হোম / প্রবন্ধ নিবন্ধ (page 10)

প্রবন্ধ নিবন্ধ

আশুরা ও মুহররম : ফযীলত ও করণীয়-বর্জনীয়

মাওলানা মুহাম্মদ যাকারিয়া আব্দুল্লাহ মুহাররম ও আশুরা কুরআন মজীদে ও হাদীস শরীফে এ মাস সম্পর্কে যা এসেছে তা হল, এটা অত্যন্ত  ফযীলতপূর্ণমাস। কুরআনের ভাষায় এটি ‘আরবাআতুন হুরুম’-অর্থাৎ চার সম্মানিত মাসের অন্যতম। এ মাসে রোযা রাখার প্রতি বিশেষভাবে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। হযরত আবু হুরায়রা রা. থেকে বর্ণিত এক হাদীসে নবী করীম …

আরো পড়ুন

হে লা-মাযহাবী যুবক! তুমি কার অন্ধ তাকলীদে উলামাদের সাথে বেআদবী করার দুঃসাহস প্রদর্শন করছো?

লুৎফুর রহমান ফরায়েজী ইদানিং লা-মাযহাবী ভাইদের ফোন কল বেড়ে গেছে। জানিনা তারা এত ক্ষেপল কেন? বেড়ে গেছে গালাগালও। জানিনা গালাগাল করা আর নাম বিকৃত করা কোন সহীহ হাদীসের উপর আমল। শায়েখ আমানুল্লাহ বিন ইসমাঈলের মত একজন মুরুব্বী লা-মাযহাবী শায়েখ যখন তার বয়ানে অধমকে “লুতু ফরাজী, কুত্তা ভুগতে রাহেগা” ইত্যাদি বলে …

আরো পড়ুন

যৌতুক একটি সামাজিক ব্যাধিঃ বহু কবীরা গোনাহের সমষ্টি

আল্লামা আব্দুল মালেক দা.বা. মুসলিম-সমাজে যখন অজ্ঞতা ও বিজাতির সংশ্রব একত্র হয়েছে তখন ভিন্ন সমাজের রোগ-ব্যধি ও রীতি-রেওয়াজে আক্রান্ত হওয়া আশ্চর্যের কিছু নয়। সকল অন্যায় ও প্রান্তিকতা এবং শোষণ ও নির্যাতনমূলক রীতি-নীতি থেকে সম্পূর্ণ মুক্ত ও পবিত্র আদর্শ ইসলামকে পেয়েও যারা সেদিকে ভ্রূক্ষেপ করে না এবং বিজাতির অন্ধ অনুকরণের মোহ …

আরো পড়ুন

কুরআন মাজীদ ও হাদীসে “মাওলানা’ শব্দের ব্যবহার

 সংকলনে– মাওলানা মুহসিনুদ্দীন খান [কিছু লামাযাহাবী ভাইদেরকে বলতে শুনা যায় যে, আলেমদের নামের পূর্বে “মাওলানা” শব্দ ব্যবহার করা সঠিক নয়। আবার কেউ বা বাড়িয়ে বলেন, আলেমদের নামের পূর্বে “মাওলানা” শব্দ ব্যবহার করা শিরক !!! এসব ভাইদের ভ্রান্ত ধারণা অপনোদনের জন্যই এই ক্ষুদ্র প্রয়াস। আল্লাহ তাআলা কবুল করুন। আমীন।] “মাওলা” শব্দটি …

আরো পড়ুন

গায়রে মুকাল্লিদদের ইমাম মরহুম আলবানী সাহেবের প্রকৃত পরিচয়

মাওলানা মুফতী মনসূরুল হক্ব আলবানী সাহেবের আসল নাম নাসিরুদ্দীন। সিরিয়ার অ ন্তর্গত আলবেনিয়ার অধিবাসী হওয়ায় তাঁকে আলবানী বলা হয়। এ নামেই তিনি সারা বিশ্বে পরিচিত। ১৩৩৩ হিজরী মোতাবেক ১৯১৪ ঈসাঈতে তিনি আলবেনিয়ার আশকুদারাহ শহরে জন্মগ্রহণ করেন। কিছু সমস্যার কারণে তাঁর পিতা আলবেনিয়া ছেড়ে সপরিবারে দামেস্ক চলে যান সাথে আলবানীকেও নিয়ে …

আরো পড়ুন

লা-মাযহাবী বন্ধুরা! দয়া করে জবাব দেবেন কি?

মুফতী মনসূরুল হক্ব দা.বা. আহলে হাদীস নামধারী লা-মাযহাবী বন্ধুরা সেই যে ১৮৭৯ সাল থেকে ‘চ্যালেঞ্জ’, ‘ওপেন চ্যালেঞ্জ’ আর রুপি-টাকার টোপসংবলিত লিফলেট প্রকাশ করে আসছেন, তার আর থামাথামি নেই; থামার লক্ষণও নেই। পার্থক্য এতটুকু যে সেকালের দশ রুপি একালে এসে লাখের ঘর ছাড়িয়েছে। এসব লিফলেটে তারা উম্মাহর প্রথম সারির উলামায়ে কেরাম …

আরো পড়ুন

মুসান্নাফ ইবনে আবী শাইবা পরিচিতি

আল্লামা আব্দুল মালেক দা.বা. ‘মুসান্নাফে ইবনে আবী শাইবা’ ‘হাদীস’ ও ‘আছারে’র সুবৃহৎ সংকলন, যা সংকলিত হয়েছে হিজরী তৃতীয় শতাব্দীর প্রথম দিকে। সংকলক ইমাম আবু বকর ইবনে আবী শাইবা আলকূফী (১৫৯ হি.-২৩৫ হি.)  ইলমে হাদীসের অনেক বড় ইমাম ছিলেন। ইমাম বুখারী, ইমাম মুসলিম ও তাদের সমসাময়িক হাদীসের ইমামগণ তাঁর শীষ্যত্ব গ্রহণ …

আরো পড়ুন

দলীলের আলোকে কুরবানীর মাসায়েল

মাওলানা মুহাম্মাদ ইয়াহইয়া  কুরবানী একটি গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত। এটি আদায় করা ওয়াজিব। সামর্থ্য থাকা সত্ত্বেও যে ব্যক্তি এই ইবাদত পালন করে না তার ব্যাপারে হাদীস শরীফে এসেছে, ‘যার কুরবানীর সামর্থ্য রয়েছে কিন্তু কুরবানী করে না সে যেন আমাদের ঈদগাহে না আসে।’-মুস্তাদরাকে হাকেম, হাদীস : ৩৫১৯; আত্তারগীব ওয়াত্তারহীব ২/১৫৫ ইবাদতের মূলকথা হল আল্লাহ …

আরো পড়ুন

নফল হজ্ব কখন কিভাবে করবেন?

আল্লামা মুফতী মুহাম্মদ তকী উছমানী শাবান থেকে যিলহজ পর্যন্ত ইবাদতের এক ধারাবাহিক ব্যবস্থা রেখেছেন আল্লাহ তাআলা। এ সময়ের প্রতিটি মাসই বিশেষ বিশেষ ইবাদত ও আহকামের জন্য নির্ধারিত। রমযানুল মুবারকে আল্লাহ তাআলা রোযা ফরয করেছেন। তারাবীহর নামাযকে সুন্নত হিসেবে দিয়েছেন। এই রমযান শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই হজ্বের মাস শুরু হয়ে গেছে। …

আরো পড়ুন

বদলী হজ্ব সংক্রান্ত মাসআলা মাসায়েল

মাওলানা মুহাম্মাদ ইমদাদুল্লাহ হজ্ব একটি কঠিন ইবাদত। একে জিহাদের সাথেও তুলনা করা হয়েছে। এ কারণে এতে ছওয়াবও বেশি এবং উপকারিতাও অনেক। বিধানগত দিক থেকে হজ্ব আদায় করা সহজ, কিন্তু যেহেতু এর জন্য সফর করতে হয় এবং পৃথিবীর সবচেয়ে বড় জমায়েত বিশেষ বিশেষ স্থানে একসাথে এই ইবাদত আদায় করে থাকে তাই …

আরো পড়ুন

কুরআন ও হাদীসের আলোকে হজ্ব ও উমরার ফযীলত ও গুরুত্ব

মাওলানা মুহাম্মদ আনসারুল্লাহ হাসান ইসলামের মূল স্তম্ভসমূহের পঞ্চমটি হল হজ্বে বায়তুল্লাহ। ঈমান, নামায, যাকাত ও রোযার পরই হজ্বেরঅবস্থান। হজ্ব মূলত কায়িক ও আর্থিক উভয়ের সমন্বিত একটি ইবাদত। তাই উভয় দিক থেকেসামর্থ্যবান মুসলিমের উপর হজ্ব পালন করা ফরয। অর্থাৎ হজ্ব আদায়ে সক্ষম এমন শারীরিক সুস্থতারপাশাপাশি নিত্যপ্রয়োজনীয় খরচাপাতি ও আসবাবপত্রের অতিরিক্ত হজ্বে …

আরো পড়ুন

সদকায়ে ফিতরের পরিমাণ পর্যালোচনা

দারুল ইফতা, মারকাযুদ দাওয়াহ আলইসলামিয়া ঢাকা সদাকায়ে ফিতর সম্পর্কিত হাদীসগুলো পর্যালোচনা করলে এ বিষয়ে মোট পাঁচ প্রকার খাদ্যের বর্ণনা পাওয়া যায়: যব, খেজুর, পনির, কিসমিস ও গম। এ পাঁচ প্রকারের মধ্যে যব, খেজুর, পনির ও কিসমিস দ্বারা সদকা ফিতর আদায় করতে চাইলে প্রত্যেকের জন্য এক সা’ দিতে হবে। আর গম …

আরো পড়ুন