প্রচ্ছদ / আহলে হাদীস / বীর্য নাপাক হলে মানুষতো নাপাক বস্তু দ্বারা তৈরী হয় তাহলে মানুষ পাক হবে কিভাবে?

বীর্য নাপাক হলে মানুষতো নাপাক বস্তু দ্বারা তৈরী হয় তাহলে মানুষ পাক হবে কিভাবে?

প্রশ্ন

শায়েখ আসসালামু আলাইকুম।

আল্লাহ তাআলা আপনাদের মেহনতকে কবুল করুন। শত ব্যস্ততার মাঝেও আমাদের দৈনন্দিন মাসায়েল এবং বাতিল ফিরক্বার বিভিন্ন ওয়াসওয়াসা ও অপপ্রচারের দলীলভিত্তিক জবাব প্রদান করে কত বড় খিদমাত আঞ্জাম দিচ্ছেন তা আপনারা হয়তো কল্পনাও করতে পারবেন না। আলহামদুলিল্লাহ। আমার মত কত মানুষ আপনাদের এ মেহনত না থাকলে লা-মাযহাবীসহ অন্যান্য ভ্রান্ত ফিরক্বার অন্তর্ভূক্ত হয়ে যেতাম।

যাইহোক, মুফতী সাহেব, আমার প্রশ্ন হল, কিছুদিন আগে মতিউ রহমান মাদানী নামে একজন লা-মাযহাবী শায়েখের বক্তব্য শুনলাম। তিনি বলেছেন যে, বীর্য যদি নাপাক হয়, তাহলে নাপাক বস্তু দিয়ে কি নবী রাসূলগণকে তৈরী করা হয়েছে?

তিনি আরো বলেন যে, নাপাক বস্তু দ্বারা যদি মানুষ সৃষ্টি হয়ে থাকে, তাহলে সে পাক হল কখন? সেতো তাহলে সর্বদা নাপাকই থাকে। তারা নাকি পাক বস্তু তথা বীর্য দিয়ে তৈরী, আর যারা নাপাক বলে তারা নাপাক বস্তু দিয়ে তৈরী।

এ বিষয়ে আপনাদের বক্তব্য আশা করছি।

আবারো আপনাদের মঙ্গল কামনা করছি।

প্রশ্নকর্তা- আলী হুসাইন। বাংলাদেশ।

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

বীর্য নাপাক। এটিই হাদীস দ্বারা প্রমাণিত। এটিকে অস্বিকার করার কোন সুযোগ নেই। বীর্য পাক হবার স্বপক্ষে কোন দলীল নেই। শুধুমাত্র মতিউর রহমান মাদানীদের ধোঁকাবাজীপূর্ণ যুক্তি ছাড়া।

নাপাক বস্তু দ্বারা কোন কিছু সৃষ্টি হলে উক্ত বস্তু সর্বদা নাপাক থাকা একটি হাস্যকর কথা।

কুরআনে কারীমে ইরশাদ হয়েছে,

وَإِنَّ لَكُمْ فِي الْأَنْعَامِ لَعِبْرَةً ۖ نُّسْقِيكُم مِّمَّا فِي بُطُونِهِ مِن بَيْنِ فَرْثٍ وَدَمٍ لَّبَنًا خَالِصًا سَائِغًا لِّلشَّارِبِينَ [١٦:٦٦

তোমাদের জন্যে চতুস্পদ জন্তুদের মধ্যে চিন্তা করার অবকাশ রয়েছে। আমি তোমাদেরকে পান করাই তাদের উদরস্থিত বস্তুসমুহের মধ্যে থেকে গোবর ও রক্ত নিঃসৃত দুগ্ধ যা পানকারীদের জন্যে উপাদেয়। [সূরা নাহল-৬৬]

উক্ত আয়াতে পরিস্কার ভাষায় বলা হচ্ছে গোবর আর রক্ত দ্বারা তৈরী হয় দুধ। আর গোবর ও রক্ত যে নাপাক এতেতো আশা করি মতিউর রহমান মাদানী সাহেব অস্বিকার করবেন না।

তো নাপাক গোবর ও রক্ত দ্বারা তৈরী দুধ ও কি নাপাক? না পাক?

নিশ্চয় পাক। তাহলে বুঝা গেল কোন বস্তু দ্বারা নাপাক বস্তু দ্বারা তৈরী হলেই তা নাপাক হওয়া আবশ্যক নয়। তা’ই বীর্য নাপাক হলেও তার দ্বারা সৃজিত মানুষ নাপাক নয়। যেমন নাপাক গোবর ও রক্ত দ্বারা সৃজিত দুধ নাপাক নয়।

বীর্য নাপাক হবার বিষয়টি পরিস্কার হাদীস দ্বারা প্রমাণিত। তা’ই এ বিষয়ে যুক্তি পেশ করা মুর্খতা ও হাদীস অস্বিকার করার মানকিতা ছাড়া আর কিছু নয়।

عَمْرُو بْنُ مَيْمُونٍ، قَالَ: سَأَلْتُ سُلَيْمَانَ بْنَ يَسَارٍ [ص:56] فِي الثَّوْبِ تُصِيبُهُ الجَنَابَةُ، قَالَ: قَالَتْ عَائِشَةُ: «كُنْتُ أَغْسِلُهُ مِنْ ثَوْبِ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ، ثُمَّ يَخْرُجُ إِلَى الصَّلاَةِ، وَأَثَرُ الغَسْلِ فِيهِ» بُقَعُ المَاءِ

অনুবাদ- আমার বিন মাইমুন রহঃ সুলাইমান বিন ইয়াসার রাঃ কে বীর্য লাগা কাপড়ের ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন,হযরত আয়শা রাঃ বলেছেন, “আমি রাসূল সাঃ এর কাপড় থেকে তা ধুয়ে ফেলতাম তারপর তিনি নামাযের জন্য বের হতেন এমতাবস্থায় যে,কাপড়ে পানির ছাপ লেগে থাকতো। {সহীহ বুখারী, হাদীস নং-২৩১, ২২৯}

এ পরিচ্ছেদের অধীনে গায়রে মুকাল্লিদ আলেম ওহীদুজ্জামান সাহেব লিখেছেনঃ “ইমাম বুখারী রহঃ এ পরিচ্ছেদে বীর্য ছাড়া অন্য কোন নাপাকীর কথা উল্লেখ করেননি। হয়তো বাকি নাপাককে বীর্যের উপরই কিয়াস করেছেন। এর দ্বারা বুঝা যাচ্ছে যে, ইমাম বুখারী রহঃ এর নিকট বীর্য নাপাক।{তাইসীরুল বারী-১/১৭০}

يَا عَمَّارُ إِنَّمَا يُغْسَلُ الثَّوْبُ مِنْ خَمْسٍ: مِنَ الْغَائِطِ وَالْبَوْلِ وَالْقَيْءِ وَالدَّمِ وَالْمَنِيِّ

আম্মার বিন ইয়াসার রাঃ থেকে বর্ণিত। রাসূল সাঃ ইরশাদ করেছেন-নিশ্চয় ৫টি কারণে কাপড় ধৌত করতে হয়, যথা-১-পায়খানা, ২-প্রশ্রাব, ৩-বমি, ৪-রক্ত, ৫-বীর্য। {সুনানে দারা কুতনী, হাদীস নং-৪৫৮}

হযরত ওমর বিন খাত্তাব রাঃ বলেন-বীর্য সিক্ত থাকলে তা ধুয়ে ফেল, আর শুকিয়ে গেলে তা খুটিয়ে ফেল। {মুসান্নাফে ইবনে আবী শাইবা, হাদীস নং-৯৩৩}

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা-জামিয়া ফারুকিয়া দক্ষিণ বনশ্রী ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

মরণোত্তর চক্ষুদান করার হুকুম কী?

প্রশ্ন মুফতী সাহেবের কাছে আমার প্রশ্ন হল, মরণোত্তর চক্ষুদান করার হুকুম কী? দয়া করে জানালে …

No comments

  1. Jazakallahu khair mufti shaheb.