প্রচ্ছদ / অপরাধ ও গোনাহ / মসজিদে দেয়া মিষ্টি দাঁড়িয়ে খাওয়ার গোনাহ কার হবে?

মসজিদে দেয়া মিষ্টি দাঁড়িয়ে খাওয়ার গোনাহ কার হবে?

প্রশ্ন

From: আনোয়ারুল হক
বিষয়ঃ দাঁড়াইয়া খাবার  গ্রহণের বিধান প্রসজ্ঞে।

আসসালামু আলাইকুম।

মাঝেমধ্যেই লক্ষ্য করা যায় যে,মসজিদে বিভিন্ন উপলক্ষে বিশেষ করে দুয়ার আয়োজন এর সময় দুয়া শেষে মিষ্টি জাতীয় খাবার আয়োজন করা হয়। আয়োজক বা মুয়াজ্জিন বা মসজিদের ইমাম দুয়া শেষে মিষ্টি বিতরণের ঘোষণা দেয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় যে, সেই খাবারগুলো মসজিদের দরজায় দাঁড়িয়ে বিতরণ করা হয়। আর বেশিরভাগ লোকই সেই খাবার দাঁড়িয়ে খায়।

এই দাঁড়িয়ে খাবার বিষয়টি বহুত প্রচলিত ও বিষয়টি মসজিদের ইমাম, মুয়াজ্জিন বা আয়োজক সকলেরই জানা।

এরূপভাবে দাঁড়িয়ে খাবার গ্রহণ করলে কি কোন পাপ হবে????যদি পাপ হয়, তবে কার পাপ হবে-আয়োজক???/খাবার গ্রহিতা???/মুয়াজ্জিন???/ইমাম??? নাকি সবার???

আর যদি পাপ না হয়, তবে কি সব সময়ের জন্য খাবার গ্রহণে এই হুকুম??

আর বিষয় যদি এরুপ আআ হয় তবে আশা করি খাবার গ্রহণের বিধান জানাবেন।

(আল্লাহ্‌  সকল নেক হায়াত দান করুন। শারিরীক-মানসিক ভাবে সুস্থতা দান করুন,হালাল রিজিকের ব্যবস্থা করে দিন।)

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

দাঁড়িয়ে খাবার গ্রহণ করা স্বাভাবিক অবস্থায় মাকরূহে তাহরীমি।তবে যদি বসার কোন সুযোগ না থাকে, তাহলে  জায়েজ আছে।

যেহেতু মসজিদে দেয়া মিষ্টি জাতীয় খাবার বাসায় গিয়ে বা কোথাও বসে খাবার সুযোগ রয়েছে। তাই যারা দাড়িয়ে খাবার গ্রহণ করবে, তাদের মাকরূহে তাহরীমি কাজ করার গোনাহ হবে।

এটা বিতরণকারী বা কর্তৃপক্ষের কোন গোনাহ নেই। কারণ, তারাতো খাবার গ্রহিতাদের দাড়িয়ে খেতে বলছে না। এতে বিতরণকারীদের কোন গোনাহ হবে না।

বরং যে দাড়িয়ে খাবার খাবে এটার যিম্মাদার কেবল তারাই।

عَنْ قَتَادَةَ، عَنْ أَنَسٍ، أَنَّ النَّبِيَّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ نَهَى أَنْ يَشْرَبَ الرَّجُلُ قَائِمًا فَقِيلَ: الأَكْلُ؟ قَالَ: ذَاكَ أَشَدُّ

আনাস (রাঃ) হতে বর্ণিত আছে, যে কাউকে দাঁড়িয়ে থাকাবস্থায় পান করতে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম নিষেধ করেছেন। দাঁড়িয়ে খাওয়া-দাওয়া করার ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেনঃ এটাতো অত্যধিক খারাপ। [জামে তিরমিজী, হাদীস নং-১৮৭৯, সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-২০২৪]

أَلَّا تَزِرُ وَازِرَةٌ وِزْرَ أُخْرَىٰ [٥٣:٣٨]

কিতাবে এই আছে যে, কোন ব্যক্তি কারও গোনাহ নিজে বহন করবে না। [সূরা নাজম-৩৮]

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

ইকামতের বাক্য দুইবার করে বলা সঠিক নয়?

প্রশ্ন From: মোঃ সোহাগ হোসেন বিষয়ঃ ইকামত প্রশ্নঃ আসসালামু আলাইকুম, আমাদের প্রায় প্রতি মসজিদেই ইকামত …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস