হোম / কুরবানী/জবেহ/আকীকা / কুরবানী পশুর বয়স নির্ধারণে দাঁত পড়ে যাওয়ার কোন গুরুত্ব আছে কি?
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

কুরবানী পশুর বয়স নির্ধারণে দাঁত পড়ে যাওয়ার কোন গুরুত্ব আছে কি?

প্রশ্ন

নাম-Abdullah al mamun

বিষয়-কুরবানীর পশুর বয়স নির্ধারন।

কুরবানির পশুর বয়স নির্ধারনের বেপারে কোরআন হাদীসের কোথাও কি দাঁত দেখার কথা বলা আছে?

দয়া করে বিষয় টাকা জানালে উপকৃত হবো।

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

না, দাঁত দেখা বা পড়ে যাবার কোন কথা হাদীসে আসেনি। বরং কুরবানী উপযুক্ত বয়সের কথা হাদীসে এসেছে।

عَنْ جَابِرٍ، قَالَ: قَالَ رَسُولُ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ: «لَا تَذْبَحُوا إِلَّا مُسِنَّةً،

জাবির (রাযিঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন,রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ তোমরা মুসিন্নাহ্ তথা উপযুক্ত বয়সে উপনীত পশু ছাড়া কুরবানী করবে না। [সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-১৯৬৩, ইফাবা-৪৯২২, আবু দাউদ, হাদীস নং-২৮৮৮ ]

উটের বয়সসীমা কমপক্ষে ৫ বছর পেড়িয়ে ৬ বছরে উপনীত হতে হবে। গরু মহিষের বয়স কমপক্ষে ২ বছর পেড়িয়ে ৩য় বছরে উপনীত হতে হবে।

বকরী ভেড়া দুম্বার বয়স ১ বছর পেড়িয়ে ২য় বছরে উপনীত হতে হবে।

দাঁত দেখার বিষয়টি আসলে উলামাগণ ও বিজ্ঞ ব্যক্তিগণ বলে থাকেন অভিজ্ঞতার আলোকে। সেটা হল, বকরী, দুম্বা ও ভেড়ার এক বছর পূর্ণ হলে সাধারণত তার দুধের দাঁত পড়ে যায়।

আর উটের ৫ বছর হলে এবং গরুর দুই বছর পূর্ণ হলে দাঁত পড়ে। এ হিসেবে দাঁত পড়ার বিষয়টি সমাজে প্রচলিত হয়েছে। মূলত দাঁতের সাথে কুরবানী পশুর বয়সসীমার সাথে কোন সম্পর্ক নেই। বরং এটি অভিজ্ঞতার আলোকে মানুষ বলে থাকে।

وصح الثنى فصاعدا من الثلاثة والثنى هو ابن خمس من الإبل وحولين من البقر والجاموس وحول من الشاة (الدر المختار مع الشامى، كتاب الأضحية-9/466)

واما سنه: فلا يجوز شيئ مما ذكرنا من الإبل والبقر والغنم من الأضحية إلا الثنى من كل جنس…… وأما معانى هذه الأسماء فقد ذكر القدورى أن الفقهاء قالوا الجذع من الغنم ابن ستة أشهر والثنى منه ابن سنة (بدائع الصنائع-4/206

ويشترط الكامل، فلا يجوز الناقص سواء كان النقصان من حيث السن أو من حيث الذات ( قاضى خان، كتاب الأضحية، فصل فيما يجوز فى الضحايا ومالا يجوز-3/349، جديد-3/245)

ويجزئ الأضحية الثنى، فصاعدا من كل شيء، ولا يجزئ ما دون ذلك من كل شيئ…… والثنى من الغنم الذى تم عليه سنة (المحيط البرهانى-8/466، رقم-10813)

فالثنى من البقر ما تم له سنتان، ومن الإبل ما تم له خمس سنين، وما دون ذلك جذع، واتفق عليه الأئمة الأربعة (تكملة فتح الملهم-3/464

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক ও প্রধান মুফতী – মা’হাদুত তালীম ওয়াল  বুহুসিল ইসলামী ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম আমীনবাজার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া ফারূকিয়া দক্ষিণ বনশ্রী ঢাকা।

Print Friendly, PDF & Email
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

সূরা তওবার ২য় আয়াত দিয়ে তাবলীগের চার মাস সফরের দলীল পেশ করা যাবে?

প্রশ্ন From: ডাঃ খন্দঃ রেজাউল ইসলাম বিষয়ঃ দাওয়াত ও তাবলীগ প্রশ্নঃ আস্সালামু আলাইকুম, হযরত আপনাদের …