প্রচ্ছদ / প্রশ্নোত্তর / সফরের দূরত্ব কি ৭৭ কিলোমিটার নাকি ৮৭ কিলোমিটার?

সফরের দূরত্ব কি ৭৭ কিলোমিটার নাকি ৮৭ কিলোমিটার?

প্রশ্ন

MD Nayem Uddin

৪ বারিদ=১৬ ফরসখ =৪৮ মাইল = ৮৭+ কিলোমিটার।

কিন্তু আমরা আগে জানতাম ৭৭ বা ৭৮ কিলোমিটার….

এখন জানার বিষয় কোনটা অধিক যুক্তি সঙ্গত ও বিশুদ্ধ?

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

আমরা যে ৪৮ মাইলকে কিলোমিটারে রূপান্তর করতে গুণ দিয়ে থাকি, তা মাইলে ঈসায়ী হিসেবে করে থাকি। মাইলে ঈসায়ীর ৪৮ মাইল মানে ৭৭ কিলোমিটার। এ কথা ঠিক।

কিন্তু হাদীস ও ফিক্বহের কিতাবে বর্ণিত যে ‘মাইল’ এর কথা আসছে, সেটি মাইলে ঈসায়ীর হিসাব নয়, বরং মাইলে শরয়ী। মাইলে শরয়ী এবং মাইলে ঈসায়ীর মাঝে পার্থক্য আছে।

আপনি যে ৮৭+ মানে ৮৮ কিলোমিটারের কথা বলেছেন, এটি মাইলে শরয়ী হিসেবে। আর ৭৭ কিলোমিটারের কথা যে উদ্ধৃত করেছেন এটি মাইলে ঈসায়ী হিসেবে।

মুসাফিরের দূরত্ব হিসেব করতে হবে মাইলে শরয়ী হিসেবে। মাইলে ঈসায়ী হিসেবে নয়।

তবে দূরত্ব নিয়ে মতভেদ থাকায়

কমপক্ষে বর্তমান প্রচলিত কিলোমিটার হিসেবে ৮৩ কিলোমিটার দূরের সফরের নিয়ত ছাড়া কসর করা যাবে না।

عَنْ ‏يَحْيَى بْنِ يَزِيدَ الْهُنَائِىِّ قَالَ سَأَلْتُ أَنَسَ بْنَ مَالِكٍ عَنْ قَصْرِ الصَّلاَةِ فَقَالَ أَنَسٌ كَانَ رَسُولُ اللَّهِ -صلى الله عليه وسلم- إِذَا ‏خَرَجَ مَسِيرَةَ ثَلاَثَةِ أَمْيَالٍ أَوْ ثَلاَثَةِ فَرَاسِخَ – شُعْبَةُ شَكَّ – يُصَلِّى رَكْعَتَيْنِ   (سنن أبى داود-1/465)‏

كان ابن عمر وابن عباس يقصران ويفطران فى أربعة برد، وهو ستة عشر فرسخا (صحيح البخارى-1/147)

عن نافع عن سالم أن ابن عمر رضى الله عنه خرج إلى أرض له بذات النصب فقصر، وهى ستة عشر فرسخا (المصنف لابن أبى شيبة-5/357، رقم-8220)

عن أبى رباح قال: قلت لابن عباس: اقصر إلى عرفة؟ فقال: لا، قلت: أقصر إلى مز؟ فقال: لا، قلت: أقصر إلى الطائف والى عسفان؟ قال: نعم، وذلك ثمانية وأربعون ميلا، وعقد بيده (المصنف لابن أبى شيبة-5/358، رقم-8222)

لكن جمهور الفقهاء قدروها باعتبار المكان بأربعة برد، وهو ثمانية وأربعون ميلا استنادا إلى بعض الآثار (الموسوعة الفقهية الكويتية-36/347)

وفى النهاية الفتوى على اعتبار ثمانية عشر فرسخا، وفى المجتبى فتوى أكثر أئمة خوارزم على خمسة عشر فرسخا (البحر الرائق، زكريا-2/228، كويته-2/129)

ثم اختلفوا فقيل: أحد وعشرون فرسخا، وقيل: ثمانية عشر، وقيل: خمسة عشر، والفتوى على الثانى، لأنه الأوسط، وفى المجتبى: فتوى أئمة خوارزم على الثالث (رد المحتار، زكريا-2/602، كرتاشى-1/123، مجمع الأنهر-1/239، فتح القدير، زكريا-2/29، كويته-2/4، بدائع الصنائع، زكريا-1/261، قديم-1/93)

ومنهم قدره بثلاث مراحل، وقال مالك: اربعة برد، كل برد إثنا عشر ميلا (بدائع الصنائع، زكريا-1/261، قديم-1/93)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তা’লীমুল ইসলাম ইনস্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

প্রধান মুফতী: জামিয়াতুস সুন্নাহ লালবাগ, ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া ইসলামিয়া দারুল হক লালবাগ ঢাকা।

পরিচালক: শুকুন্দী ঝালখালী তা’লীমুস সুন্নাহ দারুল উলুম মাদরাসা, মনোহরদী নরসিংদী।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com 

আরও জানুন

কুয়েতে প্যাকেটজাত গোস্ত খাওয়ার হুকুম কী?

প্রশ্ন আসসালামু আলাইকুম। আমি বর্তমানে কুয়েতে থাকি। আমার প্রশ্ন হলো এখানকার মার্কেটে যে সমস্ত প্যাকেটিং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস