প্রচ্ছদ / কুরবানী/জবেহ/আকীকা / কয়েকজন মিলে টাকা তুলে এক নামে কুরবানী দিলে কুরবানী হবে?

কয়েকজন মিলে টাকা তুলে এক নামে কুরবানী দিলে কুরবানী হবে?

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম।আমার নাম আব্দুল্লাহ আল মাসউদ। বাড়ি বগুড়া। হুজুর আমার প্রশ্ন হলো আমাদের উপর কুরবানী ওয়াজিব হয়নি। কিন্তু আমার বাপ চাচারা  মিলে ২০০০/৫০০০টাকা এক জায়গায় করে দাদার নামে সাত ভাগের একটি ভাগ দিতে পারবো কি না!?

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

না, এভাবে কুরবানী করলে কুরবানী হবে না। কারণ, এখানে এক ভাগে শরীক হচ্ছে একাধিক ব্যক্তি। এক ভাগে একাধিক ব্যক্তি শরীক হলে উক্ত কুরবানী বিশুদ্ধ হয় না।

এটা জায়েজ হবার একটি সূরত এই হতে পারে যে, একজন ব্যক্তিকে কুরবানী পরিমাণ টাকার মালিক বানিয়ে দেয়া হবে। তিনি তার নিজের পক্ষ থেকে উক্ত কুরবানীটি করবেন। তাহলে কুরবানী বিশুদ্ধ হবে।


عَنْ جَابِرٍ، قَالَ: خَرَجْنَا مَعَ رَسُولِ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ مُهِلِّينَ بِالْحَجِّ: «فَأَمَرَنَا رَسُولُ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَنْ نَشْتَرِكَ فِي الْإِبِلِ وَالْبَقَرِ، كُلُّ سَبْعَةٍ مِنَّا فِي بَدَنَةٍ

জাবির রাঃ থেকে বর্ণিত। তিনি বলেনম, আমরা রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের সাথে হজ্জের ইহরাম বেঁধে রওনা হলাম। অতঃপর তিনি উট ও গরুতে আমাদের মধ্যে সাতজন করে শরীক হবার (ও কুরবানী করার) নির্দেশ দিলেন। [সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-১৩১৮, ৩০৪৯]

ولو لأحدهم أقل من سبع لا يجز عن أحد (الدر المختار مع رد المحتار-9/457

واذا كان الشركاء فى البدنة أو البقرة ثمانية لا يجزئهم، لأن نصيب أحدهم أقل من السبع (الفتاوى التاتارخانية، كتاب الأضحية، الفصل الثامن فيما يتعلق بالشركة فى الضحايحا-17/453، رقم-2780

الشاة لا تجزئ إلا عن واحد، وإن كانت عظيمة، والبقر والبعير كل واحد منهما يجزئ عن سبعة، (الفتاوى التاتارخانية، كتاب الأضحية، الفصل الثامن فيما يتعلق بالشركة فى الضحايا-17/450، رقم-27792

ولا يجوز بعير واحد ولا بقرة واحدة عن أكثر من سبعة، ويجوز ذلك عن سبعة أو أقل من ذلك، وهذا قول عامة العلماء… والصحيح قول العامة لما روى عن رسول الله صلى الله عليه وسلم: البدنة تجزئ عن سبعة والبقرة تجزئ عن سبعة…. ولأن القياس يأبى جوازها عن أكثر من واحد لما ذكرنا أن القربة فى الذبح، وأنه فعل واحد لا يتجزأ، لكنا تركنا القياس بالخبر المتقتضى للجواز عن سبعة مطلقا، فيعمل بالقياس فيما وراءه، لأن البقرة بمنزلة سبع شياه (بدائع الصنائع-4\206-207

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

পরিচালক: শুকুন্দী ঝালখালী তা’লীমুস সুন্নাহ দারুল উলুম মাদরাসা, মনোহরদী নরসিংদী।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

ইতিকাফের কাযা করার সময় কি রোযা রাখা শর্ত?

প্রশ্ন প্রশ্নকারীর নাম: লুৎফর রহমান ঠিকানা: খৈশাইর জেলা/শহর: নারায়ণগঞ্জ দেশ: বাংলাদেশ প্রশ্নের বিষয়: ইতিকাফ বিষয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস