প্রচ্ছদ / অপরাধ ও গোনাহ / বজ্রপাতে মৃত্যুবরণকারী ব্যক্তি কি আল্লাহর গজবপ্রাপ্ত?

বজ্রপাতে মৃত্যুবরণকারী ব্যক্তি কি আল্লাহর গজবপ্রাপ্ত?

প্রশ্ন

From: সাদী  ‍মাহমুদ
বিষয়ঃ মৃত্যু

প্রশ্নঃ
হযরত,
কোন মানুষ যদি বজ্রপাতে মারা যায়, তাহলে কি এটা বুঝতে হবে যে, সে আল্লাহর গজবপ্রাপ্ত?

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

যদি বজ্রপাতে মৃত্যুবরণকারী ব্যক্তি মুসলমান হয়ে থাকে, আর বজ্রপাতের কারণে পুড়ে গিয়ে মৃত্যুবরণ করে থাকে, তাহলে হুকুমের দিক থেকে  তথা সওয়াবের দিক থেকে উক্ত ব্যক্তি শহীদের মর্যাদা লাভ করবে।

আর যদি না পুড়ে শুধু বজ্রপাতের আওয়াজের কারণে মৃত্যুবরণ করে থাকে, তাহলে তাকে শহীদ বলা যাবে না। এটাকে আকস্মিক মৃত্যু ধরা হবে। যা মুমিনের জন্য আরামদায়ক ও পাপীদের জন্য গজব স্বরূপ হয়ে থাকে।

 
أن جابر بن عتيك أخبره :أن رسول الله صلى الله عليه و سلم قال الشهداء سبعة سوى القتل في سبيل الله المطعون شهيد والغرق شهيد وصاحب ذات الجنب شهيد والمبطون شهيد والحرق شهيد والذي يموت تحت الهدم شهيد والمرأة تموت بجمع شهيد

হযরত জাবের বিন আতীক রাঃ থেকে বর্ণিত। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ আল্লাহ্‌র রাস্তায় শহীদ হওয়া ছাড়াও আরো সাত ধরনের শহীদ আছে যথাঃ (১) মহামরীতে মৃত্যু বরণকারীও শহীদ; (২) পানিতে ডুবে মৃত্যু বরণকারীও শহীদ; (৩) পক্ষাঘাতে মৃত্যু বরণকারীও শহীদ; (৪) পেটের রোগের কারণে (কলেরা, ডায়রিয়া ইত্যাদিতে) মৃত্যু বরণকারীও শহীদ; (৫) অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যু বরণকারীও শহীদ; (৬) কোন কিছুর নীচে চাপা পড়ে মৃত্যু বরণকারীও শহীদ এবং (৭) যে মহিলা গর্ভাবস্থায় মারা যাবে, সেও শহীদ। {মুয়াত্তা মালিক, হাদিস নং-৫৫৪, ৮০২, সুনানে আবূ দাউদ, হাদীস নং-৩১১১, ইফাবা-৩০৯৭, আল মু’জামুল কাবীর, হাদিস নং-১৭৮০, সহীহ কুনুজু সুন্নাতিন নাবাবিয়্যাহ, হাদিস নং-২৩}

عن عبد الله بن عبيد بن عمير قال: سألت عائشة عن ‌موت ‌الفجاة أيكره؟ قالت: لأي شيء يكره؟ سَأَلْتُ رَسُولَ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ عَنْ ‌مَوْتِ ‌الْفَجْأَةِ؟ فَقَالَ: ” رَاحَةٌ لِلْمُؤْمِنِ، وَأَخْذَةُ أَسَفٍ لِلْفَاجِرِ

হযরত আব্দুল্লাহ বিন উবায়েদ বিন উমায়ের বলেন, আমি হযরত আয়শা রাঃ কে ‘আকস্মিক মৃত্যু’ বিষয়ে প্রশ্ন করলাম যে, এটা কি অপছন্দনীয়? তিনি জবাবে বললেন, ‘অপছন্দনীয় হবে কেন?’ আমি রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে এ বিষয়ে প্রশ্ন করেছিলাম, তখন তিনি জবাবে বলেন যে, এটা মুমিনের জন্য স্বস্তিদায়ক এবং গোনাহগারের জন্য গযবের পাকরাও স্বরূপ। [শুয়াবুল ঈমান লিলবায়হাকী, হাদীস নং-৯৭৪০, মাযমাউয যাওয়ায়েদ, হাদীস নং-৩৮৮৩]

মুমিনদের জন্য স্বস্তি এ  হিসেবে যে, দীর্ঘ কষ্ট ছাড়াই দ্রুত তার মৃত্যু হয়ে গেল। আর নাফরমানদের জন্য গজবের পাকরাও এভাবে যে, সে তওবা করার সুযোগ পেল না। তওবা বঞ্চিত হওয়াই তার গজব হিসেবে পাকরাও।

সুতরাং আমভাবে বজ্রাঘাতে মৃত্যুবরণ করাকে গজব বলা যাবে না। বরং ব্যক্তির আমল  হিসেবে তা গজব ও রহমাত  হিসেবে সাব্যস্ত হবে।

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

পরিচালক: শুকুন্দী ঝালখালী তা’লীমুস সুন্নাহ দারুল উলুম মাদরাসা, মনোহরদী নরসিংদী।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

মুসলমানের জন্য কাফেরের সাথে বিবাহ করার হুকুম কী?

প্রশ্ন From: সারওয়ার বিষয়ঃ অমুসলিম বা কাফের এর সাথে সম্পর্ক করা যাবে কি না?? প্রশ্নঃ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস