প্রচ্ছদ / কুরবানী/জবেহ/আকীকা / কতটুকু সম্পদ থাকলে কুরবানী আবশ্যক? ঋণী ব্যক্তির উপর কুরবানীর বিধান কী?

কতটুকু সম্পদ থাকলে কুরবানী আবশ্যক? ঋণী ব্যক্তির উপর কুরবানীর বিধান কী?

প্রশ্ন

From: মোঃ আতিকুর রহমান আতিক
বিষয়ঃ কুরবানীর নিসাব

প্রশ্নঃ
১। কতটুকু সম্পদ থাকলে আমাকে কুরবানী করা লাগবে?
২। আমার যদি অনেক টাকা ঋন থাকে তাহলে কুরবানীর বিধান কি?
৩। বাংকে টাকা থাকলে বা কাউকে এক বা একাধিক বছরের মেয়াদে ধার দিলে কুরবানীর বিধান কি?

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

জিলহজ্ব মাসের দশ, এগারো ও বারো তারিখ এ তিনদিনের প্রয়োজন অতিরিক্ত কারো কাছে যদি সাড়ে বায়ান্ন তোলা রূপা বা সাড়ে সাত তোলা স্বর্ণের সমপরিমাণ মূল্য পরিমাণ সম্পদ থাকে, তাহলে তার উপর  কুরবানী করা আবশ্যক।

প্রয়োজন অতিরিক্ত বলতে বুঝানো হয়েছে, উক্ত তিন দিনের নিত্য প্রয়োজনীয় আসবাব এবং এখনি আদায় আবশ্যক এমন ঋণমুক্ত হতে হবে। দীর্ঘমেয়াদী ঋণ কুরবানী আবশ্যক হবার জন্য বাঁধা হবে না।

ব্যাংকে টাকা থাকা ও অন্যের কাছে ধার দেয়া উভয়ই নিজের মালিকানাধীন সম্পদের হুকুমে হবে। তাই উক্ত সম্পদ হিসেবেও কুরবানী আবশ্যক হবে।

وإن شرط الوجوب منها وهو ما يتعلق به وجوب صدقة الفطر (الفتاوى الهندية-5/292)

 (وَأَمَّا) (شَرَائِطُ الْوُجُوبِ) : مِنْهَا الْيَسَارُ وَهُوَ مَا يَتَعَلَّقُ بِهِ وُجُوبِ صَدَقَةِ الْفِطْرِ دُونَ مَا يَتَعَلَّقُ بِهِ وُجُوبُ الزَّكَاةِ،………. وَالْمُوسِرُ فِي ظَاهِرِ الرِّوَايَةِ مَنْ لَهُ مِائَتَا دِرْهَمٍ أَوْ عِشْرُونَ دِينَارًا أَوْ شَيْءٌ يَبْلُغُ ذَلِكَ سِوَى مَسْكَنِهِ وَمَتَاعِ مَسْكَنِهِ وَمَرْكُوبِهِ وَخَادِمِهِ فِي حَاجَتِهِ الَّتِي لَا يَسْتَغْنِي عَنْهَا، فَأَمَّا مَا عَدَا ذَلِكَ مِنْ سَائِمَةٍ أَوْ رَقِيقٍ أَوْ خَيْلٍ أَوْ مَتَاعٍ لِتِجَارَةِ أَوْ غَيْرِهَا فَإِنَّهُ يُعْتَدُّ بِهِ مِنْ يَسَارِهِ،(الفتاوى الهندية، كتاب الأضحية، فصل شرائط الوجوب-5/292، رد المحتار، كتاب الاضحية-9/452-453، مجمع الانهر-4/167)

وفي رد المحتار- ( قوله أو مؤجلا إلخ ) عزاه في المعراج إلى شرح الطحاوي ، وقال : وعن أبي حنيفة لا يمنع وقال الصدر الشهيد : لا رواية فيه ، ولكل من المنع وعدمه وجه، زاد القهستاني عن الجواهر : والصحيح أنه غير مانع (رد المحتار-كتاب الزكاة، مطلب الفرق بين السبب والشرط والعلة-3/177، بدائع الصنائع-2/86

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

হজ্জ কখন ফরজ হয়? হজ্জের মাসে নাকি হজ্জ নিবন্ধনের সময়?

প্রশ্ন االسابع الوقت اي وجود القدرة فيه وهي اشهر الحج او هو وقت خروج اهل …

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস