প্রচ্ছদ / প্রশ্নোত্তর / বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার জন্য কি কি কাজ শর্ত?

বিয়ে সম্পন্ন হওয়ার জন্য কি কি কাজ শর্ত?

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম ,

আমার প্রশ্নটি হচ্ছে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে ফরয শর্ত গুলি কি কি ? যেমন সাক্ষি, দেনমোহর ধার্য্য আর কি কি ?

যদি এমন হয় , বিয়ের সব শর্তগুলিই ঠিক আছে কিন্তু যখন কনের এজাজত (কবুল) আনতে যাওয়া হল , কাজী কনেকে বললো অমুক গ্রামের অমুক ছেলের সাথে এত টাকা দেনমহর ধার্য্য করে  কনে মুখে কবুল বললো কিন্তু মনে মনে তখন সে অন্য খেয়ালে ছিল কাজী কি বলছে সেদিকে তার খেয়াল নেই। এক্ষেত্রে বিয়ের কোন সমস্যা হবে কিনা ?

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

বিয়ে শুদ্ধ হওয়ার জন্য শর্ত হল মৌলিকভাবে দু’টি। যথা-

১-ইজাব কবুল হওয়া।

২-দুইজন মুসলিম প্রাপ্ত বয়স্ক পুরুষ বা একজন প্রাপ্ত বয়স্ক পুরুষ ও দুইজন প্রাপ্ত বয়স্ক মহিলা উক্ত ইজাব কবুল স্বকর্ণে শুনা।

ব্যস উক্ত দু’টি শর্ত পাওয়া গেলেই বিয়ে সম্পন্ন হয়ে যায়।

ব্যাখ্যা

স্বামী স্ত্রীকে ইজাব তথা প্রস্তাব দিবে বা কোন ব্যক্তিকে উকিল বানিয়ে স্বামীর পরিচয় ও দেনমোহর উল্লেখ করে প্রস্তাব দিবে, আর স্ত্রী সেই প্রস্তাবকে কবুল করবে। কিংবা স্ত্রী নিজে স্বামীকে প্রস্তাব দিবে আর স্বামী তা কবুল করবে, কিংবা স্ত্রীর অনুমতিক্রমে তার উকীল গিয়ে স্বামীকে প্রস্তাব দিবে আর স্বামী তা কবুল করবে। আর উক্ত প্রস্তাব এবং কবুল বলার বিষয়টি উপস্থিত থেকে প্রাপ্ত বয়স্ক দুইজন মুসলিম পুরুষ বা একজন প্রাপ্ত বয়স্ক পুরুষ ও দুইজন মহিলা স্বকর্ণে শুনবে। তাহলেই শরয়ী দৃষ্টিকোণ থেকে বিবাহ শুদ্ধ হয়ে যাবে।

فى الدر المختار- ( و ) شرط ( حضور ) شاهدين ( حرين ) أو حر وحرتين ( مكلفين سامعين قولهما معا ) (الدر المختار ، كتاب النكاح،-3/9

অনুবাদ-বিবাহ সহীহ হওয়ার শর্ত হল শরীয়তের মুকাল্লাফ [যাদের উপর শরীয়তের বিধান আরোপিত হয়] এমন দুইজন আযাদ পুরুষ সাক্ষি বা একজন আযাদ পুরুষ ও দুইজন মহিলা সাক্ষি হতে হবে, যারা প্রস্তাবনা ও কবুল  বলার উভয় বক্তব্য স্বকর্ণে উপস্থিত থেকে শুনতে পায়। {আদ দুররুল মুখতার-৩/৯, ফাতওয়ায়ে হিন্দিয়া-১/২৬৮}

বিয়ের প্রস্তাব দেয়ার পর কনে বা বর কবুল বলার সময় মন অন্য দিকে থাকার পরও যদি স্বাক্ষীদের সামনে মুখে কবুল বলে থাকে, তাহলে বিয়ে সম্পন্ন হয়ে যাবে। কোন সমস্যা নেই।

عن أبي هريرة قال : قال رسول الله صلى الله عليه و سلم ثلاث جدهن جد وهزل جد النكاح والطلاق والرجعة (سنن الترذى، كتباب الطلاق، باب ما جاء في الجد والهزل في الطلاق، رقم الحديث-1184

হযরত আবূ হুরায়রা রাঃ থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূল সাঃ ইরশাদ করেছেন, তিনটি বিষয় এমন যেগুলোর যথার্থ তো যথার্থই এমনকি সেগুলোর কৌতুকের ব্যবহারও যথার্থ, তাহলো, বিবাহ, তালাক, রাজআত। {সুনানে তিরমিজী, হাদীস নং-১১৮৪, সুনানে সাঈদ বিন মানসূর, হাদীস নং-১৬০৩, সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-২০৩৯, সুনানে আবু দাউদ, হাদীস নং-২১৯৪, তাহাবী শরীফ, হাদীস নং-৪৬৫৪, সুনানে দারা কুতনী, হাদীস নং-৩৬৩৫}

حَقِيقَةُ الرِّضَا غَيْرُ مَشْرُوطَةٍ فِي النِّكَاحِ لِصِحَّتِهِ مَعَ الْإِكْرَاهِ وَالْهَزْلِ (رد المحتار، كتاب النكاح-4/86

والله اعلم بالصواب

উত্তর লিখনে

লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

ইমেইল- ahlehaqmedia2014@gmail.com

lutforfarazi@yahoo.com

আরও জানুন

কুরবানীর জন্য মান্নত করা পশুতে কাউকে শরীক নিতে পারবে?

প্রশ্ন আসসালামু আলাইকুম হযরত.. একটি প্রশ্ন জানার ছিলো প্রশ্নটি হলো এক ব্যক্তির একটি গরু ছিলো …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস