প্রচ্ছদ / আকিদা-বিশ্বাস / হাশ‌রের ময়দা‌নে সূর্য কতটুকু উপ‌রে থাক‌বে?

হাশ‌রের ময়দা‌নে সূর্য কতটুকু উপ‌রে থাক‌বে?

প্রশ্ন

মুফতী সা‌হে‌বের কা‌ছে আমার প্রশ্ন হল, আমরা বি‌ভিন্ন বক্তার ওয়া‌জে শু‌নি যে, হাশ‌রের ময়দা‌নে সূর্য মাথার উপ‌রে থাক‌বে। কেউ ব‌লেন যে, আধা জাত উপ‌রে থাক‌বে।

এ বিষ‌য়ে স‌ঠিক তথ‌্য জানা‌লে কৃতার্থ হতাম।

উত্তর

হাশ‌রের ময়দা‌নে সূর্য খুব কাছাকা‌ছি থাক‌বে। হাদী‌সের মাধ‌্যমে জানা যায় যে, এক থে‌কে দুই মাইল উপ‌রে থাক‌বে সূর্য।

বর্তমান প্রচ‌লিত কি‌লো হি‌সে‌বে যা দেড় থে‌কে তিন কি‌লো‌মিটার হ‌বে।

الْمِقْدَادُ، صَاحِبُ رَسُولِ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم قَالَ سَمِعْتُ رَسُولَ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم يَقُولُ ‏”‏ إِذَا كَانَ يَوْمُ الْقِيَامَةِ أُدْنِيَتِ الشَّمْسُ مِنَ الْعِبَادِ حَتَّى تَكُونَ قِيدَ مِيلٍ أَوِ اثْنَيْنِ ‏”‏ ‏.‏ قَالَ سُلَيْمٌ لاَ أَدْرِي أَىَّ الْمِيلَيْنِ عَنَى أَمَسَافَةَ الأَرْضِ أَمِ الْمِيلَ الَّذِي تُكْتَحَلُ بِهِ الْعَيْنُ قَالَ ‏”‏ فَتَصْهَرُهُمُ الشَّمْسُ فَيَكُونُونَ فِي الْعَرَقِ بِقَدْرِ أَعْمَالِهِمْ فَمِنْهُمْ مَنْ يَأْخُذُهُ إِلَى عَقِبَيْهِ وَمِنْهُمْ مَنْ يَأْخُذُهُ إِلَى رُكْبَتَيْهِ وَمِنْهُمْ مَنْ يَأْخُذُهُ إِلَى حَقْوَيْهِ وَمِنْهُمْ مَنْ يُلْجِمُهُ إِلْجَامًا ‏”‏ ‏.‏ فَرَأَيْتُ رَسُولَ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم يُشِيرُ بِيَدِهِ إِلَى فِيهِ أَىْ يُلْجِمُهُ إِلْجَامًا ‏.‏ قَالَ أَبُو عِيسَى هَذَا حَدِيثٌ حَسَنٌ صَحِيحٌ ‏.‏ وَفِي الْبَابِ عَنْ أَبِي سَعِيدٍ وَابْنِ عُمَرَ

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের সাহাবী মিকদাদ (রাঃ) বলেন, আমি রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে বলতে শুনেছিঃ কিয়ামাত দিবসে সূর্যকে মানুষের এত নিকটে আনা হবে যে, তা মাত্র এক অথবা দুই মাইল ব্যবধানে থাকবে। সুলাইম ইবনু আমির (রাহঃ) বলেন, আমি জানি না উক্ত মাইল দ্বারা যামীনের দূরত্ব জ্ঞাপক মাইল বুঝানো হয়েছে, না চোখে সুরমা লাগানোর শলাকা বুঝানো হয়েছে। তিনি বলেন, সূর্য তাদের গলিয়ে দেবে। তারা তখন নিজেদের আমল (গুনাহ) অনুপাতে ঘামের মধ্যে হাবুডুবু খাবে। আর তা কারো পায়ের গোড়ালী পর্যন্ত, কারো হাটু পর্যন্ত, কারো কোমর পর্যন্ত এবং কারো মুখ পর্যন্ত ঘাম পৌছে লাগামের মতো বেষ্টন করবে। এই কথা বলার পর রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তার হাত দ্বারা মুখের দিকে ইশারা করেন, অর্থাৎ লাগামের মতো বেষ্টন করাকে বুঝালেন।  (সুনা‌নে তির‌মিজী- ২/৬৮, হাদীস নং: ২৪২১, সহীহ মুস‌লিম: ২/৩৮৪, হাদীস নং: ৪৮৬৩)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক ও প্রধান মুফতী-তা’লীমুল ইসলাম ইনস্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

কবর না দিয়ে ফ্রিজিং করে রাখা লাশের সুওয়াল জওয়াব হবে কি?

প্রশ্ন মুহতারামের কাছে আমার প্রশ্ন হল, কোন ব্যক্তি মৃত্যুবরণ করার পর তাকে যদি ফ্রিজিং করে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আহলে হক্ব বাংলা মিডিয়া সার্ভিস