প্রচ্ছদ / প্রশ্নোত্তর / একদিনের ইতিকাফ ভঙ্গ হলে কি দশদিনের ইতিকাফই ভঙ্গ হয়ে যায়?

একদিনের ইতিকাফ ভঙ্গ হলে কি দশদিনের ইতিকাফই ভঙ্গ হয়ে যায়?

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম,

প্রশ্নঃ এতেকাফকারী ব্যক্তির যদি কোনো কারণে একদিন এতেকাফ ভঙ্গ হয়ে যায় তাহলে কি ১০ দিনের এতেকাফ ভঙ্গ হয়ে যাবে, নাকি ঐ দিনের এতেকাফ শুধু ভঙ্গ হবে?

উত্তর জানালে চির কৃতজ্ঞ থাকবো।

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

সুন্নাতে মুআক্কাদা ইতিকাফকারীর ইতিকাফ একদিনের জন্য ভঙ্গ হলেও তার সুন্নাত ইতিকাফ বাতিল হয়ে যায়।

এরপর যতদিনই থাকুক না কেন সুন্নাত ইতিকাফ আদায় হবে না।

সুন্নাত ইতিকাফের জন্য ২০ ই রমজানের সন্ধ্যার আগে মসজিদে প্রবেশ করে চাঁদ উঠা পর্যন্ত অবস্থান করাকে বলা হয়। এর মাঝে একদিনের ইতিকাফ নষ্ট হলেও সুন্নত ইতিকাফ বাতিল হয়ে গেছে বলে সাব্যস্ত হবে।

যদি কারো ইতিকাফ ভঙ্গ হয় তাহলে রমজানের পরবর্তীতে দশ দিনের ইতিকাফ রোযাসহ মসজিদে করা উত্তম। তবে যদি একদিনের জন্য রোযা রেখে কাযা করে নেয় তবু্‌ও যথেষ্ট হবে।

وسنة كفاية مؤكدة فى العشر الأخير من رمضان الخ (حاشية الطحطاوى على مراقى الفلاح-382، هداية-1\229، الفتاوى الهندية-1\211، رد المحتار-3\430)

وعلى كل فيظهر من بحث ابن الهمام لزوم الاعتكاف المسنون بالشروع، وان لزوم قضاء جميعه او باقيه مخرج على قول أبى يوسف، اما على قول غيره فيقضى اليوم الاول الذى افسده، لاستقبال كل يوم بنفسه (رد المحتار-3\434، فتح القدير-2\393)

وفى الظهيرةية عن ابى حنيفة: انه يلزمه يوما (تاتارخانية-3\447)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তা’লীমুল ইসলাম ইনস্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

ফজরের নামাযে কুনুতে নাজেলা কি হযরত উমর রাঃ সারা বছর পড়তেন?

প্রশ্ন From: মাহমুদ বিষয়ঃ কুনূতে নাযেলা প্রশ্নঃ উমার রাঃ এর আমল হিসেবে আমাদের মসজিদে ফজর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস