প্রচ্ছদ / কুরবানী/জবেহ/আকীকা / সাহেবে নিসাব ব্যক্তি হজ্বে তামাত্তু করা অবস্থায় মক্কায় পনের দিন থাকলে তার উপর কয়টি কুরবানী আবশ্যক?

সাহেবে নিসাব ব্যক্তি হজ্বে তামাত্তু করা অবস্থায় মক্কায় পনের দিন থাকলে তার উপর কয়টি কুরবানী আবশ্যক?

প্রশ্ন

হজ্বে তামাত্তুকারীর উপর কুরবানী আবশ্যক। এখন কুরবানীর দিন সে কি এক কুরবানী করবে? নাকি দুই কুরবানী?

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

হজ্বে তামাত্তুকারীর উপর দমে শোকর আবশ্যক হয়। যেটি কুরবানীর দিনসমূহে আদায় করতে হয়। সেই সাথে তার উপর যদি নিসাব পরিমাণ সম্পদ থাকে, আর তিনি মুকীম হন, তাহলে তার উপর ঈদুল আযহার কুরবানীও আবশ্যক হবে।

তাই তার উপর দু’টি কুরবানী করা আবশ্যক হবে।

স্বাভাবিকভাবে বাংলাদেশ থেকে যারা গমণ করে থাকেন, তারা হজ্বে তামাত্তুরই নিয়ত করে থাকেন, পনের দিনের বেশি অবশ্যই মক্কায় বসবাস করে থাকেন, অর্থাৎ তারা মুকীম হয়ে যান। মাসআলাটি না জানার কারণে, অনেক নিসাবের মালিকও একটি কুরবানীই করে থাকেন। অথচ তার উপর দু’টি কুরবানী করা আবশ্যক। একটি হজ্বের তামাত্তু এর দমে শোকর। আরেকটি হল, কুরবানী।

وَيَجِبُ الدَّمُ عَلَى الْمُتَمَتِّعِ شُكْرًا لِمَا أَنْعَمَ اللَّهُ تَعَالَى عَلَيْهِ بِتَيْسِيرِ الْجَمْعِ بَيْنَ الْعِبَادَتَيْنِ كَذَا فِي فَتَاوَى قَاضِي خَانْ. (الفتاوى الهندية، كتاب المناسك، الباب السابع فى القران والتمتع-1/239، قاضيخان-1/304)

فى الدر المختار: (عَلَى حُرٍّ مُسْلِمٍ مُقِيمٍ) بِمِصْرٍ أَوْ قَرْيَةٍ أَوْ بَادِيَةٍ عَيْنِيٌّ، فَلَا تَجِبُ عَلَى حَاجٍّ مُسَافِرٍ؛ فَأَمَّا أَهْلُ مَكَّةَ فَتَلْزَمُهُمْ وَإِنْ حَجُّوا،

وقال ابن عابدين الشامى: (قَوْلُهُ فَتَلْزَمُهُمْ وَإِنْ حَجُّوا) اقْتَصَرَ عَلَيْهِ فِي الْبَدَائِعِ وَذَلِكَ لِأَنَّهُمْ مُقِيمُونَ (رد المحتار، كتاب الأضحية-6/315)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

বিধর্মীদের সালামের জবাব কিভাবে দিবে?

প্রশ্ন From: মামুন কবীর বিষয়ঃ হিন্দু ব্যক্তি কতৃক সালাম দিলে এর জবাব দেয়া যাবে কি? …

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস