প্রচ্ছদ / চিকিৎসা/তদবীর / ঝাড়ফুঁক দেয়া তাবীজ ঝুলানোর বিধান কী?

ঝাড়ফুঁক দেয়া তাবীজ ঝুলানোর বিধান কী?

প্রশ্ন

আসসলামুআলাইকুম। তাবীজ কেউ নিজে লিখে বা কালো সুতা কেউ নিজে ঝাড় ফুক করে ঝুলাতে পারবে কিনা? মানে কোন হুজুরের কাছ থেকে না নিয়ে, সহীহ নেয়ামুল কুরআনে যেভাবে বলা আছে সেভাবে করলেই হবে কিনা?   আর তাবীজ কোমর,বাহু,গলায় কোথায় ঝোলানো উত্তম?

(পরিচয় প্রকাশে অনিচ্ছুক)

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

যদি উক্ত তাবীজে কুফরী বা নাজায়েজ কোন কিছু না থাকে, তাহলে তা বিজ্ঞ কবিরাজের পরামর্শ অনুপাতে গলায় হাতে বা কোমরে ঝুলানোতে কোন সমস্যা নেই।

إذا كتب له النشرة وهي كالتعويذ والرقية والمراد بالضمير البارز في قوله فقال أي النبي هو من عمل الشيطان النوع الذي كان أهل الجاهلية يعالجون به ويعتقدون فيه وأما ما كان من الآيات القرآنية والأسماء والصفات الربانية والدعوات المأثورة النبوية فلا بأس بل يستحب سواء كان تعويذا أو رقية أو نشرة وأما على لغة العبرانية ونحوها فيمتنع لاحتمال الشرك فيها

যদি তাবীজের মত কাগজে লিখা হয়। রাসূল সাঃ এর বানী “এটি শয়তানী কর্ম” এর দ্বারা উদ্দেশ্য হল জাহেলী যুগে যদ্বারা চিকিৎসা করা হতো ও যার উপর নির্ভর করা হতো। আর যা কুরআনের আয়াত, আল্লাহর নাম, আল্লাহর সিফাত সম্বলিত, দুআয়ে মাসুরা হয়, তাহলে কোন সমস্যা নেই। বরং এটি মুস্তাহাব। চাই সেটি তাবীজ হোক, বা ঝারফুক হোক বা কাগজে লিখা হোক। আর যেসব ইবরানী ও অন্যান্য ভাষায় লিখা হয় তা নিষিদ্ধ। কারণ তাতে শিরকের সম্ভাবনা আছে। {মিরকাতুল মাফাতীহ-৮/৩২১]

 তাবীজ সংক্রান্ত বিষয়ে বিস্তারিত দলীলসহ জানতে হলে ক্লিক করুন

والله اعلم بالصواب

উত্তর লিখনে

লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

ইমেইল- ahlehaqmedia2014@gmail.com

lutforfarazi@yahoo.com

 

আরও জানুন

কবরবাসী জিয়ারতকারীর সালাম শুনতে পায় এবং পরিচিতজনকে চিনতে পারে?

প্রশ্ন প্রশ্নকারীর নাম: —————- ফয়সাল আহমাদ ঠিকানা: —————- গুনবতী,কুমিল্লা জেলা/শহর: —————- কুমিল্লা দেশ: —————- বাংলাদেশ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস