প্রচ্ছদ / জায়েজ নাজায়েজ / আলিয়া মাদরাসায় শিক্ষকতা করলে ইমামতী করা জায়েজ নয়?

আলিয়া মাদরাসায় শিক্ষকতা করলে ইমামতী করা জায়েজ নয়?

প্রশ্ন

From: মোঃ হাবিব
বিষয়ঃ আলিয়া মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করলে ইমামতি করা জায়েজ কিনা ।

প্রশ্নঃ
আসসালামু আলাইকুম। জনাব মুফতি সাহেব। আশা করি ভাল আছেন। আমি একটি দাখিল মাদ্রাসায় চাকুরি করি ।
অত্র মাদ্রাসায় মেয়েদের কমন রোম আছে এবং মেয়েরা হিজাব পরিধান করে।

এমতাবস্থায় একজন আলেম বলেছে আমার পিছনে নামাজ হয় না। উক্ত আলেমের কথা কি ঠিক। দলিলসহ জানালে উপকৃত হব এবং কৃতজ্ঞ থাকব।

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

যদি ছাত্রীরা পর্দার সাথে আসে। আপনিও পর্দা ঠিক রেখে শিক্ষকতা করে থাকেন, তাহলে আপনার পিছনে নামায পড়া সহীহ হবে। মাকরূহ হবে না।

যদি পর্দা লঙ্ঘণ করা হয়, তাহলে মাকরূহ হবে।

সুতরাং আপনার বক্তব্য সঠিক হলে, আপনার ইমামতী করাতে কোন সমস্যা নেই।

وكره إمامة الفاسق العالم لعدم اهتمامه بالدين فتجب إهانته شرعا، فلا يعظم بتقديمه للإمامة (حاشية الطحطاوى على مراقى الفلاح، كتاب الصلاة، فصل فى بيان الأحق بالإمامة-303، رد المحتار، زكريا-2/298، كرتاشى-1/560)

الحظر معزيا للجوهة ولا يكلم الأجنية (رد المحتار، زكريا-9/530، كرتاشى-6/369)

لا يخلون رجل بامرأة إلا مع ذى رحم محرم (صحيح البخارى-2/787، رقم-5233)

قال أبو هريرة قال: إن الله كتب على ابن آدم حظه من الزنى فزنى العين النظر وزنى اللسان النطق (صحيح البخارى-2/922، رقم-6243)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

গাইরুল্লাহকে সেজদা করা ও ফাতিমা রাঃ এর মূর্তি বানিয়ে সেজদা দেয়ার হুকুম কী?

প্রশ্ন আস্সালামুআলাইকুম হযরত। কেমন আছেন? দ্বীনের বিভিন্ন সমস্যায় সর্বদাই আপনার পরিচালিত ওয়েবসাইট হতে সাহায্য নেই। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস