প্রচ্ছদ / অপরাধ ও গোনাহ / মেয়েদের জন্য মাথার উপর চুল ঝুঁটি করার হুকুম কী?

মেয়েদের জন্য মাথার উপর চুল ঝুঁটি করার হুকুম কী?

প্রশ্ন

From: মুহাঃ মাসুম বিল্লাহ্
বিষয়ঃ নারীদের চুল বাধার নিয়ম

প্রশ্নঃ
আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহ।

প্রশ্নঃ নারীদের মাথার চুল বাধার বিধান কি ?

আমাদের এলাকায় নারীরা তাদের মাথার চুল,মাথার উপরের দিকে উঁচু করে বাঁধে এটা কি ঠিক ?

এ বিষয়ে বিষেশ কোন বিধান থাকলে দয়াকরে জানাবেন।

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبراكته

بسم الله الرحمن الرحيم

না, এটা ঠিক নয়। গোনাহের কাজ। এভাবে চুল বাঁধা নিষেধ।  মাথার উপর ঝুঁটি করে চুল জড়ো করা জাহান্নামী নারীদের আলামত। তাই এভাবে চুল বাঁধা পরিহার করা আবশ্যক।

তবে পিঠের দিকে ঢালু অবস্থায় চুল ঝুঁটি করা বা বাঁধা জায়েজ আছে। কোন সমস্যা নেই।

عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ، قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم ‏ “‏ صِنْفَانِ مِنْ أَهْلِ النَّارِ لَمْ أَرَهُمَا قَوْمٌ مَعَهُمْ سِيَاطٌ كَأَذْنَابِ الْبَقَرِ يَضْرِبُونَ بِهَا النَّاسَ وَنِسَاءٌ كَاسِيَاتٌ عَارِيَاتٌ مُمِيلاَتٌ مَائِلاَتٌ رُءُوسُهُنَّ كَأَسْنِمَةِ الْبُخْتِ الْمَائِلَةِ لاَ يَدْخُلْنَ الْجَنَّةَ وَلاَ يَجِدْنَ رِيحَهَا وَإِنَّ رِيحَهَا لَتُوجَدُ مِنْ مَسِيرَةِ كَذَا وَكَذَا

আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, দুই প্রকার মানুষ জাহান্নামী হবে। আমি তাদেরকে দেখিনি। এক প্রকার ঐ সমস্ত মানুষ যাদের নিকট গরুর লেজের ন্যায় চাবুক থাকবে। তারা এর দ্বারা লোকদের প্রহার করবে। আর দ্বিতীয় প্রকার ঐ সমস্ত মহিলা, যারা বস্ত্র পরিহিতা কিন্তু উলঙ্গ, আকর্ষণকারিণী ও আকৃষ্টা। যাদের মাথার খোপা বুখতী উটের উঁচু কুঁজোর ন্যায়। তারা জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবে না এবং জান্নাতের সুঘ্রাণও পাবে না। অথচ জান্নাতের সুঘ্রাণ এতো-এতো দূরত্বে থেকে পাওয়া যাবে। [সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-৬৯৩০, ৭১৯৪]

وأما رؤوسهن كأسنمة البخت فمعناه يعظمن رؤوسهن بِالْخُمُرِ وَالْعَمَائِمِ وَغَيْرِهَا مِمَّا يُلَفُّ عَلَى الرَّأْسِ حَتَّى تُشْبِهُ أَسْنِمَةَ الْإِبِلِ الْبُخْتِ هَذَا هُوَ الْمَشْهُورُ فِي تَفْسِيرِهِ قَالَ الْمَازِرِيُّ وَيَجُوزُ أَنْ يَكُونَ مَعْنَاهُ يَطْمَحْنَ إِلَى الرِّجَالِ وَلَا يَغْضُضْنَ عنهم ولا ينكسن رؤوسهن وَاخْتَارَ الْقَاضِي أَنَّ الْمَائِلَاتِ تُمَشِّطْنَ الْمِشْطَةَ الْمَيْلَاءِ قَالَ وَهِيَ ضَفْرُ الْغَدَائِرِ وَشَدُّهَا إِلَى فَوْقُ وَجَمْعُهَا فِي وَسَطِ الرَّأْسِ فَتَصِيرُ كَأَسْنِمَةِ الْبُخْتِ قَالَ وَهَذَا يَدُلُّ عَلَى أَنَّ الْمُرَادَ بِالتَّشْبِيهِ بِأَسْنِمَةِ الْبُخْتِ إِنَّمَا هُوَ لِارْتِفَاعِ الْغَدَائِرِ فَوْقَ رؤوسهن وَجَمْعُ عَقَائِصِهَا هُنَاكَ وَتُكْثِرُهَا بِمَا يُضَفِّرْنَهُ حَتَّى تَمِيلَ إِلَى نَاحِيَةٍ مِنْ جَوَانِبِ الرَّأْسِ كَمَا يميل السنام قال بن دُرَيْدٍ يُقَالُ نَاقَةٌ مَيْلَاءُ إِذَا كَانَ سَنَامُهَا يَمِيلُ إِلَى أَحَدِ شِقَّيْهَا وَاللَّهُ أَعْلَمُ قَوْلُهُ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ.” (شرح النووى على مسلم، کتاب اللباس و زینہ، باب النساء الكاسيات العاريات المائلات المميلات،ج نمبر ۱۷ ص نمبر ۱۹۱،دار احیاء التراث)

ﻭﻳﻜﺮﻩ ﻋﻘﺺ ﺷﻌﺮﻩ ﻭﻫﻮ ﺟﻤﻊ اﻟﺸﻌﺮ ﻋﻠﻰ اﻟﺮﺃﺱ ﻭﺷﺪﻩ ﺑﺸﻲء ﺣﺘﻰ ﻻ ﻳﻨﺤﻞ ﻛﺬا ﻓﻲ اﻟﺘﺒﻴﻴﻦ ﻭاﺧﺘﻠﻒ اﻟﻔﻘﻬﺎء ﻓﻴﻪ ﻋﻠﻰ ﺃﻗﻮاﻝ ﻓﻘﻴﻞ ﺃﻥ ﻳﺠﻤﻌﻪ ﻭﺳﻂ ﺭﺃﺳﻪ ﺛﻢ ﻳﺸﺪﻩ ﻭﻗﻴﻞ ﺃﻥ ﻳﻠﻒ ﺫﻭاﺋﺒﻪ ﺣﻮﻝ ﺭﺃﺳﻪ ﻛﻤﺎ ﻳﻔﻌﻠﻪ اﻟﻨﺴﺎء ﻭﻗﻴﻞ ﺃﻥ ﻳﺠﻤﻌﻪ ﻣﻦ ﻗﺒﻞ اﻟﻘﻔﺎ ﻭﻳﻤﺴﻜﻪ ﺑﺨﻴﻂ ﺃﻭ ﺧﺮﻗﺔ ﻭﻛﻞ ﺫﻟﻚ ﻣﻜﺮﻭﻩ. ﻛﺬا ﻓﻲ اﻟﺒﺤﺮ اﻟﺮاﺋﻖ ﻧﺎﻗﻼ ﻋﻦ ﻏﺎﻳﺔ اﻟﺒﻴﺎﻥ.(الفتاوى الهندية، اﻟﻔﺼﻞ اﻟﺜﺎﻧﻲ ﻓﻴﻤﺎ ﻳﻜﺮﻩ ﻓﻲ اﻟﺼﻼﺓ ﻭﻣﺎ ﻻ ﻳﻜﺮﻩ، ج:1، ص:106، ط: دارالفکر بیروت)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

ইকামতের বাক্য দুইবার করে বলা সঠিক নয়?

প্রশ্ন From: মোঃ সোহাগ হোসেন বিষয়ঃ ইকামত প্রশ্নঃ আসসালামু আলাইকুম, আমাদের প্রায় প্রতি মসজিদেই ইকামত …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস