প্রচ্ছদ / নামায/সালাত/ইমামত / বস্তুর ছায়া দ্বিগুণ হবার আগেই আসর নামায পড়ার হুকুম কি?

বস্তুর ছায়া দ্বিগুণ হবার আগেই আসর নামায পড়ার হুকুম কি?

প্রশ্ন

আসসালামুআলাইকুম

আমি চায়নাতে থাকি , ছাত্র। আমাকে প্রায় সময় ইমামতি করতে হয়। কিন্তু মুসল্লি বেশীরভাগ অন্য মাযহাবের হওয়ায় আসরের নামায এর সময় তাদের মাযহাব অনুসারে ঠিক করেছে… অর্থাৎ বস্তুর ছায়া বস্তুর সমান হলেই তাদের আসরের ওয়াক্ত হয়। এই অবস্থায় আমি কি ওই সময় ইমামতি করতে পারব? কিংবা আমি কি তাদের কারও পিছনে নামায পড়তে পারব? যেহেতু আমাদের মাযহাব অনুসারে তখনো আসরের ওয়াক্ত হয় নাই। হানাফি মাযহাবের ও আমরা ১০-১২ জন নামাযি আছি… নাকি তাদের নিয়ে নতুন করে আমাদের মাযহাব অনুসারে জামাতের ব্যাবস্থা করব??

উল্লেখ্য আমরা নিজেরা হোস্টেলের একটি রুমে নামাযের ব্যবস্থা করে নামায পড়ি।

আমার দ্বিতীয় একটি প্রশ্ন হল…

আমরা যে পদ্ধতিতে বিতর এর নামায পড়ি তার শরয়ি দলিল কি? আমাদে এভাবে নামায পড়তে দেখে এক আরব আমাদের জিজ্ঞেস করেছিল…

আবদুল্লাহ  আল রোমান

ইয়াংঝু, চীন

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

১ম প্রশ্নের উত্তর

যেহেতু এ বিষয়ে আমাদের ইমামদের মাঝেই মতভেদ হয়ে গেছে। তাই ফক্বীহগণ বলেন, উত্তম ও সতর্কতা এটাই যে, বস্তুর ছাড়া দ্বিগুণ হওয়ার আগে আসরের নামায পড়বে না। তবে যদি কেউ পড়ে নেয়, তাহলে মতভেদ থাকার কারণে নামাযকে বাতিল বলা যাবে না। বরং সহীহ হয়ে গেছে বলেই ধতব্য হবে।

তাই ফিতনার আশংকা না হলে আলাদা পড়া উত্তম। তবে ফিতনার শংকা হলে এক সাথে পড়া যাবে।

قال المشائخ: ينبغى أن لا يصلى العصر حتى يبلغ المثلين، ولا يؤخر الظهر إلى أن يبلغ المثل ليخرج من الخلاف فيها، (الحلبى الكبير، كتاب الصلاة، بحث فروع فى شرح الطحاوى-227، رد المحتار، كتاب الصلاة-1/359، البحر الرائق، كتاب الصلاة-1/425-426، حاشية الطحطاوى على الدر المختار، كتاب الصلاة-1/173)

قَالَ أَبُو هُرَيْرَةَ: أَنَا أُخْبِرُكَ، صَلِّ الظُّهْرَ، إِذَا كَانَ ظِلُّكَ مِثْلَكَ.وَالْعَصْرَ، إِذَا كَانَ ظِلُّكَ (1) مِثْلَيْكَ.

হযরত আবূ হুরায়রা রাঃ বলেন, আমি তোমাদের জানাচ্ছি যে, যখন তোমার ছায়া তোমার সমান হয়, তখন যোহরের নামায পড়, আর যখন তা দ্বিগুণ হয়, তখন আসরের নামায পড়। {মুয়াত্তা মালিক, হাদীস নং-১২, , মুসান্নাফ আব্দুর রাজ্জাক, হাদীস নং-২০৪১, কানযুল উম্মাল, হাদীস নং-২১৭৩৪}

২য় প্রশ্নের উত্তর

বিতর নামাযের রাকাত সংখ্যা এবং পড়ার পদ্ধতি সম্বলিত তিনটি প্রবন্ধ আমাদের সাইটে প্রকাশিত হয়েছে। দয়া করে ভাল করে পড়ে নিন। 

সহীহ হাদীসের আলোকে বিতর নামায তিন রাকাত

বিতর নামায এক রাকাত না তিন রাকাত?

হাদীস ও আছারে সাহাবার আলোকে বিতর নামায পড়ার পদ্ধতি

والله اعلم بالصواب

উত্তর লিখনে

লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

ইমেইল- ahlehaqmedia2014@gmail.com

lutforfarazi@yahoo.com

আরও জানুন

কুরবানীর জন্য মান্নত করা পশুতে কাউকে শরীক নিতে পারবে?

প্রশ্ন আসসালামু আলাইকুম হযরত.. একটি প্রশ্ন জানার ছিলো প্রশ্নটি হলো এক ব্যক্তির একটি গরু ছিলো …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস