প্রচ্ছদ / প্রশ্নোত্তর / দুধ দেয়া গরু এবং মূল্য বাড়লে বিক্রি করার নিয়তে লালন করা বাছুরের মূল্যের উপর যাকাত আসবে?

দুধ দেয়া গরু এবং মূল্য বাড়লে বিক্রি করার নিয়তে লালন করা বাছুরের মূল্যের উপর যাকাত আসবে?

প্রশ্ন

প্রশ্নকারীর নাম: ইলিয়াস হোসাইন

ঠিকানা: গুরুদাসপুর,

জেলা/শহর: নাটোর

দেশ: বাংলাদেশ

প্রশ্নের বিষয়: যাকাত

বিস্তারিত:
আমার নেসাব পরিমাণ মাল আছে, দুধ দেয় এমন একটি গাভি আছে,আর গাভিটির একটি পুরুষ বাছুর আছে,বড় হলে বিক্রি করে দেওয়ার নিয়তে পালতেছি,আর ছয়মাস প্রতিপালন করে বিক্রি করার নিয়তে আরো একটি গরু কিনেছি।
এখন প্রশ্ন হলো,এই তিনটি পশুর মধ্যে কোন কোন পশুর মূল্য যাকাতের হিসাবের সাথে সংযুক্ত করতে হবে?

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

যদি গাভিটি দুধ পানের জন্য ক্রয় ও লালন করা হয়ে থাকে, তাহলে দুগ্ধদায়িনী উক্ত গাভিটি ছাড়া বাকি দু’টি বাছুর ও গরুর বিক্রয়মূল্য যাকাতের নেসাবের সাথে সংযুক্ত হয়ে যাকাত প্রদান করতে হবে।

আর যদি দুগ্ধদায়িনী উক্ত গাভিটি থেকে দুধ পানের সাথে সেটিও দাম বাড়লে বিক্রি করার নিয়তে লালন করে থাকে, তাহলে সেটির মূল্যের উপরও যাকাত আবশ্যক হবে।


وآلات الصناع الذين يعملون بها، وظروف الأمتعة لا تجب فيها الزكاة، ولو أن نخاسا يشترى الدواب وبيعها فاشترى جلالا ومقاود وبرادغ، فإن كان يبيع هذه الأشياء مع الدواب ففيها الزكاة وإن كانت لحفظ الدواب، وفى الخانية: ولا يدفع ذلك مع الدابة فلا تجب فيه الزكاة (تاتارخانية-3\169)

لو اشترى قدورا من صفر يمسكها ويواجرها لا تجب فيها الزكاة، كما لا تجب فى بيوت الغلة (تاتارخانية-1\251)

اذا اشترى جوالق بعشرة آلاف درهم ليواجرها من الناس فحال عليها الحول، فلا زكاة فيها، لأنه اشتراها للغلة لا للتجارة (تاتارخانية-4\169، رقم-4016-4017)

عَنِ ابْنِ عُمَرَ قَالَ: «كَانَ فِيمَا كَانَ مِنْ مَالٍ فِي رَقِيقٍ، أَوْ فِي دَوَابَّ، أَوْ بَزٍّ يُدَارُ لِتِجَارَةِ الزَّكَاةِ كُلَّ عَامٍ» (مصنف عبد الرزاق-4\97، رقم-7103)

وإن كانت للتجارة، فحكمها حكم العروض، يعتبر أن تبلغ قيمتها نصابا، سواء كانت سائمة أو علوفة (الفتاوى الهندية-1\178، تبيين الحقائق-2\77، البحر الرائق-2\938)

وينظر فى السائمة إلى كمال النصاب……. وينظر إلى قيمتها إن اراد بها التجارة، فإن كانت أقل من مائتى درهم، لم تجب الزكاة، وإن كان العدد كاملا الخ (المبسوط للسرخسى-1\238)

عن سمرة بن جندب، قال أما بعد: فإن رسول الله صلى الله عليه وسلم كان يأمرنا أن نخرج الصدقة من الذى نعد للبيع (السنن الكبرى للبيهقى، كتاب الزكاة، باب زكاة التجارة-6\62، رقم-769)

وما اشتراه لها اى للتجارة كان لها لمقارنة النية لعقد التجارة (رد المحتار، كتاب الزكاة، قبيل باب السوائم-3\193)

والأصل أنه ما عدا الحجرين والسوائم إنما يزكى بنية التجارة (رد المحتار-3\194)

الزكاة واجبة فى عروض التجارة كائنة ما كانت إذا بلغت قيمتها نصابا من الورق والذهب (هندية-1\179، جديد-1\241)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

পরিচালক: শুকুন্দী ঝালখালী তা’লীমুস সুন্নাহ দারুল উলুম মাদরাসা, মনোহরদী, নরসিংদী।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

গাইরুল্লাহকে সেজদা করা ও ফাতিমা রাঃ এর মূর্তি বানিয়ে সেজদা দেয়ার হুকুম কী?

প্রশ্ন আস্সালামুআলাইকুম হযরত। কেমন আছেন? দ্বীনের বিভিন্ন সমস্যায় সর্বদাই আপনার পরিচালিত ওয়েবসাইট হতে সাহায্য নেই। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস