প্রচ্ছদ / ওয়াকফ/মসজিদ/ঈদগাহ / মসজিদের উপকারে দান করা জায়গা বিক্রি করার হুকুম কী?

মসজিদের উপকারে দান করা জায়গা বিক্রি করার হুকুম কী?

প্রশ্ন

لسلام ورحمة الله وبركاته

আস্ সালামু আলাইকুম। মুফতি লুৎফুর রহমান ফরায়েজী সাহেবের কাছে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে প্রশ্ন আছে যা শরীয়া দলিল ভিত্তিক কুরআন ও হাদিসের আলোকে উত্তর দিয়ে উপকৃত করবেন..

আমাদের মসজিদের নামে এক ব্যাক্তি দুই কাটা জমি দান করেছে। উক্ত জমিতে আমরা চাষ করতে জমা হিসেবে দিয়েছি প্রতি বছর ১২০০ টাকার পরিবর্তে। এই জমির কিছু অংশ বিক্রি করা জায়েজ হবে কি ? এই জমিটির পেছনে অন্য এক প্রোমোটারের জমি আছে । আমাদের মসজিদের দানের জমিটির কিছু অংশ সে কিনতে চাইছে তার ব্যাক্তিগত (রাস্তা হিসেবে) ব্যবহারের জন্য। আমরা পথিক চলার রাস্তা ছেড়ে রেখেছি পূর্বের ন্যায় যাতে পথিক চলতে পারে। প্রোমোটার জানত যে তার পেছনের জমিতে যাওয়ার রাস্তা নেই তা সত্ত্বেও সে টাকার জোরে কিনেছে। এখন প্রোমোটার চাইছে তার জমিটিতে প্লটিং করে বিক্রি করবে তাই তার বড় রাস্তার প্রয়োজন পড়েছে। আমাদের মসজিদের দান করা জমিটির বাম পাশে অন্য এক ব্যাক্তির জমি আছে। সে এবং আমারা দুই উভয়ই ছেড়েছি রাস্তার জন্য। তবে সে একটু কম ছেড়েছে তাই আমরা মসজিদের পক্ষ থেকে একটু বেশি ছেড়েছি । এই ব্যাক্তির কাছেও প্রোমোটার কিনতে চেয়ে ছিল কিন্তু এনি বিক্রি করতে রাজী নন। তাই এখন বাকি আমারা মসজিদ কমিটি !

যেহেতু জমিটি বিক্রির আমাদের প্রয়োজন নাই কোন অবস্থাতেই ।

এমনত অবস্থায় আমরা প্রস্তাব দিয়েছি – যেহেতু এটি মসজিদের দানের জমি তাই আমারা বিক্রি করতে সাহস পাচ্ছি না তাই আপনি ( প্রোমোটার ) যতটা রাস্তা নেবেন নিন আর আপনার জমি থেকে সেই টুকু অংশ ছেড়ে দিন।

প্রোমোটারের বক্তব্য হল সে আমাদের মসজিদের দানের জমিটি কিনবে। এমনত অবস্থাতে এই জমির কিছু অংশ বিক্রি করা জায়েজ হবে কি ?

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

মসজিদের ওয়াকফকৃত জমি মসজিদের উপকারে কাজে লাগা অবস্থায় তা বিক্রি করা জায়েজ নয়। তাই বিক্রি করার কোন সুযোগ নেই।

তবে প্রয়োজনে রাস্তা ছেড়ে দিয়ে অন্য পাশ থেকে জমি গ্রহণ করা জায়েজ হবে।

عَنْ ابْنِ عُمَرَ رَضِيَ اللهُ عَنْهُمَا أَنَّ عُمَرَ تَصَدَّقَ بِمَالٍ لَهُ عَلَى عَهْدِ رَسُوْلِ اللهِ صلى الله عليه وسلم وَكَانَ يُقَالُ لَهُ ثَمْغٌ وَكَانَ نَخْلًا فَقَالَ عُمَرُ يَا رَسُوْلَ اللهِ إِنِّيْ اسْتَفَدْتُ مَالًا وَهُوَ عِنْدِيْ نَفِيْسٌ فَأَرَدْتُ أَنْ أَتَصَدَّقَ بِهِ فَقَالَ النَّبِيُّ صلى الله عليه وسلم تَصَدَّقْ بِأَصْلِهِ لَا يُبَاعُ وَلَا يُوْهَبُ وَلَا يُوْرَثُ وَلَكِنْ يُنْفَقُ ثَمَرُهُ فَتَصَدَّقَ بِهِ عُمَرُ

ইবনু ‘উমার (রাঃ) হতে বর্ণিত। আল্লাহর রাসূল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম)-এর সময়ে ‘উমার (রাঃ) নিজের কিছু সম্পত্তি সদাকাহ করেছিলেন, তা ছিল, ছামাগ নামে একটি খেজুর বাগান। ‘উমার (রাঃ) বলেন, ‘হে আল্লাহর রাসূল! আমি একটি সম্পদ পেয়েছি, যা আমার নিকট খুবই পছন্দনীয়। আমি সেটি সদাকাহ করতে চাই।’ নাবী (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেন, ‘মূল সম্পদটি এ শর্তে সদাকাহ কর যে তা বিক্রি করা যাবে না, দান করা যাবে না এবং কেউ ওয়ারিস হবে না, বরং তার ফল দান করা হবে। অতঃপর ‘উমার (রাঃ) সেটি এভাবেই সদাকাহ করলেন। [সহীহ বুখারী, হাদীস নং-২৭৬৪]

وإذا صح الوقف لم يجز بيعه ولا تمليكه (هداية، كتاب الوقف، أشرى ديوبند-2/640، الفتاوى الهندية، قديم-2/350، جديد-2/346، بدائع الصنائع، زكريا-5/326، خانية على هامش الهندية-3/285)

إن مراعاة غرض الواقفين واجبة (رد المحتار، زكريا-6/665، كرتاشى-4/445)

مبادلة دار الوقف بدار أخرى إنما يجوز إذا كانتا فى محلة واحدة أو تكون المحلة المملوكة خيرا من المحلة الموقوفة وعلى عكسه لا يجوز، وإن كانت المملوكة أكثر مساحة وقيمة وأجرة لاحتمال خرابها فى أدون المحلتين لدنائتها وقلة رغبات الناس فيها (البحر الرائق، زكريا-5/373، كويته-5/223، رد المحتار، زكريا-6/586، كرتاشى-4/386، مجمع الأنهر-2/576)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

পরিচালক: শুকুন্দী ঝালখালী তা’লীমুস সুন্নাহ দারুল উলুম মাদরাসা, মনোহরদী নরসিংদী।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

বিয়ের অনুমতি প্রদানকারীর উপস্থিতিতে উকীল একজন সাক্ষীর সামনে বিয়ে করালে বিবাহ হবে?

প্রশ্ন আসসালামুআলাইকুম। আমার স্বামী আমাকে অজ্ঞাতাবসত তিন তালাক দেন। আমি দ্বীনের পথে আসার পর জানতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস