প্রচ্ছদ / খাদ্য-দ্রব্য / দক্ষিণবঙ্গের ঐতিহ্যবাহী কাজীর ভাত খাওয়ার হুকুম কী?

দক্ষিণবঙ্গের ঐতিহ্যবাহী কাজীর ভাত খাওয়ার হুকুম কী?

প্রশ্ন

From: তানভীর আহমেদ মুন্না
বিষয়ঃ কাজির ভাত খাওয়া কি জায়েজ?

প্রশ্নঃ
আসসালামু আলাইকুম মুফতি সাহেব।
আমাদের মাদারীপুর জেলায় একটি পরিচিত খাবার আছে যার নাম কাজির ভাত। চালকে গাঁজন পদ্ধতিতে মাটির হাঁড়িতে পঁচিয়ে সেই চাল থেকে ভাত রান্না করা হয়। রসায়ন শিক্ষকদের থেকে জেনেছি এতে এলকোহল উৎপন্ন হয়। এই ভাত খাওয়ার ব্যাপারে শরীয়তের বিধান কি? জানালে খুবই উপকৃত হব।

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

উক্ত ভাত খাওয়ার দ্বারা কেউ মাতাল হয় না। তাই তা ভক্ষণে কোন সমস্যা নেই। যদি তা খেলে মানুষ মাতাল হয়ে যায়, তাহলেই কেবল তা খাওয়া হারাম হবে।

عَنِ ابْنِ عُمَرَ، قَالَ: وَلَا أَعْلَمُهُ إِلَّا عَنِ النَّبِيِّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ، قَالَ: «كُلُّ مُسْكِرٍ خَمْرٌ، وَكُلُّ خَمْرٍ حَرَامٌ

হযরত আব্দুল্লাহ বিন উমর রাঃ থেকে বর্ণিত। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন, প্রতিটি মাতাল করে দেয়া বস্তুই মদ। আর প্রতিটি মদই হারাম। [সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-২০০৩, ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-৩৩৯০, মুসনাদে আহমাদ, হাদীস নং-৪৮৩০]

والمحرم منها أربعة ) أنواع الأول ( الخمر وهي النيء من ماء العنب إذا غلى واشتد وقذف بالزبد وحرم قليلها وكثيرها ) بالإجماع ( و ) الثاني ( الطلاء وهو العصير يطبخ حتى يذهب أقل من ثلثيه  وقيل ما طبخ من ماء العنب حتى ذهب ثلثاه وبقي ثلثه ) وصار مسكرا ( وهو الصواب ونجاسته كالخمر ) به يفتي ( و ) الثالث ( السكروهو النيء ماء الرطب )

( و ) الرابع ( نقيع الزبيب وهو النيء من ماء الزبيب ) بشرط أن يقذف بالزبد بعد الغليان ( والكل ) أي الثلاثة المذكورة ( حرام إذا غلي واشتد ) وإلا لم يحرم اتفاقا وإن قذف حرم اتفاقا وظاهر كلامه فبقية المتون أنه اختار ها هنا قولهما(تنوير الأبصار مع الدر المختار-  كتاب الأشربة -2/259

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক ও প্রধান মুফতী-তা’লীমুল ইসলাম ইনস্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

আরও জানুন

স্বামী তালাক দিতে না চাইলে স্ত্রী নিজে নিজে খোলা তালাক করতে পারবে?

প্রশ্ন আমার জিজ্ঞাসা হল, এক স্বামী মারাত্মক পর্যায়ের জালেম। অত্যাচার করে। স্ত্রী স্বামী থেকে তালাক …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *