প্রচ্ছদ / তালাক/ডিভোর্স/হুরমত / ‘আমি যখনি বিয়ে করি কুল্লামা তালাক’ বলার দ্বারা তালাকে মুআল্লাক হয়?

‘আমি যখনি বিয়ে করি কুল্লামা তালাক’ বলার দ্বারা তালাকে মুআল্লাক হয়?

প্রশ্ন

প্রশ্নকারীর নাম: [নাম উহ্য রাখা হলো] ঠিকানা: বি- পাড়া কুমিল্লা
জেলা/শহর: কুমিল্লা
দেশ: বর্তমানে বাহিরে আছি
প্রশ্নের বিষয়: কুল্লামা তালাক
বিস্তারিত:
আসসালামু আলাইকুম হজরত।

আমি পর্নোগ্রাফিতে আসক্ত। এই আসক্তি থেকে বাঁচার জন্য আমি কসম করছিলাম যে, আয় আল্লাহ আমি যদি এই গুনাহ আর করি, তাহলে আমি যখনি বিবাহ করবো কুল্লামা তালাক। তারপরে আবার এই গুনাহে জড়িয়ে পরি, পরে একজন আলেমের কাছে এই বিষয়ে কথা বল্লে উনি বলেন আমার বিবাহ করার সূরত হলো নিকাহে ফুযুলি করতে হবে।

তার পরে আমি আবারও কসম করি যে আমি যদি আবার এই গুনাহে জড়িয়ে পরি তাহলে নিকাহে ফুযুলি ভাবে যদি বিবাহ করি তাহলেও তালাক হয়ে যাবে।

এখন আমার পরিবার থেকে বিবাহের জন্য মেয়ে দেখতেছে দেশে আসলে বিবাহ হবে এখন আমার বিবাহ কিভাবে হবে?

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

‘বিয়ে করলে কুল্লামা তালাক’ বলার দ্বারা কুল্লামা তালাক পতিত হয় না।

কারণ, ‘কুল্লামা তালাক’ শব্দ বলতে কিছু নেই। বরং এটি একটি পদ্ধতির নাম। সেটি হলো, যতবার বিয়ে করবে, ততোবার তার বিবি তালাক বলাকে কুল্লামা তালাক বলা হয়।

শুধুমাত্র ‘কুল্লামা তালাক’ শব্দ দ্বারা কুল্লামা তালাক হয় না। বরং আগে বর্ণিত কথাগুলো বলতে হবে। নতুবা কুল্লামা তালাক হয় না।

সুতরাং বুঝা গেল, আপনার কথার দ্বারা কোন তালাক হয়নি।

তারপর আপনি আলেমের কাছ থেকে মাসআলা জানার পর যে বললেন, ‘যদি আপনি ফুজুলীভাবে বিয়ে করেন, তাহলেও তালাক হয়ে যাবে’।

এ কথাটি মুআল্লাক তালাকের অন্তর্ভূক্ত হবে।

তাই আপনি স্বাভাবিকভাবে বিয়ে করলে আপনার স্ত্রীর উপর কোন তালাক পতিত হবে না। তবে যদি আপনি উক্ত গোনাহ করে ফেলেন, তাহলে ফুজুলীর মাধ্যমে বিয়ে করলে এক তালাকে বাইন পতিত হয়ে যাবে। তারপর আবার বিয়ে করে নিলেই হবে।

তবে এক্ষেত্রে আপনি আর দুই  তালাকের মালিক থাকবেন।

তাই আপনি স্বাভাবিক সূরতে বিয়ে করতে পারেন। কোন সমস্যা নেই।

 

أنه قد اشتهر فى رساتيق شيروان: أن من قال جعلت كلما أو على كلما أنه طلاق ثلاث معلق، وهذا باطل ومن هذايانات العوام (رد المحتار، زكريا-4/457، كرتاشى-3/247)

وتنحل اليمين بعد وجود الشرط مطلقا لكن إن وجد فى الملك طلقت (الدر المختار مع رد المحتار، زكريا-4/609، كرتاشى-3/355)

إذا أضافه إلى الشرط وقع عقيب الشرط مثل أن يقول لامرأته إن دخلت الدار فأنت طالق (هداية-2/385ـ هندية، قديم-1/420، جديد-1/488

اذا كان الطلاق بائنا دون الثلاث فله ان يتزوجها فى العدة وبعد انقضائها (الفتاوى الهندية-1/472، تبيين الحقائق-2/257)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

পরিচালক: শুকুন্দী ঝালখালী তা’লীমুস সুন্নাহ দারুল উলুম মাদরাসা, মনোহরদী, নরসিংদী।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

মেসেজে কাউকে উকীল বানিয়ে বিবাহ করলে কি বিবাহ শুদ্ধ হবে?

প্রশ্ন Emergency Need বিবাহ সংক্রান্ত(নাম,পরিচয় প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক) আমার এক বন্ধুর একটা হারাম রিলেশন ছিলো।তারা সিদ্ধান্ত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস