ আনাস বিষয়ঃ পবিত্রতা প্রশ্নঃ আসসালামু আলাইকুম। কেমন আছেন হুজুর? এক ব্যক্তি বড় দীর্ঘ দিন …

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস