প্রচ্ছদ / জায়েজ নাজায়েজ / সহবাস ছাড়া তালাক দেয়া স্ত্রীর মেয়েকে বিয়ে করা যাবে কি?

সহবাস ছাড়া তালাক দেয়া স্ত্রীর মেয়েকে বিয়ে করা যাবে কি?

প্রশ্ন

মুফতী সাহেব। আমি প্রবাসে থাকি। ফোনের মাধ্যমে একটি মহিলার সাথে আমার পরিচয় ও সম্পর্ক হয়। ইমু ও হোয়াটসএ্যাপে কথা হয়। অবশেষে আমি তাকে বিয়ে করি। একজন মুফতী সাহেবের কাছ থেকে মাসআলা জেনে নেই। সেই হিসেবে বাংলাদেশে একজনকে বিয়ের জন্য ওকীল নিযুক্ত করি। সে আমার উকীল হিসেবে উক্ত মহিলার সাথে আমার বিয়ে করায়।

বিয়ের আগে উক্ত মহিলার কোন সন্তান আছে বলে আমার জানা ছিল না। কিন্তু পরবর্তীতে জানতে পারি তার একটি মেয়ে আছে।

এ বিষয় নিয়ে আমার স্ত্রীর সাথে অনেক ঝগড়া হয়। অবশেষে আমি তাকে তালাক প্রদান করি।

কিছুদিন যাবত উক্ত মহিলার মেয়ের সাথে আমার কথা হয়। মেয়েকে আমার খুব পছন্দ।

এখন আমার প্রশ্ন হল, আমি দেশে এসে যদি আমার উক্ত প্রথম স্ত্রীর মেয়েকে বিয়ে করি। তাহলে আমার এ বিয়ে শুদ্ধ হবে কি না?

দয়া করে জানালে কৃতার্থ হবো।

বিঃদ্রঃ মহিলাকে বিয়ে করার পর তার সাথে আমার কোন দেখা সাক্ষাৎ পর্যন্ত হয়নি। শুধু ফোনেই কথা হতো।

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

উক্ত মেয়েকে বিয়ে করা আপনার জন্য জায়েজ আছে।

وَرَبَائِبُكُمُ اللَّاتِي فِي حُجُورِكُم مِّن نِّسَائِكُمُ اللَّاتِي دَخَلْتُم بِهِنَّ فَإِن لَّمْ تَكُونُوا دَخَلْتُم بِهِنَّ فَلَا جُنَاحَ عَلَيْكُمْ [٤:٢٣]

তোমরা যাদের সাথে সহবাস করেছ সে স্ত্রীদের কন্যা যারা তোমাদের লালন-পালনে আছে। যদি তাদের সাথে সহবাস না করে থাক,তবে এ বিবাহে তোমাদের কোন গোনাহ নেই। [সূরা নিসা-২৩]

يحرم على الرجل…… ,بنت امرأة دخل بها، فإن لم يدخل حتى حرمت عليه حل له تزويج الربيب لقوله تعالى: وَرَبَائِبُكُمُ اللَّاتِي فِي حُجُورِكُم مِّن نِّسَائِكُمُ اللَّاتِي دَخَلْتُم بِهِنَّ فَإِن لَّمْ تَكُونُوا دَخَلْتُم بِهِنَّ فَلَا جُنَاحَ عَلَيْكُمْ [٤:٢٣] (مجمع الأنهر-1/477)

عَنْ عَمْرِو بْنِ شُعَيْبٍ، عَنْ أَبِيهِ، عَنْ جَدِّهِ، أَنَّ النَّبِيَّ صلى الله عليه وسلم قَالَ ‏”‏ أَيُّمَا رَجُلٍ نَكَحَ امْرَأَةً فَدَخَلَ بِهَا فَلاَ يَحِلُّ لَهُ نِكَاحُ ابْنَتِهَا فَإِنْ لَمْ يَكُنْ دَخَلَ بِهَا فَلْيَنْكِحِ ابْنَتَهَا وَأَيُّمَا رَجُلٍ نَكَحَ امْرَأَةً فَدَخَلَ بِهَا أَوْ لَمْ يَدْخُلْ بِهَا فَلاَ يَحِلُّ لَهُ نِكَاحُ أُمِّهَا ‏”‏

আমর ইবনু শুআইব (রাহঃ) হতে পর্যায়ক্রমে তার পিতা ও দাদার সূত্রে বর্ণিত আছে, নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ যে কোন লোক কোন নারীকে বিয়ে করে তার সাথে সহবাস করলে তার সাথে ঐ নারীর মেয়ের বিয়ে বৈধ নয়। সে যদি তার সাথে সহবাস না করে থাকে তবে সে তার কন্যাকে বিয়ে করতে পারে। যে কোন লোক কোন নারীকে বিয়ে করার পর তার সাথে সহবাস করুক বা না করুক, তার মায়ের সাথে তার বিয়ে বৈধ নয়। [সুনানে তিরমিজী, হাদীস নং-১১১৭]

তবে এভাবে বিয়ের আগে মেয়ের সাথে কথা বলা হারাম। তা’ই কৃত গোনাহের জন্য আল্লাহর কাছে খাঁটি দিলে তওবা করা আবশ্যক।

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক ও প্রধান মুফতী-তা’লীমুল ইসলাম ইনস্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

জীবিত ও সুস্থ্য থাকা অবস্থায় ছয় ছেলের মাঝে এক ছেলেও মেয়েকে সমুদয় সম্পদ লিখে দেয়া যাবে কি?

প্রশ্ন আমার নানা প্রায় আট বছর আগে মারা গিয়েছেন। তার তিন ছেলে ও তিন মেয়ে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *