প্রচ্ছদ / আকিদা-বিশ্বাস / জিন জাতির মাঝেও কি বিবাহ শাদি প্রচলিত?

জিন জাতির মাঝেও কি বিবাহ শাদি প্রচলিত?

প্রশ্ন

আমার নামঃ মোহাম্মদ রাইসুল হাসান ।

বাসাঃ ১৪ নং রোড, পতেঙ্গা, এয়ারপোর্ট , চট্টগ্রাম ।

পেশাঃ বিদেশী জাহাজী ওয়ালা ।

অভিশপ্ত শয়তান তো শুধু ইবলিশ ই ছিল । তো সকল মানুষকে কি ইবলিশ একাই ধোঁকা দেয় নাকি তার সাঙ্গ পাঙ্গ ও আছে ? বিভিন্ন হাদীস দ্বারা বুঝা যায় তার সাঙ্গ পাঙ্গ আছে । তো আমার প্রশ্ন ইবলিশের বংশ বিস্তার কীভাবে হয় ? তাদের ও কী বিয়ে শাদী আছে ? এ বিষয়ে বিস্তারিত জানালে উপকৃত হতাম।

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

ইবলিশ জিন জাতির অন্তর্ভূক্ত।

قوله تعالى: (وإذ قلنا للملائكة اسجدوا لآدم فسجدوا إلاَّ إبليس كان من الجن ففسق عن أمر ربه ) [الكهف: 50]

জিন জাতি আগুনের সৃষ্টি। পবিত্র কুরআনের একাধিক আয়াতে এ বিষয়ে স্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে।

(وَالْجَآنَّ خلقناه من قبل من نّار السَّموم) [الحجر: 27] ، وفي سورة الرحمن: (وخلق الجانَّ من مَّارجٍ من نَّارٍ) [الرحمن: 15] . وقد قال ابن عباس، وعكرمة، ومجاهد، والحسن وغير واحد في قوله: (مَّارجٍ من نَّارٍ) : طرف اللهب، وفي رواية: من خالصه وأحسنه (البداية والنهاية: 1/59) : وقال النووي في شرحه على مسلم: ” المارج: اللهب المختلط بسواد النار ” (شرح النووي على مسلم: 18/123)

وفي الحديث الذي أخرجه مسلم عن عائشة قالت: قال رسول الله صلى الله عليه وسلم: (خلقتْ الملائكة من نور، وخلق الجان من مارج من نار، وخلق آدم مما وصف لكم) (صحيح مسلم: 4/2294. ورقمه: 2996)

 

মানুষ সৃষ্টির আগেই জিন জাতিকে আল্লাহ তাআলা সৃষ্টি করেছেন। পবিত্র কুরআনের আয়াতে তা স্পষ্ট উল্লেখ করা হয়েছে-

قوله تعالى: (ولقد خلقنا الإنسان من صلصالٍ من حَمَإٍ مَّسنونٍ – والجآنَّ خلقناه من قبل من نَّار السَّموم) [الحجر: 26-27]

 

জিনদেরও মানুষের মত, চোখ, কান, নাক, মন, শরীর ইত্যাদি আছে। শয়তান ও খায় এবং পানও করে।

قال تعالى: (ولقد ذرأنا لجهنَّم كثيراً من الجن والإنس لهم قلوبٌ لا يفقهون بها ولهم أعينٌ لا يبصرون بها ولهم آذانٌ لا يسمعون بها أولئك كالأنعام بل هم أضلُّ) [الأعراف: 179]

عن ابن عمر رضي الله عنهما: أنّ النبي صلى الله عليه وسلم قال: (إذا أكل فليأكل بيمينه، وإذا شرب فليشرب بيمينه، فإن الشيطان يأكل بشماله، ويشرب بشماله) (رواه مسلم: 3/1598. ورقمه: 2020)

 

ইবলিস হল জিন জাতির পিতা। যেমন হযরত আদম হলেন মানব জাতির পিতা।

32 – عَنْ عَلِيِّ بْنِ مُحَمَّدِ بْنِ إِبْرِاهِيمَ: حَدَّثَنَا ابو صالح، حدثني مُعَاوِيَةُ بْنُ صَالِحٍ أَنَّ الْعَلاءَ بْنَ الْحَارِثِ حَدَّثَهُ عَنِ ابْنِ شِهَابٍ قَالَ:

: إِبْلِيسُ أَبُو الْجِنِّ، كَمَا أَنَّ آدَمَ أَبُو الإِنْسِ، وَآدَمُ مِنَ الإِنْسِ، وَهُوَ أَبُوهُمْ، وَإِبْلِيسُ مِنَ الْجِنِّ وهو أبوهم.

لكتاب: مكائد الشيطان

المؤلف: أبو بكر عبد الله بن محمد بن عبيد بن سفيان بن قيس البغدادي الأموي القرشي المعروف بابن أبي الدنيا (المتوفى: 281هـ)

{ফাতাওয়া ইবনে তাইমিয়া-৪/২৩৫, ৩৪৬}

 

জিনদের মাঝে বিবাহ শাদিও প্রচলিত। মানুষদের যেভাবে সন্তান হয়, জিনদেরও সেভাবে সন্তান হয়। জিনদেরও মানুষের পরিবার রয়েছে।

أفتتخذونه وذريَّته أولياء من دوني وهم لكم عدو [الكهف: 50

لم يَطْمِثْهُنَّ إنسٌ قبلهم ولا جانٌّ) [الرحمن: 56] . والطمث في لغة العرب: الجماع، وقيل هو الجماع الذي يكون معه تدمية تنتج عن الجماع.

(إن الجن يتوالدون، كما يتوالد بنو آدم، وهم أكثر عدداً) (رواه ابن أبي حاتم، وأبو الشيخ في: العظمة، عن قتادة)

وقال قتادة: ” أولاد الشيطان يتوالدون كما يتوالد بنو آدم، وهم أكثر عدداً ” (لقط المرجان: ص51

 والله اعلم بالصواب

উত্তর লিখনে

লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালকতালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

ইমেইল- ahlehaqmedia2014@gmail.com

lutforfarazi@yahoo.com

আরও জানুন

কুরবানীর জন্য মান্নত করা পশুতে কাউকে শরীক নিতে পারবে?

প্রশ্ন আসসালামু আলাইকুম হযরত.. একটি প্রশ্ন জানার ছিলো প্রশ্নটি হলো এক ব্যক্তির একটি গরু ছিলো …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস