প্রচ্ছদ / অজু/গোসল/পবিত্রতা/হায়েজ/নেফাস / নির্দিষ্ট দিনে হায়েজে অভ্যস্ত নারীর জন্য কোন মাসে অভ্যাসের বিপরীত রক্ত দেখা দেয় তাহলে হুকুম কী?

নির্দিষ্ট দিনে হায়েজে অভ্যস্ত নারীর জন্য কোন মাসে অভ্যাসের বিপরীত রক্ত দেখা দেয় তাহলে হুকুম কী?

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম।

আমার হায়িযের স্বাভাবিক অভ্যাস ছিল প্রতিমাসে ৭ দিন। কিন্তু গত চার মাস ধরে আমার কোনো হায়িয হয়নি। চার মাস পর পুনরায় ০৯/০৫/২০২১ তারিখ হায়িয শুরু হয়। ঐ একদিন রক্ত দেখার পর পুনরায় বন্ধ হয়ে যায়। এরপর চার দিন বন্ধ থাকার পর ১৪/০৫/২০২১ তারিখ আবার রক্ত দেখতে পাই এবং এইবার একটানা সতেরো দিন ধরে অব্যাহত থেকে ৩০/০৫/২০২১ তারিখ রক্ত বন্ধ হয়। এরপর ৫ দিন বন্ধ থেকে ০৫/০৬/২০২১ থেকে রক্ত শুরু হয়ে একটানা তিনদিন অব্যাহত থেকে ০৭/০৬/২০২১ তারিখ বন্ধ হয়েছে।

আমার জানার বিষয় হলো, উপরে উল্লেখিত বিবরণে কোন দিনগুলোকে হায়িয হিসেবে এবং কোন দিনগুলোকে ইস্তিহাযা হিসেবে গণ্য করবো?

ঠিকানাঃ ঢাকা।

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

যেহেতু আপনার হায়েজের সময়সীমার অভ্যাস আগে থেকে নির্ধারিত। তাই কোন মাসে এর ব্যতিক্রম হয়ে যেহেতু রক্ত আসা দশদিন অতিক্রম করে গেছে। তাই আপনার পুরানো অভ্যাসই বহাল আছে বলে ধরা হবে।

সেই হিসেবে আপনার যে মাসে হায়েজ আসে, সেই মাসের ৭ দিন হায়েজ ধরা হবে। আর  বাকি দিনগুলো ইস্তিহাজা হিসেবে সাব্যস্ত হবে।

أما المعتادة فما زاد على عادتها وتجاوز العشرة فى الحيض والأربعون فى النفاس يكون استحاضة (رد المحتار-1/477)

وإن جاوز العشر ففى المبتدأة حيضها عشرة أيام، وفى المعتادة معروفتها فى الحيض حيض، والطهر طهر (الفتاوى الهندية-1/36، جديد-1/91)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তা’লীমুল ইসলাম ইনস্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

চার রাকাত বিশিষ্ট্য নামাযে প্রথম বৈঠকে তাশাহুদের পর দরূদ পড়ে ফেললে সাহু সেজদা লাগবে?

প্রশ্ন মোঃ রমজান আলী প্রশ্ন: চার রাকাত নামাজের প্রথম বৈঠকে আত্তাহিয়্যাতু এর সাথে দরুদ শরীফ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস