প্রচ্ছদ / আদব ও আখলাক / জাতীয় পতাকাকে সালাম করার হুকুম কী?

জাতীয় পতাকাকে সালাম করার হুকুম কী?

প্রশ্ন

মুফতী সাহেবের কাছে আমার প্রশ্ন হল, স্বাধীনতা দিবস এবং বিজয় দিবসে আমাদের দেশে পতাকাকে সালাম করা হয়।

কোন মুসলমানের জন্য এভাবে পতাকাকে সালাম করা জায়েজ হবে? দয়া করে জানাবেন।

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

কোন রাষ্ট্রের পতাকা, সে দেশের সম্মান, ইজ্জত ও মর্যাদার নিদর্শন।

আমাদের বাংলাদেশেরও জাতীয় পতাকা আমাদের রাষ্ট্রের পরিচয় ও মর্যাদার নিদর্শন।

স্বাধীনতা দিবস ও বিজয় দিবসে এর দিকে মাথা উঁচু করে সালাম দেয়া হয়। এটা কেবলি একটি সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় প্রথা।

এতে ইবাদতের কোন উদ্দেশ্য থাকে না। কোন মুসলমান পতাকাকে এ নিয়তেও সালাম করে না যে, এটি ইবাদতের উপযুক্ত। কেবলি রাষ্ট্রীয় প্রতীক হওয়ায় সম্মান জানায় মাত্র।

এ কারণে এটাকে নাজায়েজ বলার সুযোগ নেই। তবে এমন করা থেকেও বেঁচে থাকা উত্তম।

তবে ফেতনার শংকা হলে সুযোগ আছে।

[ফাতাওয়া রহিমীয়া-১০/১৮০, কেফায়াতুল মুফতী-৯/৩৭৮]

তবে অস্বাভাবিক সম্মান করা। যেমন পতাকার সামনে দুইহাত জড়ো করে সম্মান করা বা মাথা ঝুঁকানো জায়েজ নয়। [কিতাবুল ফাতাওয়া-১/২৮২]

الأصل أن تزول الأحكام بزوال عللها (القواعد الفقهية لعلى أحمد الندوى-170، أصول الشاشى-46-47)

الأمور بمقاصدها (الأشباه والنظائر-1/113)

وإن قلنا النهي عنها (أي المياثر الأرجوان) من أجل التشبه بالأعاجم فهو لمصلحة دينية ، لكن كان ذلك شعارهم حينئذ وهم كفار ، ثم لما لم يصر الآن يختص بشعارهم زال ذلك المعنى ، فتزول الكراهة (فتح البارى لابن حجر-1/307) 

الضابط فيها أن يقوم الإنسان بشيء يختص به الكفار بحيث يظن من رآه أنه من الكفار.
أما ما انتشر بين المسلمين ولا يتميز به الكفار فإنه لا يكون تشبهاً؛ وإن كان أصله مأخوذا من الكفار (موسوعة الفتاوى،
رقم الفتوى:21112)

والله اعلم بالصواب

উত্তর লিখনে

লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল- ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

তালাকের সন্দেহের দ্বারা কি কোন তালাক পতিত হয়?

প্রশ্ন ‘তালাক’ শব্দটি বলেছে কি না- ভাবনার সময় ‘তালাক দিলাম’  উচ্চারণে কি তালাক হয়? আসসালামু …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস