প্রচ্ছদ / Tag Archives: স্থানীয় ভাষায় খুতবা

Tag Archives: স্থানীয় ভাষায় খুতবা

বাড়িতে নামাযের জন্য নির্ধারিত করা স্থানে জুমআ পড়া যাবে?

প্রশ্ন আসসালামু আলাইকুম জনাব, আমার নাম  গাজী মাকুল উদ্দিন, আমি দৈনিক মানবজমিন পত্রিকা খুলনা ফুলতলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। আমার প্রশ্ন হল আমাদের খুলনার ফুলতলার খানজাহান আলী থানা এলাকায় একটি বাড়িতে ছোট্ট একটা নামাজের জায়গা মসজিদ করা হয়েছে এবং সেখান পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করা হয়। এখন প্রশ্ন হলো মসজিদের …

আরও পড়ুন

ঈদের নামায একজন এবং খুতবা আরেকজন পড়লে হবে কি?

প্রশ্ন আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ। মুহতারাম মুফতি সাহেব দাঃ বাঃ,আমি মাহদী মৌলভীবাজার থেকে। ঈদের নামাযের ইমামতি একজন আর খুতবা অন্যজন পড়ার হুকুম কি? দয়া করে দলীলসহ জানালে উপকৃত হব। উত্তর وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته بسم الله الرحمن الرحيم জায়েজ আছে। নামায হয়ে যাবে। সমস্যা নেই।[আপ কি মাসায়েল আওর উনকা …

আরও পড়ুন

জুমআর সানী আজান কোন স্থানে দেয়া সুন্নাহ সম্মত?

প্রশ্ন From: নো’মান আহমদ বিষয়ঃ জুমআর সানী আজান কোন জায়গায় দেওয়া প্রসঙ্গে প্রশ্নঃ আস্সালামুআলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ মুহতারাম মুফতি সাহেব, একটি জরুরী প্রশ্ন,  জুমআর সানী আজান কোন জায়গায় দিতে হবে?  ইমাম সাহেবের সামনে/নিকটে? না দরজার সামনে/নিকটে? অনেক মসজিদে যে জুমআর সানী আজান দেখি যে তাহারা দরজার সামনে/নিকটে দেন। (যারা দরজার নিকটে/সামনে …

আরও পড়ুন

জুমআর খুতবা কখন ও কিভাবে দেয়া সুন্নাহ সম্মত?

প্রশ্ন From: মুহাঃ মাহমুদুল হাসান ফয়সাল বিষয়ঃ জুম’আর নামাযে খুৎবার সময় ও সংখ্যা প্রশ্নঃ আচ্ছালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ । শ্রদ্ধেয় আহলে হক্ক মিডিয়ার পরিচালক, মুফতী সাহেব সমীপেষু আমাদের সমাজে প্রচলিত জুম’আর নামাযে ছানী আযানের পূর্বে মাতৃভাষাতে আলোচনা ও ছানী আযানের পর আরবীতে একটি আউয়াল ও একটি ছানী খুৎবা প্রদান করা …

আরও পড়ুন

জুমআর আরবী খুতবার মাঝে বাংলায় হাদীস বা আয়াতের অনুবাদ করার হুকুম কী?

প্রশ্ন মুফতী সাহেবের কাছে আমার প্রশ্ন হল, আমি খিলগাও এলাকার বাসিন্দা। আমি মাঝে মাঝে খিলগাঁও ঝিল মসজিদে জুমআর নামায পড়ি। উক্ত মসজিদের খতীব, বাংলাদেশের একজন নামকরা আলেম দাঁড়িয়ে জুমআর খুতবা দেবার সময় মাঝে মাঝে আরবী হাদীস পড়ে বাংলায় তা তরজমাও ব্যাখ্যা করে থাকেন। যেমন একদিন খুতবার মাঝে সাহাবীদের আজমত সম্পর্কিত …

আরও পড়ুন

স্থানীয় ভাষায় খুৎবা প্রদানঃ একটি দালীলিক পর্যালোচনা

মুফতী মুহাম্মদ শফী কাসেমী আরবী ছাড়া অন্য কোনো ভাষায় খুতবা প্রদান করা বিদ’আত ও মাকরূহে তাহরীমি। কারণ তা রাসূলুল্লাহ (সা.), সাহাবায়ে কেরাম, তাবেঈন, তাবেতাবেঈন এবং গোটা মুসলিম উম্মাহর সর্বযুগে সর্বসম্মত আমলের পরিপন্থী। জুমু’আর নামাযের আগে নবী করিম (সা.) দুটি খুতবা দিতেন। দুই খুতবার মাঝখানে অল্প সময় বসতেন। (মুসলিম শরীফ, ১/২৮৩, …

আরও পড়ুন
আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস