প্রচ্ছদ / আধুনিক মাসায়েল / দোকান বাসার সিকিউরিটি হিসেবে প্রদত্ব এ্যাডভান্সের যাকাত কার উপর আসবে?

দোকান বাসার সিকিউরিটি হিসেবে প্রদত্ব এ্যাডভান্সের যাকাত কার উপর আসবে?

প্রশ্ন

From: মিনহাজ
বিষয়ঃ দোকানের জামানতের টাকার যাকাত

প্রশ্নঃ
কোন ব্যাক্তি যদি দোকানের সিকিউরিটি বাবদ ১,০০,০০০/- নেয়, তাহলে উক্ত টাকার যাকাত আদায় করতে হবে কি?
জানালে অনেক উপকৃত হতাম।

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

আসল কথা হল, আমাদের দেশে প্রচলিত এডভান্স পদ্ধতিই শরীয়ত সম্মত নয়।

কারণ যে এডভান্স নেয়া হয়, তা মূলত জামানত হয়। আর জামানতের টাকা গ্রহিতার জন্য খরচ করা বৈধ হয় না।

অথচ যিনি জামানত গ্রহণ করেন সেই বাড়ি বা দোকানের মালিক উক্ত টাকা খরচ করে ফেলেন। তাহলে এভাবে চুক্তিটিই নাজায়েজ হয়ে থাকে।

তবে এক্ষেত্রে একটি পদ্ধতি অবলম্বন করলে উক্ত চুক্তিটি জায়েজের আওতাভুক্ত হয়। সেটি হল, দীর্ঘ মেয়াদী ভাড়া চুক্তি সম্পাদন। অর্থাৎ ভাড়া চুক্তি সম্পাদনের সময় প্রতি মাসের নির্দিষ্ট ভাড়ার কথা উল্লেখ করা হবে। তারপর সামনে আগত মাসের ভাড়া অগ্রীম পরিশোধ করার নামে উক্ত অতিরিক্ত টাকা প্রদান করা হবে। প্রতি মাসে ভাড়াটিয়া নির্ধারিত ভাড়া পরিশোধ করতে থাকবে। আর যে মাসে উক্ত স্থান থেকে ভাড়াটিয়া চলে যাবে তার কয়েক মাস আগে থেকে ভাড়াদাতার কাছে জমাকৃত উক্ত টাকা থেকে ভাড়া পরিশোধ করে নেয়া হবে। আর যদি কোন অর্থ তারপরও বেঁচে যায়, তাহলে মালিক তা ফেরত দিতে বাধ্য থাকবে।

যদি এ সুরত অবলম্বন করা হয়, তাহলে উক্ত চুক্তিটি এবং অতিরিক্ত টাকা প্রদানটি একটি জায়েজ চুক্তি হবে। তাই উক্ত অতিরিক্ত টাকাটির মালিক হয়ে যাবে বাড়ির মালিক। এতে মৌলিকভাবে ভাড়াটিয়ার কোন মালিকানা বাকি থাকবে না। যেহেতু ভাড়াটিয়া উক্ত টাকার মালিক থাকছে না, তাই তার উপর উক্ত টাকার যাকাত আবশ্যক হওয়ার প্রশ্নই আসে না। পক্ষান্তরে যেহেতু বাড়ির মালিক উক্ত টাকার মালিক হয়ে যাচ্ছে, তাই উক্ত টাকা খরচ করা তার জন্য জায়েজ হবে। সেই সাথে উক্ত টাকার যাকাতও তার উপর আবশ্যক হবে। {জাদীদ ফিক্বহী মাসায়েল-১/১৪৭-১৪৮, মালে হারাম আওর উসকে মাসারেফ ওয়া আহকাম-৮৫}

আর যদি টাকাটি শুধু জামানত হিসেবে বা আমানত হিসেবে দোকান ও বাড়ি মালিকের কাছে গচ্ছিত রাখা হয়, এক্ষেত্রে মূল মালিক যেহেতু যিনি দোকান বা বাসা ভাড়া নিচ্ছেন তিনিই থাকেন। তাই উপরোক্ত টাকার যাকাত দোকান বা বাসা ভাড়াকারী ব্যক্তি তথা টাকা জমাদাতা ব্যক্তির উপরই আসবে।

আরেক শব্দে বললে, যিনি সিকিউরিটি হিসেবে টাকা রাখছেন, তার উপর যাকাত আসবে।

وكان من كبار علماء سمرقند إنه لا يحل له أن ينتفع بشيء منه بوجه من الوجوه وإن أذن له الراهن ، لأنه أذن له في الربا لأنه يستوفي دينه كاملا فتبقى له المنفعة فضلا ، فتكون ربا وهذا أمر عظيم (رد المحتار، كتاب الرهن-10/82، طحطاوى على الدر، كتاب الرهن—4/236، مجمع الأنهر، كتاب الرهن-4/273)

كل قرض جر نفعا فهو حرام، قال الشامى – اى اذا كان مشروطا (رد المحتار- كتاب البيوع، باب المرابحة، فصل فى القرض-7/295)

وَأَمَّا زَكَاةُ الْأُجْرَةِ الْمُعَجَّلَةِ عَنْ سِنِينَ فِي الْإِجَارَةِ الطَّوِيلَةِ الَّتِي يَفْعَلُهَا بَعْضُ النَّاسِ عُقُودًا وَيَشْتَرِطُونَ الْخِيَارَ ثَلَاثَةَ أَيَّامٍ فِي رَأْسِ كُلِّ شَهْرٍ فَتَجِبُ عَلَى الْآجِرِ لِأَنَّهُ مَلَكَهَا بِالْقَبْضِ وَعِنْدَ الِانْفِسَاخِ لَا يَجِبُ عَلَيْهِ رَدُّ عَيْنِ الْمَقْبُوضِ بَلْ قَدْرُهُ فَكَانَ كَدَيْنٍ لَحِقَهُ بَعْدَ الْحَوْلِ (فتح القدير- كتاب الزكاة، 2/174

وأما سائر الديون المقر بها فهي على ثلاث مراتب عند أبي حنيفة – رحمه الله تعالى – ضعيف ، وهو كل دين ملكه بغير فعله لا بدلا عن شيء نحو الميراث أو بفعله لا بدلا عن شيء كالوصية أو بفعله بدلا عما ليس بمال كالمهر وبدل الخلع والصلح عن دم العمد والدية وبدل الكتابة لا زكاة فيه عنده حتى يقبض نصابا ويحول عليه الحول .ووسط ، وهو ما يجب بدلا عن مال ليس للتجارة كعبيد الخدمة وثياب البذلة إذا قبض مائتين زكى لما مضى في رواية الأصل وقوي ، وهو ما يجب بدلا عن سلع التجارة إذا قبض أربعين زكى لما مضى كذا في الزاهدي  (الفتاوى الهندية، كتاب الزكاة، الباب الأول-1/175، البحر الرائق-2/207، النهر الفائق-1/416، رد المحتار، كتاب الزكاة، باب زكاة المال-3/236-237)

وفى الهداية: ولو كان الدين على مقر ملئ أو معسر تجب الزكاة لإمكان الوصول اليه ابتداء وبواسطة الحصيل وكذا ولو كان على جاحد وعليه بينة (الهداية-1/186)

وفى الدر المختار: ولو كان الدين على مقر ملئ أو على معسر أو مفلس… او على جاحد عليه بينة….. فوصل الى ملكه لزم زكاة ما مضى، (رد المحتار، كتاب الزكاة-3/184-185

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল- ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

চলন্ত বাসে কিভাবে নামায আদায় করবে?

প্রশ্ন চলন্ত বাসে যদি বাস থামিয়ে নামায পড়ার সুযোগ না থাকে, তাহলে কিভাবে নামায আদায় …

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস