প্রচ্ছদ / প্রশ্নোত্তর / তিন লাখ পয়ষট্টি হাজার টাকার ঋণগ্রস্ত ব্যক্তি যদি সাত লাখ টাকার মালিক হয় তাহলে তার কতো টাকা যাকাত দিতে হবে?

তিন লাখ পয়ষট্টি হাজার টাকার ঋণগ্রস্ত ব্যক্তি যদি সাত লাখ টাকার মালিক হয় তাহলে তার কতো টাকা যাকাত দিতে হবে?

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম।

আমার স্ত্রীর চার ভরি স্বর্ন ছিলো যা আমি ১০ মাস আগে ঋন হিসেবে নিয়ে বিক্রি করে ২,৪০,০০০/= টাকা আমি আমার ব্যবসায় যোগ করি। আমি আমার বোনের নিকট ১,২৫,০০০/= টাকা ঋন নিয়েছি। আমার ব্যবসায়ের বর্তমান মূলধন সাত লক্ষ টাকা।

আমার প্রশ্ন…..

১) আমাকে কতো টাকা যাকাত দিতে হবে? বিস্তারিতভাবে বলবেন।

২) যেহেতু আমি আমার স্ত্রীর নিকট থেকে এই শর্তে ঋণ নিই যে আমি পরে তাকে চার ভরি স্বর্ণ ফেরত দিব সেহেতু আমার স্ত্রীর উপরও কি এখন যাকাত ফরজ হয়েছে?

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

আপনার মোট ঋণ হলো: ৩,৬৫,০০০/= (তিন লাখ পয়ষট্টি হাজার টাকা)।

আর মূলধন আছে ৭,০০০০০/= (সাত লাখ টাকা)

সেই হিসেবে ঋণ বাদে আপনার রয়েছে ৩,৩৫,০০০/= (তিন লাখ পঁয়ত্রিশ হাজার টাকা)।

সুতরাং চল্লিশ ভাগের এক ভাগ যাকাত হিসেবে আপনার উপর যাকাত আসবে ৮,৩৭৫/= (আট হাজার তিনশত পঁচাত্তর টাকা)।

আপনার স্ত্রীর সম্পদের পরিমাণও যেহেতু রূপার মূল্য হিসেবে নিসাব পরিমাণ হয়ে যাচ্ছে। তাই তার উপরও যাকাত আদায় আবশ্যক। তাই তার ঋণ বাবদ প্রদত্ব টাকা এবং হাতে থাকা টাকা ও স্বর্ণ রূপার মুল্য হিসেবে চল্লিশ ভাগের এক ভাগ যাকাত হিসেবে প্রদান করতে হবে।


عن عائشة رضى الله عنها قالت: ليس فى الدين زكاة (المصنف لابن أبى شيبة-6/487، رقم-10364)

كل دين له مطالب من جهة العباد يمنع وجوب الزكاة سواء كان الدين للعباد كالقرض (الفتاوى الهندية-1/172، جديد-1/234)

عن السائب بن يزيد أن عثمان بن عفان كان يقول: هذا شهر زكاتكم فمن كان عليه دين، فليؤد دينه حتى تحصل أموالك، فتؤد منها الزكاة، قال محمد: وبهذا نأخذ من كان عليه دين وله مال فليدفع دينه من ماله، فإن بقى بعد ذلك ما تجب فيه الزكاة، ففيه زكاة…… وإن كان الذى بقى أقل من ذلك بعد ما يدفع من ماله الدين فليست فيه الزكاة، وهو قول أبى حنيفة (مؤطا امام محمد، كتاب الزكاة، باب زكاة المال، أشرفى ديوبند-1/172-173، رقم-323)

عن السائب بن يزيد أن عثمان بن عفان كان يقول: هذا شهر زكاتكم، فمن كان عليه دين، فليقضه، وزكوا بقية أموالكم (المصنف لابن أبى شيبة-6/548، رقم-10658)

عن ابن عمر رضى الله عنه قال: زكوا ما كان فى أيديكم، وما كان من دين فى ثقة، فهو بمنزلة مافى أيديكم (السنن الكبرى للبيهقى، كتاب الزكاة، باب زكاة الدين إذا كان على معسرا وجاحد-6\69، رقم-7717)

أن عبد الله بن عباس، وعبد الله بن عمر رضى الله عنهما قالا: من أسلف مالا فعليه زكاته فى كل عام، إذا كان فى ثقة (السنن الكبرى للبيهقى-6\68، رقم-7713)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

পরিচালক: শুকুন্দী ঝালখালী তা’লীমুস সুন্নাহ দারুল উলুম মাদরাসা, মনোহরদী নরসিংদী।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

বিয়ের অনুমতি প্রদানকারীর উপস্থিতিতে উকীল একজন সাক্ষীর সামনে বিয়ে করালে বিবাহ হবে?

প্রশ্ন আসসালামুআলাইকুম। আমার স্বামী আমাকে অজ্ঞাতাবসত তিন তালাক দেন। আমি দ্বীনের পথে আসার পর জানতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস