হোম / কাফন-দাফন-জানাযা / মৃত ব্যক্তির যিয়াফত খাওয়ার হুকুম কী?

মৃত ব্যক্তির যিয়াফত খাওয়ার হুকুম কী?

প্রশ্ন

মৃত ব্যক্তির যিয়াফত খাওয়া কাদের জন্য জায়েজ। এই ব্যপারে বললে ভাল হয়।

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

আমাদের দেশে মৃত ব্যক্তি নামে তিন দিনের দিন কুলখানী নামে এবং চল্লিশ দিনের দিন চল্লিশা নামে যে খানার আয়োজন করা হয়, তা হিন্দুয়ানী রুসুম। তা পরিত্যাগ করা সকল মুসলমানের উপর কর্তব্য।

হ্যাঁ, মৃত ব্যক্তির কবরে ঈসালে সওয়াবের নিয়তে গরীবকে খাওয়ানো বৈধ আছে।

কিন্তু আমাদের দেশে যেভাবে রুসুম বানিয়ে মৃত ব্যক্তির বাড়িতে খানার আয়োজন করা হয়, ধনী দারিদ্র সবাইকে আমন্ত্রণ করে এক বিশাল হুলস্থুল করা হয়। এ পদ্ধতি গলদ এবং গর্হিত। খাইরুল কুরুন থেকে তা প্রমাণিত নয়।

সাধারণতঃ লোক দেখানোর জন্য প্রতিযোগিতামূলক তা আয়োজন  করা হয়ে থাকে। এরকম খানা খেতে হাদীসে নিষেধাজ্ঞা এসেছে।

ابْنُ عَبَّاسٍ يَقُولُ: «إِنَّ النَّبِيَّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ نَهَى عَنْ طَعَامِ الْمُتَبَارِيَيْنِ أَنْ يُؤْكَلَ»

ইবনু আব্বাস (রাঃ) সূত্রে বর্ণিত। তিনি বলেন, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দু’ প্রতিদ্বন্দ্বি অহংকারীর খাদ্য গ্রহণ করতে নিষেধ করেছেন। [সুনানে আবু দাউদ, হাদীস নং-৩৭৫৪]

তাই এসব দাওয়াত পরিত্যাগ করাই উচিত।

وَيُكْرَهُ اتِّخَاذُ الضِّيَافَةِ مِنْ الطَّعَامِ مِنْ أَهْلِ الْمَيِّتِ لِأَنَّهُ شُرِعَ فِي السُّرُورِ لَا فِي الشُّرُورِ، وَهِيَ بِدْعَةٌ مُسْتَقْبَحَةٌ: وَرَوَى الْإِمَامُ أَحْمَدُ وَابْنُ مَاجَهْ بِإِسْنَادٍ صَحِيحٍ عَنْ جَرِيرِ بْنِ عَبْدِ اللَّهِ قَالَ ” كُنَّا نَعُدُّ الِاجْتِمَاعَ إلَى أَهْلِ الْمَيِّتِ وَصُنْعَهُمْ الطَّعَامَ مِنْ النِّيَاحَةِ “. اهـ. وَفِي الْبَزَّازِيَّةِ: وَيُكْرَهُ اتِّخَاذُ الطَّعَامِ فِي الْيَوْمِ الْأَوَّلِ وَالثَّالِثِ وَبَعْدَ الْأُسْبُوعِ وَنَقْلُ الطَّعَامِ إلَى الْقَبْرِ فِي الْمَوَاسِمِ، وَاِتِّخَاذُ الدَّعْوَةِ لِقِرَاءَةِ الْقُرْآنِ وَجَمْعُ الصُّلَحَاءِ وَالْقُرَّاءِ لِلْخَتْمِ أَوْ لِقِرَاءَةِ سُورَةِ الْأَنْعَامِ أَوْ الْإِخْلَاصِ. وَالْحَاصِلُ أَنَّ اتِّخَاذَ الطَّعَامِ عِنْدَ قِرَاءَةِ الْقُرْآنِ لِأَجْلِ الْأَكْلِ يُكْرَهُ. وَفِيهَا مِنْ كِتَابِ الِاسْتِحْسَانِ: وَإِنْ اتَّخَذَ طَعَامًا لِلْفُقَرَاءِ كَانَ حَسَنًا اهـ وَأَطَالَ فِي ذَلِكَ فِي الْمِعْرَاجِ. وَقَالَ: وَهَذِهِ الْأَفْعَالُ كُلُّهَا لِلسُّمْعَةِ وَالرِّيَاءِ فَيُحْتَرَزُ عَنْهَا لِأَنَّهُمْ لَا يُرِيدُونَ بِهَا وَجْهَ اللَّهِ تَعَالَى. (رد المحتار، باب صلاة الجنازة، مطلب فى كراهة الضيافة من اهل الميت-3/148)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনস্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

         

Print Friendly, PDF & Email

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

সেহরী খেয়ে নিয়ত না করে ঘুমিয়ে পড়লে রোযা হবে কি?

প্রশ্ন আমি গতকাল রাতে ২ টার দিকে খাওয়ার পর ঘুমিয়ে পড়ি, নিয়ত করতে পারিনি। কিন্তু …