প্রচ্ছদ / কুরবানী/জবেহ/আকীকা / মৃত সন্তানের আকীকা করতে হবে কি?

মৃত সন্তানের আকীকা করতে হবে কি?

 

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম,

১/ মৃত সন্তানের কি আকিকা দিবে?

২/ দিলে সুওয়াব হবে কি?

৩/ যে কেও করলে হবে কি?

উত্তর জানিয়ে আমাকে ধন্য করুন।

 

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

সন্তানের আকীকার দ্বারা মূল মাকসাদ হল, সন্তান থেকে বিপদ আপদ দূর করা। সুতরাং যে সন্তান মারা গেছে তার ক্ষেত্রে যেহেতু এ বিষয়টি বাকি থাকে না। তাই মৃত সন্তানের জন্য আকীকা করার কোন প্রয়োজন নেই।

তবু যদি করে, তাহলে আকীকা হবে। কিন্তু মূল মাকসাদ বাকি থাকে না।

আকীকা করার মূল দায়িত্ব পিতার। অন্য কেউ আদায় করলেও হয়ে যাবে।

سَلْمَانُ بْنُ عَامِرٍ الضَّبِّيُّ، قَالَ: سَمِعْتُ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ يَقُولُ: «مَعَ الغُلاَمِ عَقِيقَةٌ، فَأَهْرِيقُوا عَنْهُ دَمًا، وَأَمِيطُوا عَنْهُ الأَذَى»

সালমান ইবনে আমের (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে বলতে শুনেছেনঃ শিশুর পক্ষ থেকে আকীকা করতে হবে অতএব তোমরা তার পক্ষ থেকে রক্ত প্রবাহিত করো (পশু যবেহ করো) এবং তার থেকে কষ্টদায়ক বস্ত্ত দূর করো। [সহীহ বুখারী, হাদীস নং-৫৪৭১, সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-৩২৬৪]

عَنْ سَمُرَةَ، عَنِ النَّبِيِّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ: «كُلُّ غُلَامٍ مُرْتَهَنٌ بِعَقِيقَتِهِ، تُذْبَحُ عَنْهُ يَوْمَ السَّابِعِ، وَيُحْلَقُ رَأْسُهُ، وَيُسَمَّى»

সামুরা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ প্রত্যেক শিশু তার আকীকার সাথে দায়বদ্ধ থাকে। তার জন্মের সপ্তম দিনে তার পক্ষ থেকে পশু যবেহ করতে হয়, তার মাথা কামাতে হয় এবং নাম রাখতে হয়। [সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-৩১৬৫]

قال رسول الله صلى الله عليه وسلم: (الغلام مرتهن بعقيقته) يعنى أنه محبوس سلامته عن الآفات بها…. ، المعنى أنه كالشيئ المرهون لا يتم الانتفاع والاستماع به دون فكه (مرقاة المفاتيح-8\78)

ومعنى مرتهن ورهين قيل لا ينمو نمو مثله حتى يعق عنه (الموسوعة الفقهية-30\277)

من أحب أن ينسك عن ولده فليفعل (إعلاء السنن-17\114)

يستحب لمن ولد له ولد أن يسميه يوم أسبوعه، ويحلق رأسه ويتصدق عند الأئمة الثلاثة بزنة شعره فضة أو ذهبا (رد المحتار-9\485)

عن عائشة رضى الله عنها قالت: عق رسول الله صلى الله عليه وسلم عن الحسن والحسين يوم السابع الخ (اعلاء السنن-17\115)

ومنها أنه تجرى فيها النيابة فيجوز للإنسان أن يضحى بنفسه أو بغيره بإذنه، لأنها قربة تتعلق بالمال فتجرى فيه النيابة (الفتاوى الهندية، كتاب الأضحية، قبيل الباب الثانى-5\294)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তা’লীমুল ইসলাম ইনস্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

গাইরুল্লাহকে সেজদা করা ও ফাতিমা রাঃ এর মূর্তি বানিয়ে সেজদা দেয়ার হুকুম কী?

প্রশ্ন আস্সালামুআলাইকুম হযরত। কেমন আছেন? দ্বীনের বিভিন্ন সমস্যায় সর্বদাই আপনার পরিচালিত ওয়েবসাইট হতে সাহায্য নেই। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস