প্রচ্ছদ / কুরবানী/জবেহ/আকীকা / বৃত্তির টাকার উপর কুরবানী এবং অনুমতি নিয়ে অন্যের কুরবানী করার হুকুম কী?

বৃত্তির টাকার উপর কুরবানী এবং অনুমতি নিয়ে অন্যের কুরবানী করার হুকুম কী?

প্রশ্ন

নাম- আব্দুল্লাহ

বিষয়- কুরবানী

আমার কাজিন একটি বৃত্তি পেয়েছে। বৃত্তির টাকা দিয়ে তার আরো ৩ বছরের পড়াশুনা চালিয়ে নিতে হবে। বাসায় জানে, মাসিক কিস্তিতে টাকা দেয়। কিন্তু টাকা আসলে এককালীন দিয়েছে। বাসায় জানলে নিয়ে নিতে পারে বলে জানানো হয়নি।

এখন প্রশ্ন হলঃ
ক) এই টাকার উপর যাকাত ও কুরবানি ওয়াজিব হবে কিনা?
খ) অভিভাবকের অনুমতি ছাড়া কুরবানি দেয়া যাবে কিনা?
গ) আমার উপর কুরবানি ওয়াজিব। আমি যদি তার পক্ষে আদায় করে দিই, তাহলে হবে কিনা? সেক্ষেত্রে আংকেল বা তার মৃত দাদার নামে করলে হবে কিনা?

উত্তর

১ এর উত্তর

এ টাকা নেসাব পরিমাণ হলে বছর অতিক্রান্তে যাকাত এবং কুরবানীর দিনে কুরবানী আবশ্যক হবে।

الزكاة واجبة على الحر العاقل البالغ المسلم إذا ملك نصابا ملكا تاما وحال عليه الحول الخ (هداية، كتاب الزكاة-1/185)

إذا أمسكه لينفق منه كل ما يحتاجه فحال عليه الحول وقد بقى معه منه نصاب، فإنه يزكى ذلك الباقى، وإن كان قصده الإنفاق منه أيضا فى المستقبل لعدم استحقاق صرفه إلى حوائجها الأصلية وقت حولان الحول الخ (رد المحتار، كتاب الزكاة، مطلب فى زكاة المبيع وفاء-3/179)

عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ، أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ: «مَنْ كَانَ لَهُ سَعَةٌ، وَلَمْ يُضَحِّ، فَلَا يَقْرَبَنَّ مُصَلَّانَا»

হযরত আবূ হুরায়রা রাঃ থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন, যে ব্যক্তির কোরবানী করার সক্ষমতা রয়েছে, কিন্তু কুরবানী করেনি, সে যেন আমাদের ঈদগাহে না আসে। [সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-৩১২৩]

২ এর উত্তর

কুরবানী দিতে অভিভাবকের অনুমতির প্রয়োজন নেই।

৩ এর উত্তর

যার উপর ওয়াজিব তার অনুমতি নিয়ে তার পক্ষ থেকে কুরবানী দিলে আদায় হবে। অনুমতি  ছাড়া কুরবানী দিলে কুরবানী হবে না। মৃত আত্মীয় স্বজনের নামেও কুরবানী করা যায়।

عن حنش قال: رأيت عليا يضحى بكبشين فقلت له: ما هذا؟ فقال: إن رسول الله صلى الله عليه وسلم أوصانى أن أضحى عنه فأنا أضحى عنه (سنن أبى داود، كتاب الضحايا، باب الأضحية عن الميت-2/385، رقم-2790، سنن الترمذى-1/275، رقم-1494، مجمع الزوائد-4/23، المستدرك للحاكم-4/255، رقم-7756)

لو ضحى ببدنة عن نفسه وعرسه واولاده……… ان كانوا كبار ان فعل بامرهم جاز عن الكل وعن فعل بغير أمرهم او بغير امر بعضهم لا تجوز عنه ولا عنهم فى قولهم جميعا لان نصيب من لم يأمر صار لحما فصار الكل لحما (الفتاوى الهندية، كتاب الاضحية، الباب السابع فى التضحية عن الغير-5/302، خانية على هامش الهندية-3/350، المحيط البرهانى-8/473

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক ও প্রধান মুফতী – মা’হাদুত তালীম ওয়াল  বুহুসিল ইসলামী ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম আমীনবাজার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া ফারূকিয়া দক্ষিণ বনশ্রী ঢাকা।

আরও জানুন

ইকামতের বাক্য দুইবার করে বলা সঠিক নয়?

প্রশ্ন From: মোঃ সোহাগ হোসেন বিষয়ঃ ইকামত প্রশ্নঃ আসসালামু আলাইকুম, আমাদের প্রায় প্রতি মসজিদেই ইকামত …

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস