প্রচ্ছদ / তালাক/ডিভোর্স/হুরমত / “যা চলে যা তোর আর থাকতে হবে না আমার বাড়ী” এবং ” যা ছেড়ে দিলাম” বাক্য দ্বারা কয় তালাক হবে?

“যা চলে যা তোর আর থাকতে হবে না আমার বাড়ী” এবং ” যা ছেড়ে দিলাম” বাক্য দ্বারা কয় তালাক হবে?

প্রশ্ন

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক।

গত পরশু আমি এবং আমার ওয়াইফ একে অপরের সাথে ঝগরা হয়। ঝগড়াটা চরমে চলে যায়। এক পর্যায়ে কিছু কথা হয়। হুবহু এমন কথা হয়েছিলো তাদের মধ্যে:

আমার স্ত্রী বলে,,, আরে এত যখন আমি krp তাহলে ছেড়ে দে না।

আমি বললাম,, সে সুযোগ থাকলে দিতাম।(অর্থাৎ ছেড়ে দেয়ার কোনো সূযোগ নাই)

আমার ওয়াইফ বলে,,, আমি সুজোগ দিচ্ছি তুই ছেড়ে দে।

আমি বললাম,, যা চলে যা।  তোর আর থাকা লাগবে না আমার বাড়ি। ( ভয় দেখিয়ে বাপের বাড়ি যেতে বলা এবং ঝগড়া থামানোর উদ্দ্যশ্যে)

তাহলে প্রশ্নঃ এসব কথা চলাকালিন তালাকের কোনো নিয়ত ছিলো না।

“যা চলে যা, তোর আর থাকা লাগবে না আমার বাড়ি।” এই শব্দ দ্বারা আমি ঝগড়া থামানোর ক্ষেত্রে ভয় দেখানো উদ্দেশ্য ছিলো। এবং তালাকে চুল পরিমান ইচ্ছা ছাড়া আমার স্ত্রীকে বাপের বাড়ি চলে যাওয়ার জন্য বলেছি। তালাক দিয়ে বের করার উদ্দেশ্য কখনই বলি নাই।

এটার দ্বারা কি বিবাহ বন্ধনে কোনো সমস্যা আছে কি?

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

আপনি লিখিত আকারে যে বিবরণ দিয়েছে এবং আমাদের কাছে ফোনে যে বিবরণ দিয়েছেন তাতে পরিস্কার পার্থক্য পরিলক্ষিত হচ্ছে।

ফোনের বিবরণে বলা হয়েছে যে, আপনি আপনার স্ত্রীর “আমি সুযোগ দিচ্ছি, তুই ছেড়ে দে” কথার জবাবে আপনি বলেছেন “যা ছেড়ে দিলাম”। তবে আপনার তালাকের নিয়ত এতে ছিল না।

আর লিখিত বিবরণে উল্লেখ করেছেন যে, আপনি আপনার স্ত্রীর “আমি সুযোগ দিচ্ছি, তুই ছেড়ে দে” এর জবাবে বলেছেন “যা চলে যা, তোর আর থাকা লাগবে না আমার বাড়ি।”

দু’টি সম্পূর্ণ ভিন্ন উত্তর।

সুতরাং দু’টি কথার উত্তরই আলাদা হবে।

লিখিত বিবরণের উত্তর

প্রশ্নে উল্লেখিত সূরতে আপনার নিয়ত না থাকায় “যা চলে যা, তোর আর থাকা লাগবে না আমার বাড়ি” বাক্যটি কেনায়ী হওয়ায় কোন তালাকই পতিত হয়নি। [ফাতাওয়া কাসিমিয়া-১৭/৭০৮]

مثل اذهبى فيحتاج إلى النية…… وإن نوى فهى واحدة بائنة (رد المحتار، كتاب الطلاق، باب تفويض الطلاق-4/551)

فالكنايات لا تطلق بها إلا بنية، أو دلالة الحال….. فنحو اخرجى، واذهبى، وقومى (الدر المختار مع رد المحتار، كتاب الطلاق، باب الكنايات-4/528-529، البحر الرائق-3/526، هندية-1/442، جديد-1/374، خانية على هامش الهندية-1/468، جديد-1/284)

ولو قال: اذهبى أى طريق شئت لا يقع بدون النية (الفتاوى الهندية-1/376، جديد-1/443)

اخرجى، اذهبى، تلزم النية (رد المحتار-4/534)

ফোন বিবরণের জবাব

স্ত্রীর কথার জবাবে “যা ছেড়ে দিলাম” বাক্যটি আমাদের দেশীয় পরিভাষায় তালাকের “সরীহ” তথা তালাকের জন্য ব্যবহৃত পরিস্কার শব্দ।

তাই এ শব্দ দ্বারা নিয়ত ছাড়াও এক তালাকে রেজয়ী পতিত হয়ে গেছে। ইদ্দতের মাঝে আবার স্ত্রীকে ফিরিয়ে আনা যাবে।

سرحتك وهو “رها كردم” لأنه صار صريحا فى العرف (رد المحتار، كتاب الطلاق، باب الكنايات-4/530)

اذا قال الرجل لامرأته: “بهشتم ترا از زنى” فاعلم بأن هذه اللفظة استعملها أهل خراسان وأهل العراق فى الطلاق، وأنها صريحة عند أبى يوسف حتى كان الواقع بها رجعيا ويقع بدون النية (الفتاوى الهندية، كتاب الطلاق، الفصل السابع فى الطلاق بألفاظ الفارسية-1/379، جديد-1/447، الفتاوى التاتارخانية-4/463، رقم-6678)

وقال أبو يوسف: إذا قال: بهشتم ان زن، أو قال: ان زن بهشتم، فهى طالق نوى الطلاق أو لم ينو، وتكون تطليقة رجعية (بدائع الصنائع-3/163)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তা’লীমুল ইসলাম ইনস্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

লাশের খাটিয়া কাঁধে রাখা অবস্থায় জানাযা পড়া যাবে?

প্রশ্ন হুজুর আমাদের এলাকায় বন্যার পানিতে সব ভেসে গেছে। জানাযা পড়ার মত কোন শুকনো জায়গা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস