প্রচ্ছদ / আধুনিক মাসায়েল / self app (সেল্ফ আ্যাপ) এর মাধ্যমে ইনকাম করা কি শরীয়তসম্মত?

self app (সেল্ফ আ্যাপ) এর মাধ্যমে ইনকাম করা কি শরীয়তসম্মত?

প্রশ্ন

প্রশ্নকারীর নাম: মোঃ মোস্তাকিম

ঠিকানা: কিশোরগঞ্জ, নীলগঞ্জ

জেলা/শহর: কিশোরগঞ্জ

দেশ: বাংলাদেশ

প্রশ্নের বিষয়: অনলাইন ইনকাম

বিস্তারিত:
—————-
মুহতারাম মুফতি সাহেব,
আমার প্রশ্নটি অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং বর্তমানে তার সমাধান ও অতীব জরুরী,
আমার প্রশ্ন
বর্তমানে অনলাইন এ ইনকাম  করার জন্য Self (সেল্ফ) এপসটি খুব ভাল একটি এপস, কিন্তু তার ইনকামিং সিস্টেম নিয়ে আমার সন্দেহ হয়, এখানে সাধারণ দুইভাবে ইনকাম বেশি করা হয়।
১/রেফারিং:
এটার পদ্ধতি হলো, তাদের একটা কোর্স আছে দুই হাজার টাকার আপনি যদি কাউকে এই কোর্সটি রেফার করতে পারেন এবং তাদের এপস এ যোগদান করাতে পারেন তাহলে তারা আপনাকে লাইফটাইম একটা কমিশন (%টাকা) দিবে, এবং আপনি যাকে রেফার করলেন সে যদি আরেকজনে রেফার করে তার থেকে আপনার একাউন্টে টাকা এড হবে। এভাবে যতজনকে করা হবে তার একটা পার্সেন্টিস আপনার একাউন্টে এড হতে থাকবে,
তবে তাদের শর্ত হলো আপনি যাদের রেফার করবেন তাদের সার্বক্ষনিক সাপোর্ট দিতে হবে, যখন যে বিষয়ে হেল্প চাই, বা এপস এর কোন বিষয়ে জানতে বা শিখতে চাই আপনাকে তাকে তা শিখাতে  হবে।
এভাবে রেফারিং করে টাকা ইনকাম করার হুকুম কি?
২: রিসেলিং
এটার পদ্ধতি হলো, এপস থেকে আপনি পণ্য নিয়ে সেগুলো আপনি প্রচার করবেন  এবং কাস্টমারের কাছে তা বিক্রি করবেন (ওকিল হিসাবে) এবং কম্পানি পণ্যটির সর্বনিম্ন মূল্য ও সর্বোচ্চ মূল্য তারা নির্ধারণ করে দিবে এর মাঝে আপনি যত লাভ করে বিক্রি করতে পারেন তা আপনার লাভ।
এভাবে ক্রয়-বিক্রয় এর হুকুম কি?

জাযাকুমুল্লাহ

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

প্রথম সূরতটি মাল্টিলেভেল মার্কেটিং পদ্ধতি। যা বিজ্ঞ উলামাগণের সর্বসম্মত মতানুসারে নাজায়েজ।

এখানে শুধুমাত্র উক্ত কোম্পানীর কোর্স বিক্রি প্রথমবার যার কাছে করা হবে, সেই বিক্রির বিনিময়ে কোম্পানী কর্তৃক নির্ধারিত কমিশন গ্রহণ জায়েজ আছে।

তার পরবর্তীতে ক্রেতা আরেকজনকে বিক্রি করলে প্রথম ব্যক্তিকে কমিশন দেয়া এটা ‘পরিশ্রম ছাড়াই পারিশ্রমিক গ্রহণ’ এর অন্তর্ভূক্ত হওয়ায় তা নাজায়েজ।

যদিও এখানে জায়েজ করার জন্য কৌশলের আশ্রয় নিয়ে বলা হচ্ছে যে, সার্বক্ষণিক সাপোর্ট দিতে হবে। এটা একটি কথার কথা মাত্র। বাস্তবতার সাথে এর কোন সম্পর্ক নেই। তাই দ্বিতীয় ব্যক্তির ক্রয়বিক্রয় এবং তার পরবর্তীতের লেনদেনর কারণে প্রথম ব্যক্তির কমিশন গ্রহণের পদ্ধতিটি নাজায়েজ।

তাই এ ধরণের ‘বায়বীয়’ কোম্পানী থেকে নিজেকে বিরত রাখা আবশ্যক।

 

দ্বিতীয় পদ্ধতিটি যদি হুবহু তাই হয়, যা উপরে বর্ণিত। তথা কোম্পানী কর্তৃক নির্ধারিত মূল্যের পণ্য বেশি দামে বিক্রি করে লাভ করা উদ্দেশ্য হয়, তাহলে এভাবে উকীল হিসেবে পণ্য বেশি দামে বিক্রি করে লাভ করা জায়েজ আছে।

কিন্তু আসলে বিষয়টি এতটা সহজ ও সরল নয়।

বরং এখানেও প্রথম সূরতের মাল্টিলেভেল মার্কিটিং পদ্ধতিটি শামিল। এখানেও স্বীয় টিমের লোকজন বা রেফার করা ব্যক্তিদের বিক্রি করা পণ্যের উপর অটোমেটিক কমিশন আ্যাড হতে থাকবে।

এসব কারণে এটাকে আসলে বিজনেস পারপাস না বলে মূলত মাল্টিলেভেল মার্কেটিং এর প্রতারণামূলক পদ্ধতি আখ্যা দেয়াটাই অধিক যৌক্তিক হয়।

তাই এসব কথিত ব্যবসা থেকে নিজেকে বিরত থাকা জরুরী।

 

عن يعيد بن عمير الأنصارى، قال: سئل رسول الله صلى الله عليه وسلم أى الكسب أطيب؟ قال: عمل الرجل بيده، وكل بيع مبرور (شعب الإيمان للبيهقى-2/434، رقم-1171)

وکل شرط لا یقتضيه العقد وفيه منفعة لأحد المتعاقدین أو للمعقود عليه وهو من أهل الاستحقاق یفسده (هداية: ۳/۵۹)

ان كان البيع المنتج مشروطا بان يدخل المشترى فى شبكة التسويق فهذا البيع فاسد لاشتراط ما لا يقتضيه العقد (فقه البيوع-2/812)

 

قال في التتارخانية: وفي الدلال والسمسار يجب أجر المثل، وما تواضعوا عليه أن في كل عشرة دنانير كذا فذاك حرام عليهم. وفي الحاوي: سئل محمد بن سلمة عن أجرة السمسار، فقال: أرجو أنه لا بأس به وإن كان في الأصل فاسدا لكثرة التعامل وكثير من هذا غير جائز، فجوزوه لحاجة الناس إليه كدخول الحمام (رد المحتار، كتاب الإجارة، باب ضمان الأجير، مطلب فى أجرة الدلال-9/87، زكريا)

ولا تاكلوا اموالكم بينكم بالباطل (سورة البقرة-188)


وَلَمْ يَرَ ابْنُ سِيرِينَ، وَعَطَاءٌ، وَإِبْرَاهِيمُ، وَالحَسَنُ بِأَجْرِ السِّمْسَارِ بَأْسًا وَقَالَ ابْنُ عَبَّاسٍ: ” لاَ بَأْسَ أَنْ يَقُولَ: بِعْ هَذَا الثَّوْبَ، فَمَا زَادَ عَلَى كَذَا وَكَذَا، فَهُوَ لَكَ ” وَقَالَ ابْنُ سِيرِينَ: ” إِذَا قَالَ: بِعْهُ بِكَذَا، فَمَا كَانَ مِنْ رِبْحٍ فَهُوَ لَكَ، أَوْ بَيْنِي وَبَيْنَكَ، فَلاَ بَأْسَ بِهِ ” وَقَالَ النَّبِيُّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ: المُسْلِمُونَ عِنْدَ شُرُوطِهِمْ (صحيح البخارى-1/303)

 

সতর্কতা

বাংলাদেশে প্রচলিত বেশিরভাগ অনলাইন কেন্দ্রীক ও আ্যাপ কেন্দ্রীক ব্যবসাই প্রতারণা ও ধোঁকায় পূর্ণ। এমটিএফই, এসপিসিসহ অনেক অ্যাপভিত্তিক প্রতারণামূলক ব্যবসায়িক পদ্ধতি রয়েছে। যারা চটকদার বিজ্ঞাপন দিয়ে সরল মানুষ থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা নিয়ে উধাও হয়ে যায়।

তাই, এসব অনলাইন কেন্দ্রীক এবং আ্যাপভিত্তিক এসব লেনদেন ও কথিত ব্যবসা থেকে নিজেকে বিরত রাখাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে।

তেমনি self নামক আ্যাপভিত্তিক বিজনেস প্লাটফর্মটিও সন্দেহমুক্ত নয়। যাতে শরয়ী দৃষ্টিকোণ থেকে কিছু ক্ষেত্রে সরাসরি নাজায়েজ বিষয় রয়েছে এবং কিছু ক্ষেত্র সন্দেহযুক্ত বিষয় বিদ্যমান। সুতরাং এসব ঝুঁকিপূর্ণ কথিত ব্যবসায়িক প্লাটফর্ম থেকে নিজেকে বিরত রাখাই ঈমানদার ও বুদ্ধিমানের কাজ বলে আমরা বিশ্বাস করি।

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

পরিচালক: শুকুন্দী ঝালখালী তা’লীমুস সুন্নাহ দারুল উলুম মাদরাসা, মনোহরদী নরসিংদী।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com 

আরও জানুন

বিয়ের অনুমতি প্রদানকারীর উপস্থিতিতে উকীল একজন সাক্ষীর সামনে বিয়ে করালে বিবাহ হবে?

প্রশ্ন আসসালামুআলাইকুম। আমার স্বামী আমাকে অজ্ঞাতাবসত তিন তালাক দেন। আমি দ্বীনের পথে আসার পর জানতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস