হোম / ওয়াকফ/মসজিদ/ঈদগাহ / ওয়াকফকৃত কবরস্থানের জমি স্থায়ী কবরের জন্য কমিটি কর্তৃক বিক্রির হুকুম কী?
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

ওয়াকফকৃত কবরস্থানের জমি স্থায়ী কবরের জন্য কমিটি কর্তৃক বিক্রির হুকুম কী?

বিবরণ

এলাকার সম্মিলিত দানে প্রতিষ্ঠিত কবরস্থানের কমিটি কর্তৃক কবর পাকা করা বা স্থান নির্ধারন করে রাখার জন্য মাইয়্যেতের ওয়ারিসকে কবর পরিমাণ যায়গা বরাদ্দ দিয়ে এক লক্ষ বা দেড় লক্ষ বা কমবেশি টাকা গ্রহণ করা হয়। এবং পরবর্তীতে ওয়ারিশগণ উক্ত কবর পাকা করে বা বাউণ্ডারী করে রাখে। এবং কমিটি কবরস্থানের উন্নয়ন করে থাকে।

প্রশ্ন

এলাকার সম্মিলিত দানে প্রতিষ্ঠিত কবরস্থানের কবর বরাদ্দ দিয়ে টাকা গ্রহণ করা যাবে কি?

ওয়ারিশগণ উক্ত কবরের মালিক হয়ে যাওয়া বা কবরকে পাকা করার হুকুম কী?

উক্ত কবরকে সাধারণ পাকা করা বা টাইলস ইদ্যাদি দিয়ে সুন্দর করে পাকা করার বিধান কী?

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

সম্মিলিত দানে কবরস্থানের জন্য আমভাবে ওয়াকফকৃত জমি কাউকে বরাদ্দ দিয়ে টাকা গ্রহণ করা বৈধ হবে না।

কারণ, এভাবে আজীবনের জন্য বরাদ্দ করে দিলে ওয়াকফকারীদের মাকসাদ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। তখন সেটা আর আম কবর থাকছে না, বরং ব্যক্তি মালিকানাধীন কবর হয়ে যাচ্ছে।

কারো ব্যক্তি মালিকানাধীন হয়ে যাবার জন্য কেউ কবরস্থানের জন্য জায়গা ওয়াকফ করে না। তাই এভাবে ওয়াকফকৃত কবরস্থানের স্থান টাকার বিনিময়ে বরাদ্দ করা জায়েজ হবে না।

আম ওয়াকফকৃত কবরস্থানের জন্য ওয়াকফকৃত জমি কারো ব্যক্তিগত সম্পদ নয়। তাই এর কোন জমিন কারো ব্যক্তি মালিকানা দাবী করা সুযোগ নেই।

তাই কমিটির জন্য টাকার বিনিময়ে কবরস্থানের কোন জায়গা বরাদ্দ করে দেয়া জায়েজ নয়। তাই তাদের এ লেনদেন সহীহ হইনি। সেই হিসেবে উক্ত স্থান সর্বদার জন্য বরাদ্দকৃতের মালিকানা সাব্যস্ত হবে না। বরং অন্যান্য স্থানের মতই এটি পরবর্তীতে প্রয়োজনে নতুন কবরের জন্য ব্যবহার করা যাবে।

বরাদ্দকৃত কবরকে স্থায়ীভাবে পাকা করে আটকে ফেলা জায়েজ হবে না।

কবর পাকা করা, টাইলস করা ইত্যাদি জায়েজ নয়। তাই এসব কাজ থেকে নিজেকে বিরত রাখা আবশ্যক।

أنهم صرحوا بأن مراعاة غرض الواقفين واجبة الخ (رد المحتار، مطلب مراعات غرض الواقفين واجبة-6\665)

فإذا تم ولزم لا يملك (الدر المختار) أى لا يكون مملوكا لصاحبه ولا يملك أى لا يقبل التمليك بالبيع ونحوه (الدر المختار مع رد المحتار، كتاب الوقف، قبيل مطلب فى شرط واقف الكتب أن لا تعار إلا برهن-6\539، الهداية، كتاب الوقف-2\640، فتح القدير، كتاب الوقف-6\220)

لأن الواجب إبقاء الوقف على ما كان عليه دون زيادة، ولأنه لا موجب لتجويزه (رد المحتار، مطلب لا يستبدل العامر إلا فى أربع-4\388)

عَنْ جَابِرٍ قَالَ: نَهَى النَّبِيُّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَنْ تُجَصَّصَ القُبُورُ، وَأَنْ يُكْتَبَ عَلَيْهَا، وَأَنْ يُبْنَى عَلَيْهَا، وَأَنْ تُوطَأَ.

 জাবির রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত যে, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কবরে চুনা লাগাতে এবং তাতে লিখতে, এর উপর ঘর নির্মাণ করতে ও তা পদদলিত করতে নিষেধ করেছেন। [সুনানে তিরমিজী, হাদীস নং-১০৫২, মুসনাদে আহমাদ, হাদীস নং-১৫২৮৬,সহীহ মুসলিম-/৩১২, হাদীস নং-৯৭০, মুসান্নাফ আব্দুর রাজ্জাক-৩/৫০৪, হাদীস নং-৬৪৮৮]

(قَوْلُهُ وَلَا يُرْفَعُ عَلَيْهِ بِنَاءٌ) أَيْ يَحْرُمُ لَوْ لِلزِّينَةِ، وَيُكْرَهُ لَوْ لِلْإِحْكَامِ بَعْدَ الدَّفْنِ، الخ (رد المحتار، كتاب الصلاة، باب صلاة الجنائز-3\144)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক ও প্রধান মুফতী – মা’হাদুত তালীম ওয়াল  বুহুসিল ইসলামিয়া ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

স্বপ্নে খানা খেলে কি রোযা ভঙ্গ হয়ে যায়?

প্রশ্ন নাম- মোঃরাজীব শরীফ,চট্রোগ্রাম। আসসালামু আলাইকুম। জনাব,আমি রোজা থাকা অবস্থায় ঘুমি গেলেই স্বপ্নে দেখি বিভিন্ন …