প্রচ্ছদ / চিকিৎসা/তদবীর / হেয়ার ট্রান্সপ্লান্ট বা চুল প্রতিস্থাপন করার শরয়ী অনুমোদন আছে কি?

হেয়ার ট্রান্সপ্লান্ট বা চুল প্রতিস্থাপন করার শরয়ী অনুমোদন আছে কি?

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম।

আমি একজন প্রবাসী বয়স ৩০ বিবাহ করি নাই। আমার মাথার চুল উঠে গেছে। আমি চুলের চিকিৎসা করানোর জন্য ডাক্তারের কাছে গেলে ডাক্তার আমাকে চুল প্রতিস্থাপন বা হেয়ার ট্রান্সপ্লান্ট করানোর জন্য বলতেছে।

ইসলামের দৃষ্টি থেকে হেয়ার ট্রান্সপ্লান্ট করা যায়েজ হবে কি?

দয়া করে উত্তরটি জানাবেন।

যাযাক আল্লাহ্ খায়ের।

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

যদি নিজের মাথার চুল প্রতিস্থাপন বা ট্রান্সপ্লান্ট করা হয়, তাহলে জায়েজ হবে। তবে অন্য মানুষের চুল প্রতিস্থাপন করলে তা জায়েজ হবে না। [কিতাবুন নাওয়াজেল-১৬/২৩১-২৩২]

ووجه الدلالة: أن الملك مسح على هذا الأقرع، فذهب عنه قرعه، وأعطى شعرا حسنا، فدل ذلك على أن السعى فى إزالة هذا العيب واستنبات الشعر الحسن لا بأس به، إذ لو كان محرما لما فعله الملك، إن زرع الشعر ليس من باب تغيير خلق الله أو طلب التجمل والحسن زيادة على ما خلق الله، ولكنه من باب رد ما خلق الله عز وجل وإزالة العيب، وما كان كذلك فإن قواعد الشرعية لا تمنع منه (احكام زراعة الشعر وإزالته، الدكتوي سعد بن تركى الخثلان، دار اطلس الخضراء، المملكة العربية السعودية، الرياض-20-21)

وأما قطع الإصبج الزائدة، ونوهه، فإنه ليس تغيرا لخلق الله وأنه من قبيل إزالة عيب ومرض فأجازه أكثر العلماء (تكملة فتح الملهم-4/195)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

পরিচালক: শুকুন্দী ঝালখালী তা’লীমুস সুন্নাহ দারুল উলুম মাদরাসা, মনোহরদী নরসিংদী।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

ঈদের খুতবায় ইমাম ও মুসল্লিদের জন্য তাকবীরে তাশরীক পড়ার হুকুম কী?

প্রশ্ন জনাব মুফতি সাহেব আমাদের এলাকায় ঈদের খুতবা হয় এমন। ইমাম সাহেব খুতবার শুরুতে মাঝে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস