প্রচ্ছদ / প্রশ্নোত্তর / যাকাত খাওয়ার যোগ্য ব্যক্তিকে জমি ক্রয় করে দেবার পর যাকাতের নিয়ত করলে তা যাকাত হিসেবে গণ্য হবে?

যাকাত খাওয়ার যোগ্য ব্যক্তিকে জমি ক্রয় করে দেবার পর যাকাতের নিয়ত করলে তা যাকাত হিসেবে গণ্য হবে?

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম। আমি সাব্বির আহমেদ। যাকাতের মাসালা বিষয়ক আমার প্রশ্নটি নিম্নরূপঃ

আমার বাবা ৯০ এর দশকে আমার দুই জ্যাঠার নামে আলাদা করে কিছু জমি কিনে দেন। উল্লেখ্য, আমার দুই জ্যাঠাই তখন যাকাত নেয়ার উপযুক্ত ছিলেন। এই জমি আমার মেজ জ্যাঠা এখনো আবাদ করছেন। মরহুম বড় জ্যাঠা তার নামে কিনে দেয়া জমি পরবর্তীতে বাড়ি নির্মাণের জন্য বিক্রয় করে দেন যে বাড়িতে তার সন্তানরা এখনো বসবাস করছেন। এমতাবস্থায়, আমার বাবা যদি কিনে দেয়া সেই জমিগুলো যাকাত হিসেবে বিবেচনা করতে চান তাহলে সেটা ইসলামের দৃষ্টিতে যায়েজ হবে কিনা?

এখানে উল্লেখ্য যে, আমার মেজ জ্যাঠার বর্তমান আর্থিক অবস্থায় তিনি যাকাত গ্রহণ করার উপযুক্ত। আর আমার বড় জ্যাঠাও মৃত্যুকালীন সময়ে যাকাত নেয়ার উপযুক্ত ছিলেন।

বিষয়টির মাসালা প্রদানের জন্য অনুরোধ জানানো হলো।

যাজাকাল্লাহ খাইরুন।

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

যদি আপনার বাবা জমি কিনে দেবার সময় যাকাতের নিয়ত করে থাকেন, তাহলে উক্ত জমি যাকাত হিসেবে আদায় হবে। অথবা ক্রয় করে দেবার পর আপনার জ্যাঠাদের হাতে উক্ত জমি থাকা অবস্থায় যদি যাকাতের নিয়ত করে থাকেন, তাহলেও যাকাত আদায় হবে।

কিন্তু উক্ত জমি একজন বিক্রি করে দেবার পর যদি আপনার বাবা উক্ত জমিটি যাকাত বাবদ নিয়ত করেন তাহলে তা যাকাত হিসেবে পরিগণিত হবে না।

আশা করি বুঝতে পেরেছেন।

 

ويشترط أن يكون الصرف تمليكا الخ (الدر المختار مع رد المحتار، زكريا-3\291، كرتاشى-2\344)

الزكاة يجب فيها تمليك المال، لأن الإيتاء فى قوله تعالى: وآتو الزكاة (البقرة: 43) يقتضى التمليك ولا تتأدى بالإباحة (تبيين الحقائق، زكريا-2\18)

فهى تمليك المال من فقير مسلم غير هاشمي ولا مولاه بشرط قطع المنفعة عن المملك من كل وجه الله تعالى هذا فى الشرع (الفتاوى الهندية-1\170، جديد-1\232)

فى الدر المختار: وشرط أدائها نية مقارة له أى للأداء ولو كانت المقارنة حكما كما لو دفع بلا نية، ثم نوى والمال قائم فى الفقير

وفى رد المحتار: بخلاف ما إذا نوى بعد هلاكه (الدر المختار مع رد المحتار، زكريا-3\187)

وإذا دفع المزكى المال إلى الفقير، ولم ينوى شيئا، ثم حضرته النية عن الزكاة، ينظر إن كان المال قائما فى يد الفقير صار عن الزكاة، وإن تلف لا (الفتاوى التاتارخانية-3\198، رقم-4114)

وشرط أدائها نية مقارنة للأداء أو لعزل ما وجب (كنز) أطلق المقارنة فشمل المقارنة الحقيقية وهو الظاهر، والحكمية كما إذا دفع بلا نية ثم حضرته النية والمال قائم فى يد الفقير فإنه يجزيه، وهو بخلاف ما إذا (البحر الرائق شرح كنز الدقائق، كرتاشى-2\210)

ولو مقارنة حكمية كما لو دفع بلا نية ثم نوى والمال قائم بيد الفقير (مراقى الفلاح-390، تبيين الحقائق-2\32، الفتاوى الهندية-1\171)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

পরিচালক: শুকুন্দী ঝালখালী তা’লীমুস সুন্নাহ দারুল উলুম মাদরাসা, মনোহরদী নরসিংদী।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

টাইগার/স্পিড/রেডবুল ইত্যাদি এনার্জি ড্রিংকস খাওয়া কি হালাল?

প্রশ্ন محمد حنجالا টাইগার, স্পিড, রেডবুল এসব এনার্জি ড্রিংকস পান করা কি হালাল? এসব পণ্যের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস