প্রচ্ছদ / নামায/সালাত/ইমামত / সূরা ফাতিহার বদলে তাশাহুদ পড়লে নামাযের হুকুম কী?

সূরা ফাতিহার বদলে তাশাহুদ পড়লে নামাযের হুকুম কী?

প্রশ্ন

From: কাওছার হাবীব
বিষয়ঃ সূরা ফাতেহার বদলে তাশাহহুদ পড়লে

প্রশ্নঃ
আমি একদিন ফরজ নামাজে সূরায়ে ফাতেহার জায়গায় তাশাহহুদ পরেছিলাম। এরপর সেজদায়ে সাহু না দিয়ে নামায শেষ।
এখন প্রশ্ন হলো আমার উক্ত নামায কি পুনরায় পড়তে হবে?

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

তাশাহুদ পড়ার পর সূরা ফাতিহা ও সূরা মিলিয়ে থাকেন, তাহলে সেজদায়ে সাহু ছাড়াই আপনার নামায শুদ্ধ হয়ে গেছে। কিন্তু যদি সূরা ফাতিহা ও সূরা না মিলিয়ে থাকেন, তাহলে আপনার নামায হয়নি। এ নামায পরবর্তীতে কাযা করা আবশ্যক।

কারণ, কেরাত পড়া ফরজ। ফরজ ছেড়ে দিলে নামায হয় না।

ولو تشهد فى قيامه قبل قراءة الفاتحة، فلا سهو عليه (الفتاوى الهندية، قديم-1/127، جديد-1/186)

ولو قرأه فى القيام إن كان قبل الفاتحة لا سهو، أو بعدها فعليه، لأن ما قبلها محل الثناء، وهذا يقتضى تخصيصه بالركعة الأولى (فتح القدير،كتاب الصلاة، باب سجود السهو، زكريا-1/521، مصرى قديم-1/504، كويته-1/439)

لو تشهد فى قيامه قبل قراءة الفاتحة، فلا سهو عليه، وبعدها يلزمه سجود السهو وهو الأصح (البناية، كتاب الصلاة، باب سجود السهو، اشرفية-2/611، تبيين الحقائق، زكريا-1/474، ملتان-1/193، مجمع الأنهر، مصرى قديم-1/149، دار الكتب العلمية بيروت-1/221)

لو بدأ بالتشهد، ثم باقراءة، فلا سهو عليه (المحيط البرهانى-2/313، رقم-1863، الفتاوى التاتارخانية-2/397، رقم-2781)

وإن افتتح الصلاة فقرأ التشهد فى قيامه قبل أنشرع فى قراءة الفاتحة عامدا، أو ساهيا لا سهو عليه (خانية على هامش الهندية-1/122، جديد-1/77)

لو تشهد فى قيامه بعد الفاتحة لزمه السجود وقبلها لا (البحر الرائق-2/172)

(قَوْلُهُ وَمِنْهَا الْقِرَاءَةُ) أَيْ قِرَاءَةُ آيَةٍ مِنْ الْقُرْآنِ، وَهِيَ فَرْضٌ عَمَلِيٌّ فِي جَمِيعِ رَكَعَاتِ النَّفْلِ وَالْوِتْرِ ‌وَفِي ‌رَكْعَتَيْنِ ‌مِنْ ‌الْفَرْضِ (رد المحتار، كتاب الصلاة، باب صفة الصلاة، مبحث القراءة، زكريا-2/133، كرتاشى-1/446

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

পরিচালক: শুকুন্দী ঝালখালী তা’লীমুস সুন্নাহ দারুল উলুম মাদরাসা, মনোহরদী নরসিংদী।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

 

আরও জানুন

“জিকিরের দ্বারা জিহবা তরোতাজা থাকলে হাসতে হাসতে জান্নাত” এটা কি হাদীস?

প্রশ্ন আসসালামু আলাইকুম প্রিয় মুফতী সাহেব, মহান  আল্লাহর জন্যই  আপনাকে  অনেক  ভালবাসি। আপনার লেখা পড়ি ও প্রচার করি। আমার প্রশ্ন হচ্ছে, হাসতে হাসতে জান্নাত যাওয়ার হাদিস আমি এতদিন মানুষকে বলতে না করেছি আপনার লেখা পড়ে, এখন একটা দলিল পেয়েছি। দয়া করে জানাবেন দলিল ঠিক আছে কিনা, তাহলে এই হাদিস আমিও প্রচার করব ইনশাআল্লাহ। উত্তর وعليكم السلام ورحمة الله …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস