প্রচ্ছদ / কুরআন ও হাদীসের ব্যাখ্যা / “তোমরা ঘরকে কবর বানিও না” হাদীসের এ বক্তব্যের ব্যাখ্যা কি?

“তোমরা ঘরকে কবর বানিও না” হাদীসের এ বক্তব্যের ব্যাখ্যা কি?

প্রশ্ন

হাদীসে এসেছে যে, তোমরা ঘরকে কবর বানিও না। এর মানে কি? এক ভাই এর ব্যাখ্যায় বললেন যে, এর দ্বারা নাকি কবরস্থানে নামায পড়া নিষেধ উদ্দেশ্য। এমনটি নাকি বুখারী শরীফে আছে। অথচ আমি একজন আলেমের বয়ানে শুনেছি যে, তিনি এ হাদীস বলে বলেছেন যে, ঘরকে নামায ও কুরআন পড়া থেকে খালি করিও না। কোন কথাটি গ্রহণযোগ্য?

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক

 

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

উভয় কথাই হতে পারে। তবে আলেম সাহেবের বলা বক্তব্যটিই হাদীস দ্বারা অধিক স্পষ্ট। তথা ঘরকে কবরের মত নির্জিব ইবাদতশুণ্য না বানাতে রাসূল সাঃ নির্দেশ দিয়েছেন।

 

( ولا تتخذوها قبورا ) أي لا تكونوا كالموتى الذين لا يصلون في بيوتهم وهي القبور وقيل المراد أن من لم يصل في بيته جعل نفسه كالميت وبيته كالقبر ويؤيده ما رواه مسلم مثل البيت الذي يذكر الله فيه والبيت الذي لا يذكر الله فيه كمثل الحي والميت وقيل معناه لا تدفنوا فيها موتاكم

তুহফাতুল আহওয়াজিতে আব্দুর রহমান মোবারকপুরী রহঃ বলেন-“তোমরা ঘরকে কবর বানিওনা” এর দ্বারা উদ্দেশ্য হল ঘরকে মৃত বানিওনা, যাতে নামায পড়া হয়না, যেমন কবর।

কেউ কেউ বলেন-“এর দ্বারা উদ্দেশ্য হল যে তার গৃহে নামায পড়েনা সে তার নিজেকে মৃত বানিয়ে ফেলে আর কবরকে বানায় তার গৃহ”। আর এই কথাটি শক্তিশালী করেছে যা মুসলিম শরীফে বর্ণিত, যাতে বলা হয়েছে যে, যে ঘরে আল্লাহর স্মরণ হয় আর যাতে হয়না তার উপমা হল জীবিত ও মৃতের মত।

আর কেউ বলেন এর দ্বারা উদ্দেশ্য হল “তোমরা ঘরে কাউকে দাফন করনা”। {তুহফাতুল আহওয়াজী-باب ما جاء في فضل صلاة التطوع في البيت}

 

দ্বিতীয় ব্যাখ্যাটিই হাদীসের মৌলিক ব্যাখ্যা। কারণ এই হাদিস দিয়ে ইমাম বুখারী রহঃ যেই কথাটি প্রমাণিত করতে চেয়েছেন তা মূলত এই হাদিস দিয়ে প্রমানিত হয়না। কারণ-ইমাম বুখারী রহঃ বুখারী শরীফে শিরোনাম দিয়েছেন-باب كراهية الصلاة في المقابرতথা “কবরস্থানে নামায পড়ার নিষিদ্ধতার অধ্যায়”। অথচ যেই হাদিস এনেছেন তা দিয়ে তা প্রমাণিত হয়না। কারণ “তোমরা ঘরকে কবর বানিওনা” দ্বারা প্রমাণিত হয় ঘরকে কবরের মত মৃত সাব্যস্ত করনা। “কবরে নামায পড়না বা ইবাদত করনা” একথা প্রমানিত হয়না হাদিসের শব্দ দ্বারা। দেখুন উমদাতুল কারী ফি শরহি সহীহিল বুখারী, নামায পড়ার নিষিদ্ধতার অধ্যায়।

 

মূল আরবীটা পড়ুন-

قيل هذا الحديث لا يطابق الترجمة لأنها في كراهة الصلاة في المقابر والمراد من الحديث أن لا تكونوا في بيوتكم كالأموات في القبور حيث انقطعت عنهم الأعمال وارتفعت عنهم التكاليف وهو غير متعرض لصلاة الأحياء في ظواهر المقابر ولهذا قال لا تتخذوها قبورا ولم يقل مقابر

 

দেখুন ইমাম নববী রহঃ মুসলিম শরীফের এই হাদিসের ব্যাখ্যায় কি বলেন-ولا تتخذوها قبورا معناه صلوا فيها ولا تجعلوها كالقبور مهجورة من الصلاة“তোমরা ঘরকে কবর বানিওনা” এর অর্থ হল তোমরা গৃহকে কবরের মত নামায মুক্ত বানিওনা। {শরহে মুসলিম লিন নাবাবী-باب استحباب صلاة النافلة في بيته وجوازها في المسجدনফল নামায বাড়িতে পড়া মুস্তাহাব আর মসজিদে পড়া জায়েজের অধ্যায়}

 

ঠিক একই ব্যাখ্যা দেখুন আবু দাউদ শরীফের বিখ্যাত ব্যাখ্যাগ্রন্থ “আওনুল মাবুদে”-

ولا تتخذوها قبورا ) أي مثل القبور التي ليست محلا للصلاة بأن لا تصلوا فيها كالميت الذي انقطعت عنه الأعمال أو المراد لا تجعلوا بيوتكم أوطانا للنوم لا تصلون فيها فإن النوم أخو الموت

 

ঠিক একই ব্যাখ্যা দেখুন-ফাতহুল বারী লি ইবনে রজব রহঃ এর। যে ব্যাখ্যা তিনি করেছেন- তার ফাতহুল বারীর “মদীনাবাসী ও শাম ও পূর্ববাসীদের কিবলার অধ্যায়ে”।


والله اعلم بالصواب

উত্তর লিখনে

লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

ইমেইল- ahlehaqmedia2014@gmail.com

lutforfarazi@yahoo.com

আরও জানুন

পাকিস্তানী সুন্নী নামধারী পীর তাহের শাহ ও তার দলের আকীদা বিশ্বাস কি সঠিক?

প্রশ্ন আসসালামুআলাইকুম, হুজুর আমি আপনার বয়ান, ওলীপুরি,চরমোনাই  এবং দেওবন্দি হুজুরদের বয়ান শুনি। সাধারন শিক্ষিত হলেও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *